ডেস্ক রিপোর্ট : : করোনায় চাহিদা বাড়ায় ‘জুম’ এর মতো ‘বৈঠক’ নামে একটি ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপ তৈরি করেছে বাংলাদেশ। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক জানিয়েছেন, শিগগিরই শুরু হচ্ছে এই অ্যাপের বাণিজ্যিক কার্যক্রম।

বুধবার (১০ মার্চ) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ ফিল্ম আকাইর্ভ মিলনায়তনে ‘ক্রিয়েটিভ মিডিয়া ইন্ডাস্ট্রি স্কিলস কাউন্সিলে’র এক অনুষ্ঠানে এ কথা জানান তিনি।

পলক বলেন, ‘বৈঠক’ অ্যাপটি ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের সামনে উপস্থাপন করা হয়েছে।

এ সময় প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরিতে জোর দিয়েছে সরকার। এজন্য দক্ষতা উন্নয়নে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে নেয়া হয়েছে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ প্রকল্প। বর্তমানে গুগলের মতো সার্চ ইঞ্জিন পিপিলিকা তৈরি করেছে বাংলাদেশি তরুণরাই। এছাড়া সরকারি কমকর্তা-কর্মচারীদের জন্য তৈরি করা হয়েছে ম্যাসেঞ্জিং অ্যাপ আলাপন। যাকে হোয়াটসঅ্যাপের মতো জনপ্রিয় করতে কাজ করছে সরকার।

জুনাইদ আহমেদ পলক আরো বলেন, প্রযুক্তির বিশ্বে বাংলাদেশি তরুণরাও মেধা ও যোগ্যতার প্রমাণ দিয়ে চলেছেন। এ্যানিমেটেড সিনেমা তৈরি করে বাংলাদেশি তরুণ নাফিজ বিন জাফর দু’বার অস্কার পুরস্কার জিতেছেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উপর নির্মিত ‘মুজিব আমার পিতা’ এ্যানিমেটেড মুভিটিও তৈরি করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল তরুণ শিক্ষার্থী। শিগগিরই মুভিটি প্রদর্শিত হবে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেন, নাফিজ বিন জাফর দু দুবার অস্কার জিতেছে বিদেশে গিয়ে। কিন্তু দেশে থাকতে পারে নি। এর মূল কারণ হলো আমরা তাকে কাজের পরিবেশ তৈরি করে দিতে পারি নি। কাজের পরিবেশ ও সুযোগ তৈরির কাজটিই করছে বর্তমান সরকার। ভবিষ্যতে তরুণরা বাংলাদেশে বসে তৈরি করা কাজ দিয়ে অস্কার জিততে পারবে।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর মূখ্যসচিব ড.আহমদ কায়কাউস’সহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here