মহানন্দ অধিকারী মিন্টু, পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ::

একই ইউনিটে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় দু’জন হয়েছেন প্রথম। দু’জনেরই পছন্দ আবার শাহজালালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি)। একজন খুলনার পাইকগাছার সুমাইয়া বিনতে মাসুদ ও অপরজন সুমাইয়া রহমান। আশ্চর্যের হলেও নারী এ দু’শিক্ষার্থীর উভয়েরই দারুণ মিল।

৪ আগস্ট বিকেলে ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষে শিক্ষার্থী ভর্তির গুচ্ছভুক্ত ২২টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে এ ফল প্রকাশিত হয়। ফলাফলে ‘এ’ ইউনিটে সম্মিলিতভাবে প্রথম হন সুমাইয়া নামের শিক্ষার্থী। ভর্তি পরীক্ষায় সর্বোচ্চ নম্বর ৮৭.৫০ পেয়েছেন তাঁরা। খুলনার পাইকগাছার বিষ্ণুপুর গ্রামের মো. মাসুদুর রহমান’র মেয়ে ও পাইকগাছা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মরহুম আনওয়ারুল হক’র নাতনি সুমাইয়া বিনতে মাসুদ পাইকগাছা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক ও খুলনার সরকারি মজিদ মেমোরিয়াল সিটি কলেজ থেকে এইচএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হন।

২২ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে তাঁর পছন্দের সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। ফার্মেসি তাঁর পছন্দের বিষয়। প্রথম হওয়ার অনুভূতি প্রকাশ করে সুমাইয়া বিনতে মাসুদ আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করে এ প্রতিবেদককে বলেন, তার ভালো লাগছে যে তিনি প্রথম হয়েছেন। খুবই খুশি লাগছে। আমার বাবা-মা অনেক খুশি হয়েছেন।

তিনি বলেন, আমার স্বপ্ন ছিল ডাক্তার হওয়ার। সেই স্বপ্ন পূরণে দ্বিতীয়বার মেডিকেল কলেজ ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। অপরজন সুমাইয়া রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়েছিলেন। তিনি এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়ে ভর্তি হন হলিক্রস কলেজে। সেখান থেকে এইচএসসিতে জিপিএ-৫ অর্জন করেন। তাঁর স্বপ্ন জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়ালেখা করে গবেষক হওয়া। গুচ্ছের ২২টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে তাঁর পছন্দেরও সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

প্রথম হওয়ার অনুভূতি প্রকাশ করে সুমাইয়া রহমান বলেন, পরীক্ষায় প্রথম হওয়ার অনুভূতি আসলেই অসাধারন। যা বলে বোঝানোটাই কষ্টসাধ্য। তিনি এ পরীক্ষার ফলাফল জানতে পারেন তার এক বান্ধবীর মাধ্যমে। সে মূহুর্তটা আসলে অবিশ্বাস্যকর ছিল বলেও জানান তিনি।

সর্বপ্রথম আল্লাহর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে সুমাইয়া রহমান বলেন, তিনি পরীক্ষাটা সঠিকভাবে সম্পন্ন করতে পেরেছেন। ফলাফল পেয়ে যতটা খুশি হয়েছেন, মা-বাবার আনন্দে তার অধিক খুশি হয়েছেন। তাঁর শিক্ষক-শিক্ষিকাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি। সবশেষে সকলের মঙ্গল কামনা করে সাফল্যের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে উভয়ই নিজেদের জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া প্রার্থনা করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here