গৃহকর্মী ও সন্তানের সুরক্ষা

সংযুক্তা সাহা :: কিছুদিন আগে রাজধানীর শাহজাহানপুরে এলাকায় একটি অমানবিক ঘটনা দেখা যায়। বিষয়টি মিডিয়ার বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে পড়ে। একটি শিশুকে অমানবিকভাবে সেই বাসার গৃহকর্মী নির্যাতন করছে বিষয়টি সত্যিই অমানবিক ও লোমহর্ষক। যেহেতু বাবা মা দুজনেই চাকরি করেন এরকম অনেক ছোট্ট শিশুকে তারা বাসায় কাজের মহিলার কাছে রেখে যান। বাংলাদেশের বহু পরিবার বর্তমানে এভাবে তাদের সংসার জীবন চালিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়া কি উপায় আছে? এই নিউক্লিয়ার পরিবারে আজকের দিনে এটাই স্বাভাবিক।

এইখানে এই মুহূর্তে আমি ধরে নিচ্ছি এই ঘটনাটির সম্পূর্ণ দোষ গৃহকর্মীর। এছাড়া এরকম যত গুলো ঘটনা আছে তার জন্যও গৃহকর্মী দায়ী। এবার আমি এই ঘটনাগুলোকে একবার একটু অন্যভাবে চিন্তা করতে চাই। আমাদের সন্তানের ভালোর জন্য আর একবার ভেবে নিতে চাই। কিছু বিষয় এখানে খুব গুরুত্বপূর্ণ।

প্রথমত; সন্তান লালন পালন করা ধৈর্যশীল এবং যত্নসহ একটা বিষয়। এর জন্য যথেষ্ট ভালোবাসা, যত্ন থাকতে হয়। আমরা কেনো ধরে নেই কাজের লোক বা গৃহকর্মী সেই মায়া-মমতা ও যত্নসহ একটি বাচ্চাকে লালন পালন করবে?

দ্বিতীয়ত; একজন খুব সাধারণ গৃহকর্মী কখনোই একটি সন্তানের পরিপূর্ণ যত্ন নিতে পারে বলে আমি মনে করি না। সংসারের আরো দশটা কাজ করে একজন গৃহকর্মী যখন একটি শিশুকে যত্ন নিতে যাবে তখন সেটা কখনোই কোয়ালিটিফুল হবে না। আমাদের সাধারণত সব পরিবারেই গৃহকর্মীরা বিভিন্ন ধরনের কাজের মধ্যে সেই গৃহের শিশুটিকে দেখাশোনা করে। এতে তাদেরও হতাশা এবং অবসাদ গ্রাস করে। তাদেরও বিরক্ত এবং রাগ খুব অল্পতেই প্রকাশ পেতে পারে। সন্তান লালন পালন করা আপেক্ষিক ভাবে পরিশ্রমের কাজ আশা করি এটা কেও অস্বীকার করবেন না।

তৃতীয়ত শিশুর যত্ন নেওয়া খুবই সেনসিটিভ একটি বিষয়। তার জন্য দরকার পূর্ণাঙ্গ প্রস্তুতি, মানসিকতা ও দায়িত্বশীলতা। আপনি যে গৃহকর্মী কে নির্ধারণ করেছেন তার মধ্যে কতটুকু প্রস্তুতি, মানসিকতা ও দায়িত্বশীলতা আছে তা কি আপনি জানেন? অথবা জানতে চেষ্টা করছেন? না কি আপনি একটি ভালো অংকের মাসিক বেতন দিচ্ছেন দেখে ধরে নিয়েছেন এই গুন গুলো এমনেই গৃহকর্মীর থাকবে! অত্যন্ত দুঃখের সাথে জানাচ্ছি, থাকবে না। এবং এটি আশা করাও কিন্তু আপনার জন্য এক রকম অন্যায়ের।

