ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে যৌতুকের টাকা দিনে অস্বীকার করায় এক পাষন্ড স্বামী পিটিয়ে হত্যা করেছে স্ত্রীকে । এ ঘটনায় হত্যাকারী স্বামীর বাবা-মাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ । শনিবার পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। ঘটনায় নিহতের ভাই বাদী হয়ে ৩ জনকে আসামী করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছে । নিহরের পরিবার ও পুলিশ জানায়, উপজেলার ছোট তারাকান্দি গ্রামের মোঃ মারফত আলীর ছেলে সবুজ মিয়া (৩৫) গত ৮ বছর আগে বিয়ে করে পাশের দরিবৃ গ্রামের মোঃ শাহাব উদ্দিনের মেয়ে মোছাম্মৎ খাদিজা বেগমকে(৩০) । নিহতের পিতাশাহাব উদ্দিন জানান, বিয়ের পর থেকে প্রায়ই যৌতুকের দাবীতে তার মেয়ে খাদিজাকে নির্যাতন করতো পাষন্ড স্বামী শাহাব উদ্দিন। ইতিমধ্যে তার মেয়ের জামাইকে যৌতুক হিসাবে ৪০ হাজার টাকা ও একটি গয়না দেয়। নিহতের মা ছফুরা খাতুন জানান, আরো যৌতুকের দাবীতে শাহাব উদ্দিন প্রায়শই তার মেয়েকে নির্যতন করতো। প্রতিবেশীরা জানান, গত বৃহস্পতিবার দুপুরে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে যৌতুকের টাকা নিয়ে ঝগড়া-াববাদ হয়। এক পর্যায়ে স্বামী শাহাব উদ্দিন তার স্ত্রীকে বেদড়ক পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। গতকাল শুক্রবার সকালে খাদিজার অবস্থা সংকটাপন্ন দেখে গ্রামের পল্লী চিকিৎসক রতন মিয়াকে ডেকে আনে। চিকিৎসক রতন তাকে দ্রুত হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শর্ দেওয়ার কিছুক্ষন পরই খাদিজা মারা যায়। ঈশ্বরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম জানান, হত্যার অভিযোগে খাদিজার শ্বশুড় মারফত আলী(৬৫) ও শ্বাশুড়ী রোমেলা খাতুন(৫০) কে গ্রেফতার করা হয়েছে । মামলার বাদী নিহতের ভাই গিয়াস উদ্দিন।

ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডট কম/মনোনেশ দাস/ময়মনসিংহ

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here