ডেস্ক নিউজ :: সাশ্রয়ী খরচে নিরাপদ ও আরামদায়ক ভ্রমণ নিশ্চিতে কাজ করছে ডিজিটাল রাইড। কিন্তু, করোনা মহামারির এ লকডাউনে সার্ভিস বন্ধ থাকায় বেকার হয়ে পড়েছে রাইড শেয়ারিং সার্ভিসের সঙ্গে যুক্ত বিশাল জনগোষ্ঠী। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে রাইডশেয়ার খাতের উদ্যোকতারাও। করোনা নিষেধাজ্ঞা তাদের বিপাকে ফেলে দিয়েছে। জীবিকার তাগিদে অনেক চালক ঢাকায় থাকেন রাইড শেয়ারিং এর জন্য।

প্রতিদিন তাদের আয় দেড় থেকে দুই হাজার টাকা। ঘরভাড়া দিয়ে ভালোই চলতো তাদের। নিষেধাজ্ঞায় বেকার হয়ে অনেক রাইডার পরিবার নিয়ে পড়েছেন বিপাকে। তাঁদের পাশে দাঁড়িয়েছেন নতুন রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠানের উদ্যোক্তা ও ডিজিটাল রাইড এর সিইও মি. ফখরুল ইসলাম চৌধুরী। রমজানের বিভিন্ন নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্যদ্রব্য সহায়তা এবং কোম্পানীর নিজস্ব লোগো সম্বলিত মাক্স বিতরন করেন তিনি। রোববার মিরপুর-১০ নাম্বার সংলগ্ন, সেনপাড়া ঈদগা মাঠে স্বাস্থ্য বিধি মেনে খাদ্য সামগ্রি বিতরণ করা হয়।

এসময়, ডিজিটাল রাইডের ব্র্যান্ড এম্বাসেডর নতুন প্রজন্মের জনপ্রিয় অভিনেতা ব্যারিস্টার সিয়াম আহেমদ অনলাইন যুক্ত হন। ডিজিটাল রাইডের এ উদ্যোকে তিনি স্বাগত জানান। কথা বলেন ফ্রিল্যান্সার রাইড শেয়ারকারীদের সঙ্গে। করনার সতর্কতার কারণে সরাসরি অনু্ষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে না পারার জন্য দু:খ প্রকাশ করেন। সিয়াম আহেমদ ডিজিটাল রাইডের সেবা গ্রহণ করার জন্য যাত্রী ও চালকদের প্রতি আহ্বান জানান। এতে, লাভবান হবেন বলেন তিনি।

অনুষ্ঠানে দুইশতাধিক কার, মোটরবাইক ও অ্যাম্বুলেন্স চালকের মাঝে এ সামগ্রী দেওয়া হয়। এভাবে তাদের পাশে দাড়ানোয় খুশি ফ্রিল্যান্সার চালকরা। জনান, ডিজিটাল রাইড ব্যবহার করে তারা বেশি লাভবান হচ্ছেন। ভবিষ্যতে এমন সহযোগিতা করবে ডিজিটাল রাইড আশা তাদের।

খাদ্য সামগ্রি বিতরণ করে ডিজিটাল রাইডের কর্ণধার মি. ফখরুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ব্যবসা মানে শুধু মুনাফা তুলে নেওয়া নয়। ব্যবসার পাশাপাশি মানব সেবা করা ও সম্ভব । এটি সেবা দানকারী ও সেবা গ্রহণকারীদের একটি মেলবেন্ধন। ডিজিটাল রাইডের এ সেবা নেওয়ার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান তিনি। বলেন, প্রতিযোগীতামুলক এ খাতে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও সবচেয়ে বেশি সুবিধা নিয়ে যাত্রা শুরু করেছে ডিজিটাল রাইড। যা উদ্যোক্তা ও যাত্রীদের বেশি লাভবান করবে। এসময়, তিনি বলেন যাত্রীদের জন্য স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও সবধরণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে ডিজিটাল রাইড।

একমাত্র ডিজিটাল রাইডের অ্যাপস যে কোন বিপদের জন্য সসেস বাটনের মাধ্যমে নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে। ডিজিটাল রাইড বেকারত্ব সমাধানে নিয়েছে নানা উদ্যোগ। তাদের জন্য বিমা ব্যবস্থাও চালু করা হয়েছে। নারী বাইকারদের জন্য আলাদা সুযোগ রেখেছে ডিজিটাল রাইড। একমাত্র ডিজিটাল রাইড এক্সক্লুসিভ অ্যাম্বুলেন্সের সেবা নিয়ে আসছে। সাধারণ, আইসিইও, মরদেহবাহী অ্যাম্বুলেন্সের সেবাও পাওয়া যাবে অ্যাপসের মাধ্যমে। আন্ত জেলা যোগাযোগের জণ্য রয়েছে বিভিন্ন আসনের প্রাইভেট, মাইক্রো ও হাইয়েস। বাসের টিকিটও কাটা যাবে ডিজিটাল রাইডের মাধ্যমে। ডিজিটাল রাইডের সিইও তরুন উদ্যোক্তা ফখরুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, একুশের সেরা ভ্রমণ সুবিধা নিশ্চিত করবো আমরা।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here