ছোট্ট দীপু ফিরলেও মা ফিরেছে লাশ হয়ে, বাবা এখনো নিখোঁজ

ডেস্ক রিপোর্টঃঃ  দীপুর বয়স মাত্র তিন বছর। এই বয়সে তার পুরোটা জুড়ে রয়েছে মা। মায়ের কাছেই তার যত আবদার। তাইতো বড় দুই ভাইকে ফাঁকি দিয়ে মা-বাবার সঙ্গে মহালয়া দেখতে গিয়েছিল সে। কিন্তু এই মহালয়া দেখতে যাওয়ায় কাল হলো তার জীবনে। সে বেঁচে ফিরলেও মা ফিরেছেন লাশ হয়ে। আর বাবা এখনো নিখোঁজ রয়েছেন।

রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে পঞ্চগড় জেলার বোদা উপজেলার করতোয়া নদীর আউলিয়া ঘাট থেকে বদেশ্বরী ঘাটে যাওয়ার সময় ভয়াবহ নৌকাডুবিতে ৬৯ জন মারা গেছেন। এখনো উদ্ধার অভিযান চলমান রয়েছে। আর এই নৌকাতেই মা-বাবার সঙ্গে মহালয়া দেখতে যাচ্ছিল দীপু। নৌকাডুবিতে নিজে বেঁচে ফিরলেও মা রুপালি রানী ফিরেছে লাশ হয়ে আর বাবা ভুপেন্দ্র নাথ এখনো নিখোঁজ। তাদের বাড়ি জেলার বোদা উপজেলার শালডাঙ্গা ইউনিয়নের ছত্রশিকারপুর গ্রামে।

প্রতিবেশী সনেকা রানী বলেন, একেবারে স্বামী-স্ত্রী শেষ হয়ে গেল। বাচ্চা তিনটা এতিম হয়ে গেল। তাদের দেখে অনেক কষ্ট লাগছে। বিশেষ করে ছোট দীপুটার জীবনটা অনেক কষ্টের হয়ে যাবে।

স্থানীয় ব্যবসায়ী বদরুদ্দোজা বলেন, তিন সন্তানের জন্য এটি একটি ট্র্যাজেডি। আমি প্রশাসনের কাছে অনুরোধ করব যাতে তাদের পাশে সব সময় থাকা হয়। তারা এতিম ও অসহায়। সাময়িক পাশে থেকে সহযোগিতা না করে বরং তাদের জন্য টেকসই কিছু করার জন্য আহ্বান করছি।

দীপুর দাদি লক্ষ্মী রানী বলেন, আমার একটা মাত্র ছেলে। ছেলে-বউমা নাতিসহ মহালয়া দেখতে গেছিল। নাতিটাকে লোকজন উদ্ধার করে বাঁচাইছে। বউমার লাশ পাওয়া গেছে। ছয়দিন হয়ে যাচ্ছে এখনো আমার ছেলেটাকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। লাশটা পেলেও মনে শান্তি হইতো। তিনটা নাতি নিয়ে এখন কী করব।

দীপুর বড় ভাই দীপেন বলেন, এই দুর্গোৎসব আমাদের এতিম করে দিলো। আমাদের নিঃস্ব করে দিলো। এখন কীভাবে আমরা চলবো। কারা আমাদের দেখাশুনা করবে? আমার ছোট দুই ভাইকে কীভাবে বড় করব? আমি এ শোক সইতে পারছি না। এত অল্প বয়সে মায়ের লাশ সৎকার করতে হবে ভাবিনি। এখনো আমার বাবার লাশ খুঁজে পাচ্ছি না। আমার বাবাকে যেভাবে হোক ফিরিয়ে দিন।

নৌকাডুবির ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৬৯ জনের মরদেহ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তরের বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক দীপঙ্কর রায় বলেন, আমাদের উদ্ধার অভিযান চলমান রয়েছে।  আমাদের কাছে আসা তথ্য অনুযায়ী, এখনো তিনজন নিখোঁজ রয়েছেন। একজনের লাশও উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here