করোনাকালীন বাজেটে তরুণ জনগোষ্ঠীর প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি

ড. সায়মা হক বিদিশা

ড. সায়মা হক বিদিশা :: বাংলাদেশ বর্তমানে জনমিতির একটি সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে এবং তরুণ জনগোষ্ঠী আমাদের মোট জনশক্তির ৩১.৬% । তবে জনমিতির এই সুবিধাকে লভ্যাংশ করবার জন্য প্রয়োজন শিক্ষা ও স্বাস্থ্যে বিনিয়োগের মাধ্যমে তরুণদের দক্ষ জনশক্তি হিসেবে গড়ে তোলা ও সেইসাথে সঠিক কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করার মাধ্যমে দেশের উন্নয়নে তাদেরকে সঠিকভাবে ব্যবহার করা। সেক্ষেত্রে করোনাকালের এই বাজেটে সামাজিক নিরাপত্তা খাত, স্বাস্থ্য ও কৃষিতে সার্বিকভাবে বরাদ্দ বাড়লেও তরুণ জনগোষ্ঠীর চাহিদা ও করোনার এই সময় তাদের প্রয়োজনকে বিবেচনা করে সুনির্দিস্ট প্রস্তাব আমরা দেখতে পাইনি। কোভিড-১৯ ভাইরাসের প্রকোপে অন্য সবার মত তরুণরাও ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে তবে পরিবারের অর্থনৈতিক অবস্থান, জেন্ডার, কিংবা আবাসস্থলের ওপর ভিত্তি করে তরুণদের ওপর এর প্রভাবও ভিন্ন হতে পারে। বাজেটে তাই সকল শ্রেণীর তরুণদের প্রয়োজনীয়তার প্রতিফলন থাকার প্রত্যাশা ছিল।

তরুণদের কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে ২০১৯-২০ বাজেটে তরুণদের জন্য ১০০ কোটি টাকার স্টার্ট আপ ফান্ড বরাদ্দ করা হয়েছিল যা বিশেষ করে শহরাঞ্চলের তরুণদের সৃজনশীল কাজে নিয়োজিত হবার জন্য সহায়ক ছিল। কিন্তু প্রস্তাবিত বাজেটে এধরনের কোন প্রস্তাবনা নেই। শহরাঞ্চলের তরুণদের কর্মসংস্থান তাই বরাদ্দ কিংবা প্রণোদনার অভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে। সার্বিকভাবে প্রস্তাবিত বাজেটে ২০০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে কৃষক, তরুণ, নারী ও অভিবাসীদের কর্মসংস্থানের জন্য কিন্তু তা মূলত গ্রামাঞ্চলে কর্মসংস্থানের উদ্দেশ্যে করা হয়েছে।

এছাড়া সার্বিক প্রয়োজনীয়তার বিচারে এবরাদ্দ অপ্রতুল। বাজেটে বরাদ্দ ছাড়াও সরকার করোনায় ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য বেশ কয়েকটি প্যাকেজ ঘোষণা করেছে যা থেকে তরুণ কৃষক, অভিবাসী, ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্পে নিয়োজিতরা উপকৃত হতে পারবেন। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এসব প্যাকেজের শর্তাবলি ও ব্যাংকিং চ্যানেলের জটিলতার কারণে বিশেষকরে নিম্ন আয়ের তরুণরা ও নারী উদ্যোক্তারা সুবিধা নিতে পারছেননা। বিশেষকরে অনানুষ্ঠানিক খাতের তরুণরা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না থাকায় এধরনের প্রণোদনার সুযোগ নিতে পারছেননা।

