ডেস্ক রিপোর্ট::  দুপুরে মাত্র এক ঘণ্টা বৃষ্টি ঝরেছে এতেই ডুবে রইলো শহরের একাংশ! এতে গাড়ি চলাচলে বিঘ্ন ঘটার পাশাপাশি চরম ভোগান্তিতে পড়েন অসংখ্য সাধারণ মানুষ।

বুধবার দুপুরের বৃষ্টিতে সন্ধ্যা পর্যন্ত ডুবে থাকে ভারতের কলকাতা শহরের একাংশ।

কলকাতা পৌরসভার ১৫টি নিকাশি পাম্পিং স্টেশনে এদিন দুপুর ২টা থেকে ৩টা পর্যন্ত মোট বৃষ্টি হয়েছে ৭৫৯ মিলিমিটার। গড় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল ৫০.৬ মিলিমিটার। সব থেকে বেশি বৃষ্টি হয়েছে বালিগঞ্জ পাম্পিং স্টেশন এলাকায় (১১৪ মিলিমিটার)। উত্তর কলকাতার মার্কাস স্কোয়ারে ওই সময়ে বৃষ্টি হয়েছে ৬৫ মিলিমিটার। পামারবাজার ও তপসিয়ায় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল যথাক্রমে ৭৮ ও ৭২ মিলিমিটার।

কলকাতা পৌরসভা সূত্রের খবর, এ দিনের এক ঘণ্টার বৃষ্টিতে উত্তর কলকাতার মুক্তারামবাবু স্ট্রিট, আমহার্স্ট স্ট্রিট, ঠনঠনিয়া কালীবাড়ি এলাকাসহ বেশ কিছু ছোট রাস্তায় সন্ধ্যা পর্যন্ত জল জমে ছিল। বাদ যায়নি চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউ, এম জি রোড, স্ট্র্যান্ড রোড, নেতাজি সুভাষ রোড, ব্রেবোর্ন রোড, এ জে সি বসু রোড, লালবাজার স্ট্রিট, পার্ক স্ট্রিট, শেক্সপিয়র সরণি এবং বিধান সরণিও।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম জানায়, ভারী বৃষ্টির জেরে পার্ক স্ট্রিট উড়ালপুলের নিচে জওহরলাল নেহরু রোডেও দীর্ঘক্ষণ পানি জমে থাকায় ভোগান্তিতে পড়েন সাধারণ মানুষ।

মেয়র পারিষদ কর্মকর্তা তারক সিংহ বলেন, এক শ্রেণির মানুষের অসচেতনতার জন্যই গালিপিটগুলো অবরুদ্ধ হয়ে যাচ্ছে। বৃষ্টির পানি সরতে দেরি হচ্ছে। শহরের বিভিন্ন বড় হোটেল রাতে ম্যানহোল খুলে খাবারের বর্জ্য ফেলে। যার ফলে ম্যানহোল অবরুদ্ধ হয়ে পড়ছে। হোটেলের মালিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসব। তাদের বলা হবে, এভাবে খাবারের বর্জ্য ফেললে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here