ডেস্ক নিউজ :: কোভিড-১৯ জর্জরিত এক বছরে আমাদের স্বাস্থ্যক্ষেত্রে রয়েছে কিছু আনন্দের খবর। সম্প্রতি এভারকেয়ার হসপিটাল ঢাকায় ঘটেছে একটি বিস্ময়কর ঘটনা। বাংলাদেশের রেকর্ড অনুযায়ী প্রিম্যাচিউরভাবে জন্ম নেওয়া সর্বকনিষ্ঠ শিশুকে ৩ মাস ইনটেনসিভ এবং নিউন্যাটাল কেয়ারে রাখার পর অবশেষে সুস্থভাবে বাড়িতে পাঠিয়েছে এভারকেয়ারের নিউন্যাটাল ইউনিটের ডাক্তাররা। এই

ইউনিটের নেতৃত্বে ছিলেন ডাঃ আবু সাইদ মোহাম্মদ ইকবাল, সিনিয়র কনসালটেন্ট, পেডিয়াট্রিকস অ্যান্ড নিউন্যাটোলজি এবং নিউন্যাটাল ইনটেনসিভিস্ট, কোঅর্ডিনেটর, নিউন্যাটোলজি বিভাগ, এভারকেয়ার হসপিটাল ঢাকা।

মাত্র ৭৫০ গ্রাম ওজন নিয়ে জন্ম নেওয়া এই নবজাতকের নিউন্যাটাল পিরিয়ডটি ছিল অনেক কঠিন । বাচ্চাটির মায়ের প্রিম্যাচিউর লেবার, উচ্চ রক্তচাপ ও রক্তক্ষরণের ফলে এই ডেলিভারিটি করেন হসপিটালের অবসটেট্রিকস অ্যান্ড গাইনোকোলজি বিভাগের সিনিয়র কনসালটেন্ট অ্যান্ড কোঅর্ডিনেটর ডাঃ মনোয়ারা বেগম। এর আগে, মাত্র ৫৯০ গ্রাম ওজন নিয়ে এক নবজাতকও এই হাসপাতালে জন্ম নিয়েছিল এবং সে সুস্থতার সাথে বেঁচে যায়, যা রেকর্ড অনুযায়ী বাংলাদেশের সর্বকনিষ্ঠদের মধ্যে ছিল অন্যতম।

ডাঃ ইকবাল-এর ভাষ্যমতে, ১৫-২০ বছর আগেও যা সম্ভব ছিল না, আজকের দিনে তা অ্যাডভান্সড নিউন্যাটাল ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট, অভিজ্ঞ নিউন্যাটোলজিস্ট টিম, কার্ডিয়াক মনিটরিং, আধুনিক প্রযুক্তি, যথাযথ সাপোর্ট ও অ্যাডভান্সড মেডিকেল সুবিধাসমূহের কারণে সম্ভব। সমস্ত সাপোর্টিং ডিপার্টমেন্ট ও স্টাফদের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানায় আমাদের নিউন্যাটাল টিম; এটি এভারকেয়ার হসপিটাল ঢাকার টিমওয়ার্ক ও পেশাদারিত্বের একটি অনন্য অর্জন।”

উল্লেখ্য, এভারকেয়ার হসপিটাল ঢাকা এভারকেয়ার গ্রুপ- এর একটি অংশ, যা ২৯ টি হসপিটাল, ১৬ টি ক্লিনিক, ৭০-এর বেশি ডায়াগনস্টিক সেন্টার নিয়ে রয়েছে বিশ্বব্যাপী ৫টি দেশে। এই বছরেই এভারকেয়ার হসপিটাল চট্টগ্রাম নামে একটি সম্পূর্ণ নতুন হাসপাতাল চালু হওয়ার কথা রয়েছে, যার লক্ষ্য চট্টগ্রামবাসীদের জন্য বিশ্বমানের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করা।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here