একজন মা অথবা তার পরিবার যখন একজন শিশুর দেখাশোনা করে বা তার যত্ন নেয়; সেটা যে ধরনের ভালোবাসা অথবা দায়িত্ব দিয়ে হবে একজন গৃহকর্মীর নাও থাকতে পারে। স্বামী স্ত্রীর পক্ষে এদের সব ধরনের মনিটরিং করাও সম্ভব নয়, সংসার চাকরির মাঝে হয়ে ওঠে না। তাই নিউক্লিয়ার পরিবার গুলো তাদের সন্তানদের দেখভালের জন্যে গৃহকর্মীদের কাছে এক কথায় জিম্মি। গৃহকর্মীদের এই বিষয়ে ঘরে ট্রেনিং অথবা প্রস্তুত করালেও যে সবসময় তা ঠিক ঠাক হয় তাও না। কিন্তু কেনো এমন হয় ভেবেছেন? শুধু কি গৃহকর্মীদেরই দোষ, ওদেরই সমস্যা! আমাদের কি কিছুই করার নেই?

আমরা যখন একজন গৃহকর্মী নিয়োগ দেই তখন বেশির ভাগ পরিবারই ঘরের সকল কাজের পাশাপাশি বলে “আর বাবুকেও দেখে রাখবা”। মানে আমি যখন কর্মক্ষেত্রে থাকবো তখন সব কাজের সাথে আমার সন্তানকেও দেখে রাখবা। বিষয়টি কখনোই এতো সহজ হয় না। কিন্তু আমরা প্রথমেই গৃহকর্মীদের কাছে বিষয়টিকে সহজ করে ফেলি। আমি অনেক কম পরিবারে দেখেছি বাবু দেখার জন্য শুধু আলাদা লোক রেখেছে। আবার ঘরের সব কাজের সাথে বাবু দেখাশোনার জন্য আলাদা করে টাকা দিচ্ছে এটাও সব সময় দেখা যায় না। সব সময় আর্থিক ভাবে হয়ে ওঠে না এটাও সত্যি।

আপনার সংসারের কাজ করার সময় গৃহকর্মীদের নিয়ে অনেক অভিযোগ থাকে, থালাবাসন ভালো পরিষ্কার হয় নাই, রান্না ভালো হচ্ছে না, আরও অন্যান্য। ঠিক তেমনি বাবুর দেখাশোনাও ভালো হচ্ছে না, আমরা কিন্তু নিজেরাই বিষয়টিকে এই পর্যায়ে নিয়ে আসছি। একজন শিশুর পরিচর্যা করা সম্পুর্ন ভিন্ন ও আলাদা একটি বিষয় এটি থালাবাসন পরিষ্কার অথবা অন্য আর দশটি কাজের মতো নয়। এর জন্য দরকার সুষ্ঠ মনিটরিং, প্রয়োজনীয় ট্রেনিং আর এটি একটি পেইড জব এই বিষয়ে অবগত করা। প্রয়োজনে আপনি নিজে সংসারের কাজ করুন শুধু আপনার অবর্তমানে শিশুটিকে দেখাশোনা করার আলাদা লোক নিন। বাসায় কোনো আত্মীয় বা বাবা মা, শশুড় শাশুড়ী এদের সাহায্য নিন। আপনার গৃহকর্মী কে আপনার পরিবারের একজন করে তুলুন, তার সমস্যা গুলো শুনুন, এমন কি তিনি যখন আপনার সন্তানকে নিয়ে কোনো সমস্যার কথা বলে বা অভিযোগ করে সেটা নিজে সমাধান করুন।

মনে রাখবেন আপনি তার সমস্যা গুলো সমাধান না করলে সে নিজে থাকে তা সমাধান করার চেষ্টা করবে। আর তা কখনোই ঠিক ঠাক মতো হবে না। অন্যান্য কাজের সাথে একজন শিশু দেখাশোনার কাজ দিলে তাকে আলাদা তার জন্য পেমেন্ট করবেন সেটা বুঝিয়ে বলুন। দেশের শিশু নির্যাতন আইন সম্পর্কে অবগত করুন। আপনি চাইলে আপনার সন্তানের সুরক্ষা অনেকটাই নিশ্চিত করতে পারবেন। আপনাকে তার জন্য একটু আলাদা ভাবে আলাদা দৃষ্টিতে এগোতে হবে।

 

 

 

লেখক: সিনিয়র কপি রাইটার, থ্রি হুইলারস লিমিটেড।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

অর্ণব আশিক’র কবিতা ‘ঝড়’

    ঝড় -অর্ণব আশি কিছু রোদ ছুঁয়ে যায় বৃষ্টির পর কিছু ...