ব্রেকিং নিউজ

জন্মদিনের শ্রদ্ধাঞ্জলি: রাষ্ট্র প্রধানের লেখালেখির অনন্য পদরেখা

ছাইফুল ইসলাম মাছুম :: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশের রাজনীতির ইতিহাসে এক অনন্য নাম। যার সুযোগ্য নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে চলছে দুর্বার গতিতে। শেখ হাসিনার অজস্র গুণরাশি গণমানুষকে মুগ্ধ করলেও, তার লেখক পরিচয় অনেকটা আড়ালেই রয়ে গেছে। যারা খোঁজ রাখেন, তারা কেউ কেউ জানেন শেখ হাসিনার লেখা একাধিক বই রয়েছে, কিন্তু সেই সংখ্যাটা কত, তা অধিকাংশ মানুষ জানেন না। সফল রাষ্ট্র নায়ক শেখ হাসিনার লেখক সত্ত্বাকে তুলে ধরতে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছেন প্রাবন্ধিক ও গবেষক রেহানা পারভীন। তিনি দীর্ঘদিন শ্রম দিয়ে, তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করে রচনা করেছেন ‘শেখ হাসিনা গ্রন্থপঞ্জি’।

রেহানা পারভীনের সম্পাদনায় চলতি বছর বইমেলায় বইটি প্রকাশ করেছে সুবর্ণ প্রকাশন। প্রচ্ছদ আজিজ হাসান, প্রচ্ছদলিপি: কাইয়ুম চৌধুরী, গ্রন্থটির মূল্য ধরা হয়েছে ৪০০ টাকা। ১৫৬ পৃষ্ঠার বইজুড়ে রয়েছে শেখ হাসিনার এবং শেখ হাসিনাকে নিয়ে লেখা বইয়ের তথ্য সমারোহ। এ পর্যন্ত শেখ হাসিনার রচিত ও সম্পাদিত ৩৫টি গ্রন্থের কথা জানা যায়। বাংলাদেশের আর কোনো রাষ্ট্র প্রধানের এত গ্রন্থ রচনার নজির নেই। কীভাবে একজন শেখ হাসিনা এতো সব সম্ভব করে তুললেন। এছাড়া প্রায় দুইশত গ্রন্থ রচিত ও প্রকাশিত হয়েছে শেখ হাসিনার জীবন ও কর্ম নিয়ে। এসব গ্রন্থের সংক্ষিপ্ত তথ্য নিয়ে প্রকাশিত গ্রন্থ ‘শেখ হাসিনা গ্রন্থপঞ্জি’তে শেখ হাসিনার জীবনের সংগ্রাম ও সাফল্যের অনেক তথ্য উঠে এসেছে। বইটি উৎসর্গ করা হয়েছে শেখ হাসিনার বইয়ের পাঠকদের উদ্দেশ্যে। এই বই পড়ে পাঠকেরা একজন লেখক শেখ হাসিনার সঙ্গে পরিচিত হবেন, সমৃদ্ধ হবেন বঙ্গবন্ধু কন্যার অজানা অনেক তথ্য জেনে।
গবেষকগণ বলছেন, রাজনৈতিক দ্বায়িত্বে না থাকলে হয়তো তাঁর লেখক সত্ত্বা আরো বেশি বিকশিত হতো। বইটির প্রস্তাবনায় ইতিহাসবিদ অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন লিখেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জীবনে অবকাশ এখন নেই। ভবিষ্যতেও থাকার সম্ভাবনা কম। তারপরও তাঁর গ্রন্থরাজি আমাদের অবাক করে। বিশেষ করে তিনি যেসব বই সম্পাদনা করেছেন তাতে অনেক সময় দিয়েছেন। বলা যেতে পারে তিনি যদি দল ও সরকার প্রধান না হতেন তাহলে হয়তো পড়াশোনা ও লেখালেখি করেই সময় কাটাতেন।’

শেখ হাসিনার গ্রন’পঞ্জি চার ভাগে বিভক্ত। প্রথম ভাগে শেখ হাসিনার লেখালেখির ওপর আলোচনা। দ্বিতীয় ভাগে শেখ হাসিনার সংক্ষিপ্ত জীবন পঞ্জি। তৃতীয় পর্বে শেখ হাসিনার লেখা বইয়ের বিশদ পঞ্জি। চতুর্থ ভাগে শেখ হাসিনার ওপর যেসব গ্রন’ প্রকাশিত হয়েছে তাঁর পঞ্জি।

