সঞ্জিব দাস, গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি ::
গলাচিপার কয়েকটি পয়েন্টে বেড়িবাঁধ ভেঙে জোয়ারের পানি ঢুকে প্লাবিত হয়েছে। এতে করে হাজার হাজার পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছে।উপজেলার চরকাজল ইউনিয়নের বড় চরকাজল এলাকার ২ নম্বর ওয়ার্ডের শান্ত মুদির বাড়ির পাশ দিয়ে ২০/২৫ ফুট ও একই এলাকার বেড়িবাঁধের তিনটি পয়েন্টে ভেঙে জোয়ারের পানি প্রবেশ করছে। এতে করে ২০ হাজার পরিবার পানিবন্দী। তাদেরকে আশ্রয় কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে ওই এলাকার দফাদার জানিয়েছেন।
১ বছর আগে গোলখালী ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডে চর সুহরী গ্রামের হাশেম খার স্ত্রী সূর্যভানু মারা গেলে বেড়িবাঁধে উঁচু স্থানে দাফন দেয়া হয়। জোয়ারের পানির চাপে মাটি সরে গিয়ে লাশটি ভেসে উঠে। স্থানীয়রা লাশটি উদ্ধার করে পুনরায় দাফন সম্পন্ন করেছে।এদিকে আমখোলা ইউনিয়নের সিকি বাউরিয়া গ্রামে বেড়িবাঁধের ওপর দিয়ে জোয়ারের পানি প্রবেশ করছে। এতে আশ্রয়ন প্রকল্পের বাড়িঘর তলিয়ে গেছে।
ডাকুয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাবু বিশ্বজিৎ রায় বলেন, জোয়ারের পানি বেরি বাঁধের উপর দিয়ে উঠে ডাকুয়া ইউনিয়নে কৃষকের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।
চরকাজল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান জানান, জোয়ারের পানি বৃদ্ধি পেলে এবং রাতে ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানলে জানমালের ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে। তবে মানুষজনকে আশ্রয় কেন্দ্রে নিয়ে আনার জন্য স্বেচ্ছাসেবকরা কাজ করছে।
Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here