আপেল খান হৃদরোগ থেকে বাঁচুন

পঞ্চাশোর্ধ মানুষেরা প্রতিদিন একটি করে আপেল খেলে বছরে হৃদরোগ এবং স্ট্রোক থেকে প্রাণে
বাঁচতে পারে ৮ হাজার ৫শ’ জন। যুক্তরাজ্যের গবেষকদের নতুন এক গবেষণায় একথা বলা হয়েছে। আপেল ওষুধের মতোই হৃদস্বাস্থ্যের জন্য উপকারী হবে। তাছাড়া, এর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও থাকবে না।

ব্রিটিশ মেডিক্যাল জার্নালে বলেছেন, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা।

তারা বলছেন, আপেল খেয়ে ডাক্তার দূরে রাখার এ মন্ত্র বিশেষত পঞ্চাশোর্ধদের জন্যই গুরুত্বপূর্ণ।

কারণ, এ বয়সের মানুষদেরই হার্ট অ্যাটাক কিংবা স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি।

সংবাদ সংস্থা বিবিসি জানায়, পঞ্চশোর্ধ মানুষদের জন্য কোলেস্টেরল কমানোর ওষুধ কিংবা দিনে একটি আপেল

খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে গবেষকরা হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোকে মৃত্যুর সাধারণ কারণগুলোর ওপর এর

প্রভাব বিশ্লেষণ করেছেন। দেখা গেছে, ওই পরামর্শ মেনে চলা প্রতি ১০ জনে অন্তত ৭ জনের ক্ষেত্রে ওষুধ সেবনে বাঁচানো সম্ভব ৯ হাজার ৪শ’ প্রাণ। আর দিনে একটি আপেলে বাঁচানো সম্ভব ৮ হাজার ৫শ’ প্রাণ।হাজার হাজার রোগীর ওপর পরীক্ষামূলক চিকিৎসা এবং পর্যবেক্ষণের মধ্য দিয়ে এ তথ্য বেরিয়ে এসেছে।গবেষক ডাক্তার ব্রিগস বলেন, “খাদ্যাভ্যাসে ছোট্ট একটি পরিবর্তন কি বিরাট ফল বয়ে আনতে পারে এ গবেষণায় সেটিই দেখিয়ে দিয়েছে। ওষুধের পাশাপাশি স্বাস্থ্যসম্মতভাবে বেঁচে থাকাটাও হৃদরোগ এবং স্ট্রোক প্রতিরোধে সত্যিই কাজে আসে”।

আমাদের দেশী ফলের মধ্যে পেয়ারা, বড়ই, আলকী আপেলের ভাল বিকল্প হতে পারে। এজাতীয় ফলের মধ্যে প্রচুর পরিমান ভিটানি ‘সি’ আছে। পেয়ারার পুষ্টিগুণ আপেলের চেয়েও বেশী। প্রায় প্রতিটি বসত বাড়ির আঙ্গিনায় এসকল ফলের গাছ লাগানো যায়। বানিজ্যিকভাবেও প্রচুর আবাদ হয়ে থাকে। ফরমালিন ও রাসায়নকি মিশ্রিত বিদেশী ফলের চেয়ে দেশী ফলের চাষ ও খাওয়ার অভ্যাস করতে হবে আমাদের। এতে, একদিকে সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত হবে অপরদিকে  সাশ্রয় হবে বৈদেশিক মুদ্রা।

কাজী মোসাদ্দেক হোসেন/

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

কিডনি রোগে ভুগছে

দেশে প্রায় দুই কোটি মানুষ কিডনি রোগে ভুগছে

ডেস্ক নিউজ :: কিডনি ফাউন্ডেশন নামের একটি বেসরকারি সংস্থার জরিপ থেকে পাওয়া ...