ফরহাদ খাদেম, ইবি সংবাদদাতা ::
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) আরবি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত তিন অধ্যাপকের বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (২১ জানুয়ারি) বেলা ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষদ ভবনের ৪২৭ নম্বর কক্ষে এটি অনুষ্ঠিত হয়। 
বিভাগের অধ্যাপক ড. রুহুল আমিন, অধ্যাপক ড. নেছার উদ্দিন আহমদ ও অধ্যাপক ড. মাহফুজুর রহমানের অবসর উপলক্ষে এ সংবর্ধনার আয়োজন করে বিভাগটি।
অনুষ্ঠানে আরবী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. আব্দুল মোত্তালিবের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. এমতাজ হোসেন। এসময় ধর্মতত্ত্ব অ্যান্ড ইসলামিক স্টাডিজ অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আ ব ম ছিদ্দিকুর রহমান আশ্রাফী, আল কুরআন অ্যান্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. নাসির উদ্দিন মিঝি ও ফলিত পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. সেলিম রেজা অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।
এছাড়াও বিভাগের অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ, অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আবদুল মালেক, অধ্যাপক ড. তোজাম্মেল হোসেন, অধ্যাপক ড. আবদুস সালাম, অধ্যাপক ড. আবু সাঈদ মোহাম্মদ আলী, অধ্যাপক ড. ওবায়দুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. এ কে এম মফিজুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. এ কে এম শামছুল হক ছিদ্দিকী, অধ্যাপক ড. কামরুল হাসান, অধ্যাপক ড. নূর মোহাম্মদ, অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সাইফুল গণি নোমান, অধ্যাপক ড. কাউসার মোহাম্মদ বাকী বিল্লাহ ও অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলামসহ অন্যন্য শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে অতিথি ও বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা বিদায়ী অধ্যাপকদের নিয়ে স্মৃতিচারণমূলক বক্তব্য দেন এবং তাঁদের আগামী দিনের জন্য শুভকামনা জানান।
বিভাগের অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমানের সঞ্চালনায় বিদায়ী অধ্যাপক ড. মাহফুজুর রহমান বলেন, আমি দুই সময়ে আনন্দ পাই। প্রথমত যখন ছাত্রদের সামনে ক্লাস নেই তখন আর যখন কোন পাঠক আমার বই পড়ে বলে আপনার বইটা ভালো তখন।
এমময় তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, তোমরা যেখানেই যাও সেখানেই তোমরা দায়িত্বের সাথে কাজ করবে। যদি তোমরা দুনিয়া ও আখেরাতে মুক্তি পেতে চাও তাহলে তোমরা আমানতদার হবে। আমানতদারকে আল্লাহ তায়ালাও ভালোবাসে। আমাদের পরস্পর শ্রদ্ধাবোধ, আন্তরিকতা ও মায়াবোধ থাকতে হবে।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. এমতাজ হোসেন বলেন, বিশ্বের সবখানেই আরবী ভাষার কদর আছে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের শিক্ষার্থীরা সব জায়গায় কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখেছেন। আমরা একদিন একটা নিয়োগ বোর্ডে গিয়েছিলাম, সেখানে তিনটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আবেদন করেছিল। সেখানে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের শিক্ষার্থীরাও আবেদন করেছিল। সেদিন আরবী বিভাগের শিক্ষার্থীরা যে পারফরম্যান্স দেখিয়েছে নিয়োগ বোর্ড তাদেরকে নিয়োগপত্র দিতে বাধ্য হয়েছে৷ আজ যে তিনজন শিক্ষক বিদায় নিচ্ছে তারা দীর্ঘসময় এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে থেকে শিক্ষার মান উন্নত করেছেন।
প্রসঙ্গত, বিদায়ী অধ্যাপক ড. রুহুল আমিন ১৯৯১ সালের ৪ মার্চ বিভাগে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন। পরবর্তীতে তিনি ১৯৯৪ সালে সহকারী অধ্যাপক, ২০০০ সালে সহযোগী অধ্যাপক ও ২০০৪ সালে অধ্যাপক পদে উন্নিত হন। তিনি মোট ৩১ বছর চার মাস ২৭ দিন শিক্ষকতা শেষে ২০২২ সালের ৩০ জুলাই অবসর গ্রহণ করেন। তিনি ১৯৯১ সাল থেকে ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত এবং ১৯৯৯ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত দুই মেয়াদে বিভাগীয় সভাপতির দায়িত্বপালন করেন।
অধ্যাপক ড. নেছার উদ্দিন ১৯৯১ সালের ৪ ডিসেম্বর বিভাগে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন। পরবর্তীতে তিনি ১৯৯৪ সালে সহকারী অধ্যাপক, ২০০২ সালে সহযোগী অধ্যাপক ও ২০০৫ সালে অধ্যাপক পদে উন্নিত হন। তিনি মোট ২৭ চার মাস ২৮ দিন শিক্ষকতা শেষে ২০১৯ সালের ৩০ এপ্রিল অবসর গ্রহণ করেন। তিনি ১৯৯৬ সাল থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত বিভাগীয় সভাপতির দায়িত্বপালন করেন।
অধ্যাপক ড. মাহফুজুর রহমান ১৯৯৪ সালের ৩ জানুয়ারি বিভাগে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন। পরবর্তীতে তিনি ১৯৯৭ সালে সহকারী অধ্যাপক, ২০০২ সালে সহযোগী অধ্যাপক ও ২০০৬ সালে অধ্যাপক পদে উন্নিত হন। তিনি মোট ৩২ বছর ১১ মাস ২৯ দিন শিক্ষকতা শেষে ২০২৩ সালের ৩১ ডিসেম্বর অবসর গ্রহণ করেন। তিনি ২০০১ সাল থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত বিভাগীয় সভাপতির দায়িত্বপালন করেন।
Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here