জুঁই জেসমিন::  ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার তেগাছিয়া গ্রামে আদর্শ সমাজ গড়ার লক্ষ্যে স্থাপিত করেছেন ‘তেগাছিয়া সর্বকল্যান পরিষদ ও পাবলিক লাইব্রেরী’। এলাকায় শিক্ষার জ্যোতি ছড়াতে কাজী ফাহিমের উদ্যোগে ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় সংগঠনটি। সেই থেকে সর্ব প্রকার আঁধার দূর করে আলো ছড়িয়ে যাওয়ার কাজ করছেন সংগঠনটি।

করোনা মাহামারিতে শিক্ষার্থীদের পড়ালেখা গতিশীল রাখতে স্বপ্নময় তরুণ উদ্যোক্তা কাজী ফাহিম গড়ে তোলেন লাইব্রেরি। উদ্যোগ নেন ফ্রিতে পড়াশোনা নেওয়ার ব্যবস্থা। এলাকার ভার্সিটি পড়ুয়া যে ছাত্র ছাত্রী বাড়িতে এসে আটকে রয়েছে, তাদের উদ্ভুদ্ধ করেন শিক্ষার্থীদের সময় দিয়ে পড়ানোর জন্য, যে যে বিষয়ে পারর্দশী সেই বিষয় নিয়ে সকাল হতে বিকেল পর্যন্ত চলে ক্লাস। তাছাড়াও শিক্ষার্থীরা বই পড়ার পাশাপাশি পত্রিকা পড়ার অভ্যাস গড়ে তোলার জন্য রাখেন প্রথম আলো পত্রিকা।

সংগঠনটির ভবিষ্যতে কাজের পরিকল্পনা করতে এক আলোচনা সভার আয়োজন হয়। যেখানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন উপজেলার শিশুসাহিত্যিক, কলামিস্ট ও মানবাধিকার কর্মী জুঁই জেসমিন। আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সভাপতি আমজাদ হোসেন। আরও উপস্থিত ছিলেন বাবুল, আলী হাসান, হাফিজুল, মানিক জাহাঙ্গীর, মুক্তা ওবায়দুর প্রমুখ । গ্রামের সকল তরুণ-তরুণীরা ফাহিমের উদ্যোগে সাড়া দিয়ে এগিয়ে আসেন সকল প্রকার সহযোগিতায়। নিজ গ্রামের উন্নয়নে এবং শিক্ষার্থীদের আলোকিত জীবন প্রত্যাশায় কমিটির সকলের সাথে যোগাযোগ ও এক মতামতে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।

প্রসঙ্গত,সংগঠনটির উদ্যোগে প্রতি বর্ষায় পরিবেশ সুরক্ষায় ঘরে ঘরে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে উপকারী বৃক্ষ, এলাকার সকলকে বিনামূল্যে বই পড়ার সুযোগ, এলাকার কারো রক্তের প্রয়োজন হলে রক্ত জোগাড় করে দেওয়া, শিক্ষার্থীদের মনোবিকাশ এর জন্য নিয়মিত ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান(গান,নাচ,কবিতা,কৌতুক, নাটিকা), চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা, জিপিএ ৫ শিক্ষার্থীদের উদ্দীপনা বৃদ্ধির জন্য সংবর্ধণা দেওয়ার কাজ করছে।

এসব উদ্যোগের পাশাপাশি কাজী ফাহিমের স্বপ্ন নিজ গ্রামে এক হাসপাতাল গড়ে তোলে সুব্যবস্থায় সুচিকিৎসা দেওয়া । যেন কোনো মুমূর্ষু রোগীকে শহরে নিয়ে যাওয়ার আগেই প্রাণ চলে যেতে না হয়।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here