ডেস্ক রিপোর্ট::  ‘চাকরি জীবনে এই প্রথম কোনো নতুন রুটে ট্রেন পরিচালনা করছি, এ অনুভূতি বলে বোঝানোর না। আনন্দিত আর উৎফুল্ল লাগছে খুব। নতুন রুটে প্রথম দিন যাত্রী নিয়ে যাচ্ছি। আমার চাকরি জীবনে ইতিহাসের সাক্ষী হলাম।’ এভাবে অনুভূতির কথা বলছিলেন বেনাপোল থেকে মোংলা রেলপথে যাত্রা শুরু করা বেতনা এক্সপ্রেস ট্রেনের চালক আজগর আলী।

তিনি আরও বলেন, আমরা চাকরি জীবন বহু বছর। এর মাঝে কোনোদিন এমন কপাল হয়নি। আজ ভাগ্যে লেখা ছিল বলে ইতিহাসে সাক্ষী হতে পারছি। যাত্রীরা যেমন আনন্দিত, তেমন আমাদেরও যারা রেল পরিচালক তাদের ভেতেরও আনন্দ উচ্ছ্বাস হচ্ছে। সকালে ট্রেনটি খুলনা থেকে পরিচালনা করে বেনাপোল এসেছি। বেনাপোল থেকে মোংলা পর্যন্ত যাব সেখান থেকে আবার বেনাপোল ফিরব।

শনিবার (১ জুন) যশোরের বেনাপোল জংশন থেকে প্রথম দিনের মতো মোংলার উদ্দেশ্যে ৬০০ এর অধিক যাত্রী নিয়ে যাত্রা শুরু করেন ট্রেনটি। উদ্বোধনের সাত মাস পর আজ থেকে চালু হলো বেনাপোল-মোংলা রুটে ট্রেন চলাচল। শনিবার সকালে ট্রেনটি খুলনা থেকে ছেড়ে ৯টা ২৫ মিনিটে বেনাপোল জংশনে এসে পৌঁছায়। এরপর সেখান থেকে সকাল ১০টায় যাত্রী ভর্তি করে মোংলার উদ্দেশ্যে রওনা করে ট্রেনটি। খুলনার ফুলতলা পর্যন্ত ট্রেনটি বেতনা এক্সপ্রেস নামে যাওয়ার পর সেখান থেকে মোংলা কমিউটার নামে চলবে ট্রেনটি। ১৩৮ কিলোমিটার এ রুটে মোট ৮টি স্টেশনে দাঁড়াবে। খুলনার ফুলতলা পর্যন্ত এর সর্বোচ্চ গতি থাকবে ঘণ্টায় ৫০ কিলোমিটার। এরপর ফুলতলা থেকে মোংলা নতুন রেলপথে এ ট্রেনের সর্বোচ্চ গতি থাকবে ঘণ্টায় ৭০ থেকে ৮০ কিলোমিটার।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here