ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কাউন্সিল: তৃনমূলে আলোচনায় সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী শাহ নাওয়াজ

আশরাফ উদ্দিন প্রান্ত :: আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর বিএনপির  ভ্যানগার্ড হিসাবে পরিচিত জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ষষ্ঠ কেন্দ্রীয় কাউন্সিল উপলক্ষে প্রার্থী তালিকা ইতোমধ্যেই চুড়ান্ত করা হয়েছে। ২৭ বছর পর হতে চলা কাউন্সিলে  অংশ নিতে সভাপতি পদে ৪৪ জন ও সাধারণ সম্পাদক পদে ৬৬ জন মিলিয়ে মোট ১১০ নেতা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন। তাঁদের মধ্যে ৭৬ জন মনোনয়ন জমা দেন। গত ২৭ আগস্ট প্রকাশিত চুড়ান্ত প্রার্থী তালিকা থেকে বিবাহিত হওয়া ও বিভিন্ন অভিযোগে বাদ পড়েছে পদপ্রত্যাশী ২৮ জনের নাম। বৈধপ্রার্থী প্রার্থী তালিকায় সভাপতি পদে রয়েছেন ১৫ জন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে ৩০ জন ।

সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচিতদের মধ্যে অন্যতম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলে যুগ্ম সম্পাদক শাহ নাওয়াজ তৃণমূলে ও ভোটাদের নজর কেড়েছেন। তিনি এরই মাঝে সারা দেশের প্রায় সব গুলো সাংগঠনিক জেলায় ভ্রমনের মাধ্যমে তৃণমূলের নেতাকর্মী ও ভোটারদের মধ্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। সারা দেশে সকল সাংগঠনিক জেলায় ভ্রমনের অংশ হিসাবে এরই মধ্যে সিলেট বিভাগ, ময়মনসিংহ বিভাগ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও কিশোরগঞ্জ জেলায় ভ্রমন করেন আলোচিত এই সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালইয়ের সবুজ চত্তর থেকে বেড়ে ওঠা শাহ নাওয়াজ প্রথমেই ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় যান এবং  জেলা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ জেলার অন্যান্য নেতৃবৃন্দের সাথে। এরপর তিনি একে একে হবিগঞ্জে, মৌলভীবাজার, সিলেট ও সুনামগঞ্জ জেলায় ভ্রমন করে প্রতিটি জেলার জেলা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ জেলার অন্যান্য নেতৃবৃন্দের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন এবং কুশল বিনিময় করেন। এসময় তিনি সিলেট জেলা জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন দিনার কে দেখতে কারাগারে যান। এছাড়াও তিনি সাক্ষাৎ করে সৌজন্য বিনিময় করেন সিলেট মহানগর ও শাহ জালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশববিদ্যালয় ছাত্রদলের নেতৃবৃন্দের সাথে।

তৃণমূলে জনপ্রিয় এ ছাত্রনেতা এরপর ময়মনসিংহ বিভাগের নেত্রকোনা ও  ময়মনসিংহ জেলার ছাত্রদল নেতা-কর্মী দের সাথে দেখা করে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। এসময় তিনি বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদলের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ অন্যান্য ছাত্রনেতাদের সাথে সময় কাটান।

সবশেষ তিনি কিশোরগঞ্জে যান এবং জেলা শাখার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ জেলার অন্যান্য নেতৃবৃন্দের সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

তৃণমূলে ছাত্রদলের বিভিন্ন পর্যায়ে নেতা কর্মীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, কেন্দ্রীয় কাউন্সিল উপলক্ষে কেন্দ্রীয় নেতাদের জেলায় জেলায় সাংগঠনিক সফর নেতা কর্মীদের উজ্জীবিত করছে এবং সকল পর্যায়ে নেতা কর্মীদের সংগঠিত করছে। সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী  শাহ নেওয়াজ অনেক পরিশ্রমী বলেই তার পক্ষে সারাদেশে সকল জেলায় জেলায় সফর করে নেতা কর্মীদের সময় দেওয়া সম্ভব হয়েছে। এজন্যই সে সবার কাছে জনপ্রিয়।

জেলায় জেলায় ভ্রমনের ব্যাপারে শাহ নাওয়াজ সাথে কথা বললে তিনি বলেন, এগুলো কোন ধরণের নির্বাচনী প্রচারণা ছিল না। যেহতু আমি কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে আসলে চাচ্ছি তাই তৃণমূলে প্রতিটি শাখার নেতা কর্মীদের সাথে পরিচিত হওয়া ও পরবর্তী আন্দোলন সংগ্রামের জন্য সকলকে নিয়ে সংগবদ্ধ করাই ছিল আমার জেলায় জেলায় ভ্রমনের উদ্দেশ্য।

জানা গেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালইয়ের সবুজ চত্তরে রাজনীতি করে উঠে আসলেও  সারা দেশ ব্যাপি রয়েছে শাহ নেওয়াজের গ্রহনযোগ্যতা ও জনপ্রিয়তা। তাই আগামী ১৪ সেপ্টেম্বরের কাউন্সিলে সাধারণ সম্পাদক পদে তিনিই এগিয়ে থাকবেন।

 

 

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কাউন্সিল: বৃহত্তর নোয়াখালীর আলোচনায় যারা

মোঃ আব্দুল্লাহ (বাশার) :: আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর হতে যাচ্ছে বিএনপির অন্যতম সহযোগী ...