ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডেস্ক ::

চমক দিয়ে বছর শুরু করল বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অপো। বিশ্বের নাম্বার ওয়ান অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে নিজেদের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে ঘোষণা করেছে।

শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলায় এক অনাড়ম্বপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে সাকিবকে পরবর্তী অ্যাম্বাসেডর হিসেবে বেছে নেয় অপো। এ উপলক্ষে সাকিব ও অপোর এর মধ্যে এক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

অপো জানায়, ‘ইন্সপারেশন এ্যাহেড’ এই স্লোগানকে ধারণ করে তরুণ প্রজন্মের জন্য উদ্ভাবনী প্রযুক্তি নিয়ে আসতে তারা কাজ করে যাচ্ছে। উদ্দেশ্য নিত্যনতুন প্রযুক্তির সাথে তরুণদের মেলবন্ধন ঘটানো। তাই সময়ের প্রয়োজনেই এবার তারা তরুণদের আইকন সাকিব আল হাসানের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন।

সাকিবের সঙ্গে চুক্তি প্রসঙ্গে অপোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড্যামন ইয়াং বলেন, অপো সবসময় স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের সর্বোচ্চ ভালো সেবার অভিজ্ঞতা দিতে নিত্যনতুন প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। তাইতো ২০২১ সালের মার্চ পর্যন্ত অপো ৭৫ হাজারের বেশি প্যাটেন্ট আবেদন করেছে আছে যার ৬৮ হাজার ইউটিলিটি প্যাটেন্ট। শতাংশ হিসেবে এটি প্রায় ৯০ শতাংশ।

তিনি বলেন, অপোই প্রথম এআই বিউটিফিকেশন ক্যাপাবল ক্যামেরা, রোটেটিং ক্যামেরা, আন্ডার ডিসপ্লে ক্যামেরা, ১০ এক্স হাইব্রিড জুম ক্যামেরা, ফুল-পাথ ১০-বিট কালার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম, ভুক ফ্লাশ চার্জিং ইত্যাদি প্রযুক্তি নিয়ে এসে ব্যবহারকারীর অভিজ্ঞতায় বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছে।

তিনি বলেন, আজকে অপোর জন্য এক বিশেষ দিন কারণ বিশ্বের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার সাবিক আল হাসানের সঙ্গে আমরা নতুন পথচলা শুরু করেছি। আমি বিশ্বাস করি, এই চুক্তির মাধ্যমে আমরা একসঙ্গে আরো অনেক দূর এগিয়ে যাবো। মানুষের জন্য প্রযুক্তি এই মতাদর্শে বিশ্বাসী হয়ে অপো মনে করে সাকিব যেমন খেলার মাঠে তার সর্বোাচ্চ দেওয়ার জন্য নিজেকে উজাড় করে দেয় তেমনি অপো উদ্ভাবনী প্রযুক্তির ক্ষেত্রে নিজের সর্বোচ্চটা দেওয়ার চেষ্টা করে থাকে।

অপোর সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হওয়া প্রসঙ্গে সাকিব আল হাসান বলেন, অপোর সাথে কাজ করতে পেরে আমি সত্যিই আনন্দিত। কারণ অপো কাটিং এজ প্রযুক্তি দিয়ে লাখ লাখ স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর চাহিদা পূরণ করতে সমর্থ হয়েছে। আগামীতে অপো ভক্তদের জন্য দারুণ কিছু কাজ করার জন্য আমি মুখিয়ে আছি।

এবারের স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলার নিয়মিত কিছু ছাড়ের সঙ্গে তারা অপোর প্রথম ফ্লাগশিপ ভাজযোগ্য ফোন ‘ফাইন্ড এন’ প্রদর্শনীর জন্য নিয়ে এসেছে। খুব শিগগিরই ফোনটি বাংলাদেশের বাজারে আসতে যাচ্ছে। সর্বশেষ প্রযুক্তির এই ফোনটি দেখতে মেলায় অনেক দর্শনার্থী ভিড় জমায়। অসাধারণ মান ও কাটিং এজ প্রযুক্তির দুর্দান্ত এই ফোনটি অপোর সবচেয়ে উদ্ধাবনী প্রযুক্তির ফোন।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here