অপহরণের ২১ দিন পর গোপালগঞ্জ থেকে অপহৃত কিশোরী উদ্ধার ও তিন অপহরণকারীকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

গোয়েন্দা পুলিশ ও মামলার বিবরণে জানা গেছে, গত ১৩ নভেম্বর সাপিয়া খানম (১৩) তার নিজ বাড়ি মুকসুদপুর থেকে নিখোজ হয়। নিখোজ হওয়ার পর সাপিয়ার মা হাওয়া বিবি বাদী হয়ে মুকসুদপুর থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। অপহরণকারীরা ২/৩ দিন পর একটি অজ্ঞাত মোবাইল ফোন থেকে  সাপিয়াদের বাড়িতে ফোনে বলে, মুক্তিপন ১০ হাজার টাকা দিলে আপনার মেয়েকে ছেড়ে দেব। তাদের কথা মত ৬ ডিসেম্বর মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭ টায় সাপিয়ার পরিবারের পড়্গ থেকে গোপালগঞ্জের পুলিশ লাইনের সামনে (ঢাকা-খুলনা মহাড়কে) টাকা নিয়ে আসে। এসময় গোয়েন্দাপুলিশের এসআই শাহাদৎ হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঐ স্থান থেকে লিচু মিয়া (২২) ও রাজিব হোসেন (১৮) কে গ্রেফতার করে। পুলিশের জিজ্ঞাসাবে তারা জানায়, সাপিয়াকে সদর উপজেলার নিজড়া দড়্গিণপাড়া গ্রামের হিরম্ন শেখের ছেলে সাদ্দাম শেখ অপহরণ করে চাপাইল ঘাটের পাশে মানিকদাহ গ্রামের একটি ভাড়া বাড়িতে রেখেছে। গ্রেফতাকৃতদের তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ ঐ বাড়িতে অভিযান চালিয়ে অপহরণকারী সাদ্দাম (২৩) ও বাড়ির মালিক নাছিমা বেগম (৫৫) কে গ্রেফতার ও অপহৃত সাপিয়াকে উদ্ধার করে। অপর দুই গ্রেফতাকৃতের বাড়ি পাশ্ববর্তী নড়াইল জেলার নড়াগাতি থানায়।

ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডট কম/এম এম হাসানুজ্জামান/গোপালগঞ্জ

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here