গ্রন্থের ভূমিকায় রেহানা পারভীন শেখ হাসিনার নিজের লেখা কয়েকটি আলোচিত গ্রন’ সম্পর্কে সংক্ষেপে আলোকপাত করেছেন। বিশেষ করে শেখ হাসিনার আত্মজৈবনিক স্মৃতিকথা ‘মুজিব আমার পিতা’। যেখানে জাতির পিতার কন্যা গ্রন্থের পাতায় পাতায় বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে অনেক অজানা তথ্য তুলে ধরেছেন। ‘ওরা টোকাই কেন?’ গ্রন্থে হাসিনা নিজের কথা, পরিবারের কথা, দেশ ও দশের কথা, রাজনীতির কথা বলেছেন। শেখ হাসিনার অর্থনৈতিক চিন্তার প্রকাশ ঘটেছে ‘দারিদ্র দূরীকরণ: কিছু চিন্তাভাবনা’ গ্রন্থে। ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে কিছু সময়, কন্ঠ আজিকে রুদ্ধ আমার, মনোনয়ন বাণিজ্য এমন আটটি প্রবন্ধের সমন্বয়ে প্রকাশ করেছেন ‘সবুজ মাঠ পেরিয়ে’ গ্রন্থ। বঙ্গবন্ধুর পরিবারিক জীবনের মর্মান্তিক দিক তুলে ধরেছেন ‘আমাদের ছোট্ট রাসেল সোনা’ গ্রন্থে।

গ্রন্থের দ্বিতীয় পর্বে শেখ হাসিনার জীবনপঞ্জিতে লেখক সংক্ষিপ্তাকারে তুলে ধরেছেন শেখ হাসিনার জন্ম, শৈশব-কৈশোর, পারিবারিক জীবন, শিক্ষা জীবন, রাজনৈতিক নেতৃত্ব, লড়াই সংগ্রাম আর অর্জনের গল্প। তৃতীয় অংশে শেখ হাসিনা রচিত ও সম্পাদিত ৩৫টি বইয়ের গ্রন্থপঞ্জিগত তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে। এ অংশের বিশেষ দিক হচ্ছে এখানে শেখ হাসিনা রচিত-সম্পাদিত গ্রন’গুলোর প্রচ্ছদের চিত্র সংযোজন করা হয়েছে।

বইয়ের চতুর্থ অংশে শেখ হাসিনাকে নিয়ে লেখা ১৮২টি বইয়ে তালিকা দেওয়া রয়েছে। বইগুলোর মধ্যে রয়েছে- আলী হাবিব (সম্পা.)
‘তিমির হননের নেত্রী’, মোনায়েম সরকার রচিত ‘বঙ্গবন্ধুর রাজনীতি ও শেখ হাসিনা’, বেবী মওদুদের ‘গণতন্ত্রের মানসকন্যা শেখ হাসিনা’, মুনতাসীর মামুন রচিত ‘কেন চেয়েছি শেখ হাসিনাকে’, শাহরিয়ার কবিরের ‘বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক : বঙ্গবন্ধু থেকে শেখ হাসিনা’, সুভাষ সিংহ রায়ের ‘শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন’ ইত্যাদি।

কেন শেখ হাসিনা গ্রন্থপঞ্জির মতো বিশেষ বই? গ্রনে’র বর্ণনামূলক বিশেষ বই বর্তমান সরকার প্রধান শেখ হাসিনা সম্পর্কে জানতে আগ্রহী পাঠককে একটি সুযোগ করে দিবে। গবেষকদের জন্যও সহায়ক হিসেবে কাজে আসবে। এমন চিন্তা থেকে লেখক রেহানা পারভীন গ্রন্থটি প্রণয়ন করেছেন। বাংলাদেশের প্রকাশনা জগতে ভিন্ন ধারার এই গ্রন’পঞ্জি পাঠক সমাজে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে নতুন চিন্তার উদয় ঘটাবে।

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

দুর্যোগে শীর্ষ ১০ দেশের তালিকায় বাংলাদেশ নবম

ডেস্ক রিপোর্ট: চলতি শতকের ২০ বছরে বিশ্বের যে ১০টি দেশ সবচেয়ে বেশি ...