শুধু কর্মসংস্থানই নয়, কোভিড-১৯ এর কারণে পারিবারিক আয় কমে যাবার ফলে শিক্ষা থেকে ঝরে পড়বার সম্ভাবনাও রয়েছে অনেক শিক্ষার্থীর। ঝরে পড়া মেয়ে শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে বাল্যবিয়ে ও কম বয়সে সন্তানধারণের ঝুঁকিও বাড়তে পারে। খানা জরিপ ২০১৬ সালের তথ্য নিয়ে গবেষণা প্রতিষ্ঠান সানেমের গবেষণায় দেখা গেছে যে, করোনা ভাইরাসের পূর্বে স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে ২৪.৮% তরুণ দরিদ্র পরিবারের থাকলেও করোনা ভাইরাসের কারণে খানার আয় যদি ২৫% কমে গেছে বলে ধরে নেয়া হয় তবে এই সংখ্যা ৪৮.৮% পর্যন্ত বেড়ে যেতে পারে যা পরিবারের তরুণ সদস্যদের শিক্ষা ও কর্মসংস্থানে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে।

এছাড়া করোনার প্রেক্ষিতে অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেই অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়েছে কিন্তু ৩৭.৬% খানা ইন্টারনেট সংযোগের বাইরে রয়েছে তাই প্রত্যন্ত অঞ্চলে বসবাসরত তরুণদের জন্য অনলাইন শিক্ষা যথেষ্টই চ্যালেঞ্জিং। এছাড়া প্রস্তাবিত বাজেট ২০২০-২১ এ এধরনের কার্যক্রম চালানোর জন্য- বিশেষকরে উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে কোন সুনির্দিস্ট বরাদ্দ নেই। অপরপক্ষে মোবাইলের ওপর সম্পূরক শুল্ক বাড়ানো অনলাইন কার্যক্রমের পরিপন্থী। কোভিড-১৯ এর কারণে প্রসুতি সেবা কার্যক্রমও বাধাগ্রস্থ হচ্ছে ফলে তৃনমূল পর্যায়ের তরুণ নারীরা স্বাস্থ্য ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। শারীরিক স্বাস্থ্যের সাথে সাথে শিক্ষা ও কর্মসংস্থানের অনিশ্চয়তা, আর্থিক ঝুঁকি ইত্যাদি তরুণদের মানসিক স্বাস্থ্যের ওপরও নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে।

এপরিস্থিতিতে জনমিতির সুযোগের সদ্ব্যবহার করে এর লভ্যাংশ অর্জন করতে হলে প্রয়োজন সরকারের স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনায় তরুণদের প্রয়োজনীয়তাকে অগ্রাধিকার দেয়া। গবেষণা প্রতিষ্ঠান সানেম কর্তৃক প্রস্তাবিত তরুণদের জন্য পৃথক বাজেট এক্ষেত্রে গুরুত্বপুর্ন ভূমিকা পালন করতে পারে। অতি ক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের তরুণ উদ্যোক্তাদের জন্য শুল্ক ও কর ছাড়, স্বল্প ও শিথিল সুদে ঋনের ব্যবস্থা করা প্রয়োজন।

অনানুষ্ঠানিক খাতের করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ তরুণদের সহায়তা করবার মাধ্যমে তাদের প্রণোদনার আওতায় আনবার জন্য প্রয়োজন অনলাইন ভিত্তিক সেলফ- ক্লেইম পদ্ধতি ও খাতভিত্তিক/এলাকাভিত্তিক চিহ্নিতকরন কর্মসূচির। করোনা ভাইরাসের কারনে ৪র্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যলেঞ্জগুলো আমাদের দ্রুতই মোকাবিলা করার প্রস্তুতি নিতে হবে- তরুণদেরকে এসংক্রান্ত প্রশিক্ষনের জন্য তাই ব্যবস্থা নিতে হবে। এছাড়া সার্বিকভাবে তরুণদের কর্মসংস্থানের জন্য ব্যক্তিখাতে বিনিয়োগ চাঙ্গা করবার জন্য পদক্ষেপ নেয়া জরুরি।

 

 

লেখক: অধ্যাপক, অর্থনীতি বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। ইমেইল: s[email protected]

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শুরু হচ্ছে নতুন তুর্কি ধারাবাহিক ‘বাহার’

স্টাফ রিপোর্টার :: ১১ জুলাই থেকে দীপ্ত টিভিতে আসছে আরো একটি নতুন ...