স্টাফ রিপোর্টার :: ‘করোনা কালে নারী নেতৃত্ব গড়বে নতুন সমতার বিশ্ব’ এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে ৮ই মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে আজ ০৭ মার্চ সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনী হলে এডাব (এসোসিয়েশন অব ডেভেলপমেন্ট এজেন্সিজ ইন বাংলাদেশ)—এর আয়োজনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এডাব ঢাকা মহানগর শাখার সভাপতি মাসুদা ফারুক রত্নার সভাপতিত্বে এই আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন বর্তমান করোনা মহামারি পরিস্থিতিতে পুরুষের পাশাপাশি নারী নেতৃত্বের যেমন ভূমিকা রয়েছে, তেমনি নারীরা বিভিন্ন অসুবিধারও সম্মুখীন হচ্ছেন। কাজ হারিয়ে বিপাকে পড়েছেন অনেক কর্মজীবী নারী। করোনাকালে নারীদের প্রতি অর্থনৈতিক চাপ, মানসিক চাপ ও পারিবারিক সহিংসতা বেড়েছে ব্যাপক মাত্রায়। এর প্রভাবে আমাদের সমাজে বাল্য-বিবাহসহ নারী নির্যাতন ও নারীর প্রতি সহিংসতা বৃদ্ধি পেয়েছে। এই পরিস্থিতি মোকাবেলায় নারীর পাশাপাশি পুরুষের সহযোগিতাও সমানভাবে প্রয়োজন। করোনাকাল ও করোনা পরবর্তীকালে অন্তর্ভূক্তিমূলক উন্নয়ন নিশ্চিত করতে হলে নারীর কর্মসংস্থান ধরে রাখার পাশাপাশি নতুন কর্মসংস্থান তৈরীতে অধিক গুরুত্ব দিতে হবে। এজন্য সরকারি ও উদ্যোক্তা পর্যায়ে কার্যকরি পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। ইতোমধ্যে যেসব নারী কর্মসংস্থান হারিয়েছেন তাদের কর্মে পূনর্বহালের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

তারা আরও বলেন, বাল্য বিবাহ বন্ধের জন্য সামাজিক ও রাষ্ট্রীয়ভাবে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে এবং নারী নির্যাতন ও নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধে এ সংক্রান্ত রাষ্ট্রীয় আইনের সঠিক প্রয়োগ ও বাস্তবায়ন নিশ্চিৎ করতে হবে। ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, নারী—পুরুষ নির্বিশেষে সকলের মুক্তির ডাক দিয়েছিলেন। যেহেতু দেশের ৫০ শতাংশ জনগোষ্ঠীই নারী; সে কারণে নারীদের পেছনে ফেলে দেশের উন্নয়ন ও এসডিজি’র লক্ষ্য অর্জন সম্ভব নয়। অনেক সময় ফতোয়া বা ধর্মের দোহাই দিয়ে নারী নেতৃত্বকে দাবীয়ে রাখার চেষ্টা করা হয়, এবিষয়ে সকলকে সচেতন হতে হবে।

বক্তারা বলেন, নারী নেতৃত্বের জন্য জ্ঞান ও শিক্ষার কোন বিকল্প নাই। নিজস্ব ব্যক্তিত্ব ও যোগ্যতা দিয়েই নারী নেতৃত্বের জায়গা তৈরী করতে হবে। তবে নারী ক্ষমতায়নের জন্য জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারীদের সরাসরি অংশগহনের সুযোগ সৃষ্টি করা দরকার, তা না হলে নারীর রাজনৈতিক মুক্তি সম্ভব নয়। এনিয়ে আরও কাজ করতে হবে। আমাদের সকলের যার যার অবস্থান থেকে জেন্ডার সমতার জন্য কাজ করে যেতে হবে; তবেই আমরা নারী—পুরুষ সমতাভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হবো।

আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু, জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. জেবউন নেসা, মুসলিম এইড (ইউকে) এর কান্ট্রি ডিরেক্টর রাবেয়া সুলতানা, বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের নির্বাহী পরিচালক রোকেয়া কবীর, এনজিও বিষয়ক ব্যুরো’র নিবন্ধন ও নবায়ন শাখার সহকারি পরিচালক (সিনিয়র সহকারী সচিব) শীলু রায়, এডাব কার্যনির্বাহী পরিষদের কোষাধ্যক্ষ ড. লায়লা আরজুমান্দ বানু, এডাব কার্যনির্বাহী পরিষদ সদস্য মাহবুবা বেগম প্রমুখ।

সভায় এডাব ঢাকা মহানগরের পক্ষে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন এডাব ঢাকা মহানগর শাখার সদস্য-সচিব কাজী বেবী।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here