ব্রেকিং নিউজ

ইউএনওর হস্তক্ষেপে বন্ধ হল বাল্যবিয়ে

এস.এস শোহান, বাগেরহাট প্রতিনিধি: বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে মারিয়া আক্তার (১৩) নামে এক স্কুল ছাত্রীর বাল্য বিয়ে বন্ধ করলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

ওই নাবালিকা স্কুল ছাত্রীকে বিয়ে দেয়ার অপরাধে কনের বাবা লিল্টু হাওলাদার ও বরের বাবা জব্বার পাইককে এক হাজার টাকা করে এবং বিয়ের কাজী নুরুল ইসলামকে পাঁচশত টাকা জরিমানা করা হয়।

শনিবার বিকেলে মোরেলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল হালিম  বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন ১৯২৯ এর ৫ ও ৬ ধারায় এই জরিমানা করেন।

বিয়ের কনে মারিয়া আক্তার মোরেলগঞ্জ উপজেলার কামলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী এবং বর বাগেরহাট সরকারী পিসি কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

মোরেলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল হালিম বলেন, শনিবার দুপুরে মোরেলগঞ্জ উপজেলার রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের কামলা গ্রামের লিল্টু হাওলাদারের মেয়ে মারিয়া আক্তারের সঙ্গে পাশ্ববর্তি কচুয়া উপজেলার রাঢ়িপাড়া ইউনিয়নের শিবপুর গ্রামের জব্বার পাইকের কলেজে পড়া ছেলে জামাল পাইকের বিয়ে হচ্ছিল।

স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে খবর পেয়ে ওই গ্রামে যাই। সেখানে গিয়ে দেখি স্থানীয় কামলা বাজার জামে মসজিদের ইমাম নুরুল ইসলাম ওই বিয়ে পড়াচ্ছেন। বিয়ে পড়ানো অবস্থায় ছেলের বাবা, মেয়ের বাবা এবং বিয়ে পড়ানো কাজীকে আটক করে মোরেলগঞ্জ উপজেলা পরিষদে নিয়ে আসি।

নাবালিকা মেয়েকে বিয়ে দেয়ার জন্য বাবাকে এবং বাল্যবিয়ে অপরাধ তা জেনেও সচেতন শিক্ষিত ছেলেকে বিয়ে দেয়ার অপরাধে বাবাকে এবং বিয়ে পড়ানোর নিবন্ধন না থাকায় মসজিদের ইমামকে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন ১৯২৯ এর ৫ ও ৬ ধারায় জরিমানা করে আড়াইশ টাকার ষ্ট্যাম্পে উভয়পক্ষের স্বাক্ষর নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

 

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

নাহিদা সোবহান জর্ডানের নতুন রাষ্ট্রদূত

স্টাফ রিপোার্টার :: পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে জাতিসংঘ অনুবিভাগের মহাপরিচালক নাহিদা সোবহানকে জর্ডানে রাষ্ট্রদূত ...