ডেস্ক রিপোর্ট::  লম্বা বিরতির পর প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেতে চলেছে চিত্রনায়িকা পূর্ণিমার ‘আহারে জীবন’ সিনেমাটি। নিজের ছবি মুক্তিকে কেন্দ্র করে বেশ উচ্ছ্বাসিত এই তারকা। বর্তমানে স্বামীর সঙ্গে অস্ট্রেলিয়ায় অবস্থান করছেন তিনি। সেখান থেকেই জানিয়েছেন সিনেমা নিয়ে তার ভাবনা।।

পূর্ণিমা বলেন, দীর্ঘ বিরতির পর আমার ‘আহারে জীবন’ মুক্তি পাচ্ছে। একসময় বছরে অনেকগুলো সিনেমা মুক্তি পেলেও এখন আর সেটা হয় না। কারণ অনেক দিন ধরেই নিয়মিত অভিনয় করছি না। ঈদে একটা সিনেমা মুক্তি পেতে যাচ্ছে। এটি অবশ্যই আমার জন্য খুশির খবর। একজন অভিনয়শিল্পীর সিনেমা যখন প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়, অবশ্যই সেটা তার জন্য ভীষণ আনন্দের। আর সেটি যদি ঈদ উৎসবে হয়, তাহলে তো সেই আনন্দ দ্বিগুণ হয়ে যায়।

‘আহারে জীবন’ নিয়ে প্রত্যাশার কথা উল্লেখ করে এই অভিনেত্রী বলেন, সিনেমাটি নিয়ে প্রত্যাশা অনেক। কারণ, এটি নির্মাণ করেছেন গুণী নির্মাতা ছটকু আহমেদ। করোনাকালের কাহিনি নিয়ে সাজানো হয়েছে সিনেমার গল্প। করোনাকালের অনেক স্মৃতি জড়িয়ে আছে এই সিনেমায়। সব মিলে ভালো একটি কাজ হয়েছে।

উপস্থাপনায় নিয়মিত হলেও, চলচ্চিত্রে নিয়মিত কাজ না করার বিষয়ে জানতে চাইলে পূর্ণিমা বলেন, উপস্থাপনা আর সিনেমা তো এক নয়। সিনেমা একটা বড় পরিসরের কাজ। দর্শকের পছন্দের একটা ব্যাপার থাকতে হয়। আমি তো নিয়মিত কাজ করতে চাই। কিন্তু সে ধরনের কাজ তো হাতে আসতে হবে। যেসব গল্প আসে, সেগুলোর অধিকাংশই আমার জন্য সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। চরিত্রের সঙ্গে আমাকে যাবে, সেটিও ভাবতে হবে- তেমন কাজ আসছে না। এলেও অনেক সময় পরিচালক পছন্দ হয় না। দেখা গেল, সিনেমা এসেছে, বাছবিচার না করেই দৌড়ে গিয়ে চুক্তি করে ফেললাম- ব্যাপার তা নয়। আসলে সিনেমার সংখ্যা বাড়িয়ে আমি দর্শকের গালি শুনতে রাজি নই।

‘আহারে জীবন’ সিনেমায় পূর্ণিমার বিপরীতে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক ও বর্তমান সাংসদ ফেরদৌস আহমেদ। আরও দেখা যাবে সুচরিতা, জয় চৌধুরী মৌমিতা মৌকে। খুব শিগগিরই দেশে ফিরে সিনেমার প্রচারণায় অংশ নেবেন পূর্ণিমা।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here