ডেস্ক রিপোর্ট:: ঘূর্ণিঝড় রেমাল মোকাবিলায় বরগুনায় সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। শনিবার (২৫ মে) দুপুরের দিকে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা শেষে জেলা প্রশাসক রফিকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বরগুনা জেলা প্রশাসনের তথ্য সূত্রে জানা যায়, ঘূর্ণিঝড় রেমাল মোকাবিলায় বরগুনায় প্রায় ৪ লাখ মানুষের জন্য ৬৭৩টি আশ্রয় কেন্দ্র ৩টি মুজিব কেল্লা প্রস্তুত করা হয়েছে। এছাড়া ৪২২ মেট্রিক টন খাদ্যশস্য, নগদ অর্থ ১৭ লাখ টাকা এবং শিশু খাদ্যের জন্য ১০ লাখ এবং গোখাদ্যের জন্য ১০ লাখ টাকা বরাদ্দ রয়েছে। দুর্যোগ পূর্ববর্তী ও পরবর্তী সময়ে প্রশাসনকে সহযোগিতা করতে বিভিন্ন সংগঠনের ৯ হাজার ৬১৫ জন স্বেচ্ছাসেবী কাজ করবেন। এছাড়া ৪২টি মেডিকেল টিমসহ যেকোনো তথ্য পেতে ১০টি কন্ট্রোল রুম চালু করা হয়েছে। এছাড়া ৩০০ প্যাকেট শুকনো খাবার ও ১ লাখ ৫৪ হাজার পিস পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেটের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

অপরদিকে বরগুনা পানি উন্নয়ন বোর্ডের তথ্য অনুযায়ী বরগুনার বিভিন্ন এলাকায় ১ কিলোমিটার ঝুঁকিপূর্ণ বেড়িবাঁধ রয়েছে। এসব এলাকার ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে তাৎক্ষণিকভাবে বেড়িবাঁধ মেরামত করতে ৮০০ জিও ব্যাগ প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে বরগুনার জেলা প্রশাসক রফিকুল ইসলাম বলেন, ঘূর্ণিঝড় রেমাল বরগুনায় আঘাত হানতে পারে। সাধারণ মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে রাখতে আমরা সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। আশা করছি ঘূর্ণিঝড় রেমাল বরগুনায় আঘাত হানলে কম ক্ষয়ক্ষতির মধ্য দিয়ে আমরা তা মোকাবিলা করতে সক্ষম হব।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here