ব্রেকিং নিউজ

গলাচিপায় হোটেল কক্ষে আটকে মাদ্রাসা ছাত্রী গণধর্ষণ: পাঁচ ধর্ষক আটক

স্টাফ রিপোর্টার :: পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলা সদরে এক মাদ্রাসা ছাত্রী গণধর্ষিত হয়েছে। শহরের পুরাতন লঞ্চঘাটের হোটেল সৈকত মহলের সাত নম্বর কক্ষে আটকে রেখে বুধবার রাতে এ গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থলে অভিযান চালিয়ে পাঁচ ধর্ষককে আটক এবং ধর্ষিতকে উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার গলাচিপা থানায় ধর্ষিত যুবতী বাদি হয়ে ৬ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে।

আটক ধর্ষকরা হচ্ছে, গলাচিপার ছোনখোলা গ্রামের মৃত ইউনুস সরদারের ছেলে মোঃ শহিদুল সরদার (২৪), চরবিশ্বাস গ্রামের নূর ইসলাম গাজীর ছেলে মোঃ বশির গাজী (৩২), একই গ্রামের মৃত আদম আলী শিকদারের ছেলে মোঃ স্বপন শিকদার (৪০), চরআগস্তি গ্রামের যতীন হাওলাদারের ছেলে জীতেন হাওলাদার (৩৫) ও রাঙ্গাবালী উপজেলার চরবেস্টিন গ্রামের মৃত হাতেম আলী ডাক্তারের ছেলে খোকন ডাক্তার (৪০)।

ঘটনার সঙ্গে জড়িত ও মামলার অন্যতম আসামী ওই হোটেলের ম্যানেজার উত্তর চরবিশ্বাস গ্রামের রুস্তম হাওলাদারের ছেলে ফারুক হাওলাদার পলাতক রয়েছে।

মামলার বিবরণ ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গলাচিপার গজালিয়া গ্রাম থেকে ওই মাদ্রাসা ছাত্রী (১৯) তার বড় বোনকে চিকিৎসক দেখানোর জন্য বুধবার বিকেলে গলাচিপা উপজেলা শহরে আসে। বরগুনার আমতলী উপজেলার সোনাখালী গ্রাম থেকে তার বড় বোনের গলাচিপা আসার কথা ছিল। সে সন্ধ্যা পর্যন্ত বড় বোনের জন্য ফেরিঘাট এলাকায় অপেক্ষা করে। কিন্তু বড় বোন না আসায় এক পর্যায়ে সে সোনাখালী রওয়ানা হয়। এরই মধ্যে রাত নেমে আসে। মামলার এক নম্বর আসামী শহিদুল সরদার পথের দূরত্বের ভয় দেখিয়ে যুবতীকে ফেরিঘাট থেকে ফুসলিয়ে কাছের নজরুল ইসলামের মালিকানাধীন হোটেল সৈকত মহলের সাত নম্বর কক্ষে এনে ওঠায়। রাত সাড়ে আটটার দিকে শহিদুল সরদার সঙ্গীদের নিয়ে এসে হোটেল ম্যানেজারের সহায়তায় যুবতীকে গণধর্ষণ করে।

গভীর রাতে পুলিশের একটি টহল দলের কাছে গোপন সূত্রে এ গণধর্ষণের খবর পৌছায়। পুলিশ তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে হোটেল কক্ষ থেকে যুবতীর দেখিয়ে দেয়ার ভিত্তিতে পাঁচ ধর্ষককে আটক উদ্ধার করে।

গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মোঃ হুমায়ুন কবীর জানান, হোটেল থেকে উদ্ধার করার পর ওই যুবতী পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছে, রাত সাড়ে বারোটা পর্যন্ত তাকে জোর করে গণধর্ষণ করা হয়েছে। ধর্ষকরাও প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। ধর্ষিতকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আটকদের আদালতের মাধ্যমে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা নিহতের ঘটনায় সাত আসামির আত্মসমর্পণ: রিমান্ড মঞ্জুর

স্টাফ রিপোর্টার :: চেকপোস্টে গুলিতে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান নিহত ...