জহিরুল ইসলাম শিবলু, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি :: লক্ষ্মীপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ৯ম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ উঠেছে শিক্ষক লিটন চন্দ্র সরকারের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক লিটন চন্দ্র সরকারকে সাময়িক বরখাস্ত করে বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রতিষ্ঠানের উপাধ্যক্ষ মো. মির্জা ফিরোজ হাসানকে প্রধানকে করে দুই সদস্যের একটি তদন্ত কমিট গঠন করা হয়েছে। কমিটির অন্য সদস্য হলেন, প্রতিষ্ঠানের চীফ ইনস্ট্রাক্টর ইলেকট্রনিক্স মো. আরিফুর রহমান। উক্ত কমিটি আগামী ১০ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার কথা রয়েছে। এর আগে বুধবার দুপুরে এ ঘটনার বিচার চেয়ে অধ্যক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন ওই ছাত্রীর অভিভাবক।

ওই ছাত্রীর স্বজনরা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে ওই ছাত্রীকে বাসায় প্রাইভেট পড়াতেন শিক্ষক লিটন চন্দ্র সরকার। খাতায় বেশি নাম্বার দেয়ার কথা বলে ছাত্রীকে বিভিন্ন সময় যৌন নিপীড়ন করে আসছিল শিক্ষক লিটন চন্দ্র সরকার। এসব বিষয় পরিবারকে জানায় ছাত্রী। পরে এ ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত করে অভিযুক্ত শিক্ষক লিটন চন্দ্র সরকারের বিচার চেয়ে লিখিত অভিযোগ করেন ছাত্রীর অভিভাবক। এদিকে ঘটনার সুষ্ট বিচার চেয়েছেন প্রতিষ্ঠানের অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা।

তবে প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী মাহাবুবুর রশিদ তালুকদার অভিযুক্ত শিক্ষককে বাঁচাতে বিষয়টি ধামা-চাপা দেয়ার চেষ্টা ও অভিযুক্তকে আশ্রয়-প্রশয় দিচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

অভিযুক্ত শিক্ষক লিটন চন্দ্র সরকার সাময়িক বরখাস্তের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, একটি পক্ষ ওই ছাত্রীকে দিয়ে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। তিনি ষড়যন্ত্রের শিকার।

প্রতিষ্ঠানের উপাধ্যক্ষ মির্জা ফিরোজ হাসান অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে শুনেছি। তবে এখনো অফিসিয়াল আদেশ পাইনি। আদেশ পেলে কাজ শুরু করা হবে।

প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী মাহাবুবুর রশিদ তালুকদার জানান, ঘটনা তদন্তে উপাধ্যক্ষ মির্জা ফিরোজ হাসান তালুকদারকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিট গঠন করা হয়েছে। উক্ত কমিটি আগামী ১০ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দেয়ার পর ব্যবস’া নেয়া হবে। অভিযুক্ত শিক্ষককে ছুটিতে পাঠানো হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here