ডেস্ক রিপোর্ট :: চট্টগ্রামের পতেঙ্গা বোট ক্লাব থেকে তৃতীয় দফার দ্বিতীয় দিনে ভাসানচরে পৌঁছেছে আরো এক হাজার ৪৬৪ রোহিঙ্গা শরণার্থী। আজ শনিবার দুপুরে ভাসানচরে পৌঁছায় শরণার্থীরা।

এর আগে আজ শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে চট্টগ্রামের পতেঙ্গা বোট ক্লাব সংলগ্ন জেটি থেকে নৌবাহিনীর চারটি জেটি জাহাজে করে ভাসানচরের উদ্দেশে রওনা হয় তারা। চট্টগ্রামের নৌবাহিনীর জনসংযোগ বিভাগ থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। বার্তা সংস্থা ইউএনবি এ খবর জানিয়েছে।

এর আগে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় ওই রোহিঙ্গাদের কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে চট্টগ্রামে ট্রানজিট পয়েন্টে নেওয়া হয়।

নৌবাহিনীর জনসংযোগ বিভাগ জানায়, শুক্রবার বিকেলে উখিয়া থেকে বাসে করে এক হাজার ৪৬৪ জন রোহিঙ্গাকে পতেঙ্গার শাহীন স্কুল অ‌্যান্ড কলেজ মাঠে স্থাপিত নৌবাহিনীর অস্থায়ী ট্রানজিট ক্যাম্পে নিয়ে আসা হয়। সেখানে তাদের রাতের খাবার এবং প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। এরপর সকালে ভাসানচরের উদ্দেশে তাদের জাহাজে তোলা হয়।

নৌবাহিনীর কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, স্বেচ্ছায় ভাসানচর যেতে আগ্রহী এমন রোহিঙ্গা সদস্যদের তালিকা করে তাদের ভাসানচরে পৌঁছানোর উদ্যোগ গ্রহণ করে কক্সবাজারের অতিরিক্ত শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কর্তৃপক্ষ। তারই অংশ হিসেবে আজ তৃতীয় দফার দ্বিতীয় দিনে আরো এক হাজার ৪৬৪ জন রোহিঙ্গাকে নৌবাহিনীর জাহাজে করে ভাসানচরে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

মূলত ভাসানচরে অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের মাধ্যমে উন্নত সুযোগ-সুবিধার কথা জেনে এই রোহিঙ্গা সদস্যরা সেখানে যেতে আগ্রহ প্রকাশ করে। ভাসানচরের রোহিঙ্গাদের জন্য উন্নত বসবাস, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, ক্রীড়া, বিনোদন, হাঁস-মুরগি পালনসহ নানা সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ সরকার।

এর আগে গত ৪ ডিসেম্বর প্রথম ধাপে এক হাজার ৬৪২ এবং দ্বিতীয় ধাপে ২৯ ডিসেম্বর এক হাজার ৮০৪ জন রোহিঙ্গা সদস্য স্বেচ্ছায় ভাসানচরে গেছে। গতকাল শুক্রবার তৃতীয় দফার প্রথম দিনে গেছে আরো এক হাজার ৭৭৮ জন।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here