লেখক:- মো: সোয়েব মেজবাহউদ্দিন

হাতের মেহেদির রং মুচতেই না মুচতেই এক প্রতিবাদী মেয়ে যৌতুক লোভী বরকে তালাক দিয়ে প্রমান করল যৌতুক একটি সামাজিক রোগ। অশেষ ধন্যবাদ ফারজানা তোমাকে। প্রতিনিয়ত যৌতুক এর কারনে পাষন্ড স্বামী এবং তার পরিবার নির্মমভাবে পিটিয়ে, অত্যাচার করে এবং জানোয়ারের মত পুড়িয়ে স্ত্রীকে হত্যা করে নারীদের। কিন’ু দু:খজনক হলো যে, নির্যাতিতরা মামলা করলে ও বেশীরভাগ সময় সুবিচার ও পায় না। অপরাধীরা আইনের ফাঁক দিয়ে বেড়িয়ে যায়। ফারজানার মত করে যদি প্রতিটি মেয়ে যৌতুক এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে যৌতুক বিষয়টিকে বাংলাদেশ থেকে চিরদিনের মত বিদায় করে দিতে পারত।

আমাদের দেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকেরা তাদের  মেয়েদের বিয়ে দেয়ার সময় মেয়ের বাপের বাড়ীর পাওনা বাবদ পন হিসাবে স্বর্ন অলংকার এবং টাকা দিয়ে থাকে যাহাতে পরবর্তিতে মেয়েরা আর কোন দাবী করতে না পারে। তাদের এই পন প্রথাতে আমাদের মুসলিম সমাজে যৌতুকের প্রচলিত হয়েছে। আজ তা আমাদের মুসলিম সমাজে একটি ব্যাধি হয়ে দাড়িয়েছে। কোন পুরুষ কি ভাবেন আজ আপনি যৌতুক নিচ্ছেন, আগামীতে আপনার যদি মেয়ে হয় আমি নিশ্চিত আপনার মেয়েকে বিয়ে দেয়ার সময় আপনার মেয়ের হবু জামাতা অবশ্যই অবশ্যই যৌতুক দাবী করবে এবং যৌতুক ছাড়া সে বিয়ে করবে না। কারন যেমন কর্ম তেমন ফল এই প্রবাদ বাক্যের মত হবে আপনার সেই দিন। আজ আমরা অনেকে ফারজানার প্রসংশা করছি তাবে বাহবা দিচ্ছি, কিন’ু কেউ কি তার পাশে গিয়ে দাড়িঁয়েছি ? এখন আমাদেও উচিত ফারজানার পাশে গিয়ে দাড়ানো। তার জন্য যৌতুক চায়না এমন একজন যোগ্য পাত্র দেখে বিয়ে দেয়া এবং প্রমান করে দেয়া যে যৌতুক ছাড়া ফারজানার বিয়ে হয়েছে।

আমাদের সমাজে যৌতুক তাহারাই চায় যাহারা বিয়ে করে সংসার চালাতে অক্ষম। যদি সংসার চালানোর মত যোগ্যতা না থাকে তাহলে কেন বিয়ে করা এবং কনের বাবার কাছ থেকে ভিক্ষা চাওয়া। বিয়ে করার যোগ্য হয়েই কি বিয়ে করা যায় না ? যৌতুক চেয়ে তালাত প্রাপ্ত হয়ে একজন স্কুলের প্রধান শিক্ষক শওকত আলী খান হীরন কিভাবে স্কুলের সবার সামনে মুথ দেখাবেন। পারবেন কি মাথা উচু করে শিক্ষা চলাফেরা করতে। পারবেন কেননা এরা সভ্য সমাজের বাহিরে। এদের কোন লাজ লজ্ঝা নেই। একজন সরকারী চাকুরী জীবি এবং একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রদান হয়ে যৌতুক দাবী করার সময় বিবেকে কি একবার বাধঁল না। একজন শিক্ষক হয়ে যৌতুক নিয়ে বিয়ে করছি, এ যে বর অন্যায়। শওকত আলী খান হীরনকে দেখে যদি কাহারো যৌতুক চাওয়ার সময় চিন-া করার প্রয়োজন হয়।

 [email protected]

 

 

 

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here