ডেস্ক রিপোর্ট : : ডিজিটাল একটি শিল্পকর্ম বা আর্ট ওয়ার্ক (থ্রিডি গ্রাফিক্সে করা ছবি) বিক্রি হয়েছে ৭ কোটি ডলার বা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৬০ কোটি টাকায়।

যদিও বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) অনলাইন নিলামে বিক্রি হওয়া এ আর্ট ওয়ার্কের বাস্তবে কোনো অস্তিত্ব বা আকার নেই। মার্কিন শিল্পী মাইক উইন্কেল যিনি বিপল নামেও পরিচিত, তিনি এটি কম্পিউটার গ্রাফিক্সে এঁকেছেন।  ‘এভরিডেজ-দ্যা ফার্স্ট ৫০০০ ডেজ’- নামের এ শিল্পকর্মটি মূলত ৫ হাজার আলাদা আলাদা ছবিকে একসঙ্গে করে তৈরি করা হয়েছে। প্রতিদিন ১টি করে আঁকা ছবিতে মোট ৫ হাজার দিন বা ১৩ বছর সময় নিয়ে এ শিল্পকর্মটি তৈরি করা হয়েছে। ৬৯ মিলিয়ন ৩ লাখ ৪৬ হাজার ২৫০ ডলারে বিক্রি হওয়া এই শিল্পকর্মটির স্রষ্টা বিপলকে জীবিত তিন শীর্ষ দামি শিল্পীর তালিকায় নিয়ে গেছে। এ ধরনের কাজ উদ্ভাবনী ডিজিটাল সম্পদ, বিটকয়েনের মতো ব্লকচেইনের মাধ্যমে তার মালিক ও এর উৎস খুঁজে পাওয়া যায়।

সম্প্রতি এ ধরনের মুদ্রা বা সম্পদের বাজারে তেজি ভাব দেখা গেছে। বিনিয়োগকারীরাও তাদের উদ্বৃত্ত সঞ্চয় এসব খাতে বিনিয়োগে ভীষণ আগ্রহী হয়ে উঠেছে।

শিল্পকর্মের শিল্পী বিপল বলেন, ডিজিটাল আর্ট নন-ফান্ডিবল টোকেন বা ডিজিটাল অ্যাসেট থেকে শুরু হয়নি, কিন্তু এনএফটির সনদ পাওয়ার আগে শিল্পকর্মটি কারো সংগ্রহের কোনো উপায় ছিল না।

নিলামে রেকর্ড দামে নিজের শিল্পকর্ম বিক্রি হওয়ার পর ৩৯ বছর বয়সী বিপল আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন। জাস্টিন বিবার, কেটি পেরির মতো বিখ্যাত শিল্পীর কনসার্টের ভিজুয়াল তৈরি করা গ্রাফিক্স ডিজাইনার বলেন, আমি আনন্দে ভাষা হারিয়ে ফেলেছিলাম।

তিনি আরো বলেন, অর্থের পরিমাণটা সত্যি অবিশ্বাস্য।  যদিও বিপল একবারে পুরো অর্থ পাবেন না। প্রতিবার হাতবদলে রয়ালটি/স্বত্ব হিসেবে ১০ শতাংশ করে অর্থ পাবেন তিনি। নন-ফান্ডেবল টোকেন হিসেবে শিল্পকর্ম, ক্রিপ্টোকারেন্সি, স্পোর্টসের ডিজিটাল স্মারক, এমনিক টুইটও বিক্রি করা যায়।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here