ব্রেকিং নিউজ

জিরা ধানে মড়ক দেখে কৃষক দিশাহারা

জিরা ধানে মড়ক দেখে কৃষক দিশাহারামোঃ মিলন পারভেজ, পার্বতীপুর(দিনাজপুর)প্রতিনিধি :: পার্বতীপুর উপজেলায় জিরা ধানের শিষকাটা মড়ক হওয়ায় কৃষক এখন দিশাহারা হয়ে খুঁজছে তার প্রতিশোধক ঔষুধ ফিলিয়া।

জানা গেছে পার্বতীপুর উপজেলার ৫ নং চন্ডিপুর ইউনিয়নে অধিকাংশ কৃষকেই জিরা ধানা রোপন করেছে। জিরা ধান কেউ কেউ লাগায় শ্রাবণ মাসের শেষের দিকে।

এরপর প্রাথমিক পর্যায়ের টিটমেন্ট পর্যায়ক্রমে সার, ঔষুধ,স্প্রে করার কাজ শেষ করে। এখন মাঠে জিরা ধানের ফলন বাম্পার।

কিন্তু ধানের শিষের গোড়ায় মড়ক ধরায় উপজেলার ৫নং চন্ডিপুর ইউনিয়নের জাহানাবাদ মন্ডলপাড়া গ্রামের মকছেদ আলী (৫৭) সাত সকালে জমিতে শিষকাটা মড়ক দেখছে।

সে জানায় এ রোগ রাতের বেলায় বেশি বাড়ে। তাই আগের দিন এসে দেখে গিয়েছি। আজ আবার সকালে এসে দেখছি। একই গ্রামের আব্দুল রহিম মন্ডল (৫০) ৪ বিঘায়, মশিউর রহমান (৩২) ১ বিঘায়, রফিকুল ইসলাম (৩৩) ৩ বিঘায়, এবং একই ইউনিয়নের জানাহাবাদ বাজার পাড়া গ্রামের সালাম (৪৮) ৪ বিঘায়, ৩ নং রামপুর ইউনিয়নের ভোটগাছ গ্রামের আফজাল(৪০) জানান, আমার ৪ বিঘা জমিতে জিরা ধান লাগানো আছে, এবং ৪ বিঘা জমিতে জিরা ধানে মড়ক দেখা যাচ্ছে।

এদিকে ৪নং পলাশবাড়ী ইউনিয়নের কালাইঘাটি গ্রামে বাচ্চু (৪৫) ৫ বিঘায়, রফিকুল ইসলাম (৩৮) ২ বিঘায়, এ মড়ক দেখা দিয়েছে বলে জানান।

এ ব্যাপারে পার্বতীপুর উপজেলার কৃষি অফিসার আবু ফাত্তাহ মোঃ রওশন কবির জানায় এটি ব্র্যাষ্ট রোগ নাটিভো ঔষুধ স্প্রে করলে এর প্রতিকার পাওয়া যায়।

 

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

পণ্যের মার্কেটিং কিভাবে করবেন?

ঝুমা হোসেনঃ একজন ব্যবসায়ীর জন্য পণ্যেরমার্কেটিং করাটা খুবই জরুরী বিষয়। পণ্যের মার্কেটিং ...