ফেসবুক আইডি হ্যাক করে দুস্থ হিসেবে সাহায্য চাইতেন তিনি

ডেস্ক রিপোর্টঃঃ  ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে অসুস্থ ও দুস্থ ব্যক্তির ছবি ব্যবহার করে প্রতারণার মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে শাহরিয়ার আজম আকাশ নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) সিটি-সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগ।

বুধবার(৩ আগস্ট) সিটি-সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন ডিভিশনের ই-ফ্রড টিমের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) সুরঞ্জনা সাহা এ তথ্য জানিয়েছেন। তার কাছ থেকে একটি আইফোন, দুটি বাটন ফোন, অ্যাপলের ম্যাকবুক এয়ার ও ব্যবহৃত বিকাশ নম্বরগুলো জব্দ করা হয়েছে।

সুরঞ্জনা সাহা বলেন, বিভিন্ন অনলাইন মনিটরিংয়ের সময় ফেসবুকে হেল্প ফর মাসুম (Help For Masum), হেল্প ফর তাহমিদসহ (Help For Tahmid) বেশ কয়েকটি পেজ থেকে গুরুতর অসুস্থ ব্যক্তি ও শিশুর ছবি পোস্ট দিয়ে সাহায্যের আবেদন জানানোর পোস্ট নজরে আসে, যেখানে বিকাশ ও নগদ নম্বরও দেওয়া। আর সাহায্য করতে না পারলেও পোস্টগুলো শেয়ার করার আকুতি জানানো হয়। এমন কয়েকটি পেজ নিয়ে কাজ শুরু করে সাইবার পুলিশ। এক পর্যায়ে অবস্থান শনাক্ত করে যশোর থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তিনি বলেন, আকাশ ফিশিং লিংকের মাধ্যমে বিভিন্ন ব্যক্তির ফেসবুক আইডি হ্যাক করেন। পরে হ্যাক করা আইডি থেকে হেল্প ফর মাসুম (Help For Masum), হেল্প ফর তাহমিদসহ (Help For Tahmid)  একই রকম অনেকগুলো পেজ খোলেন। এরপর গুরুতর অসুস্থ ও অসহায় শিশুর ছবি পোস্ট করে সাহায্যের আবেদন করেন। তিনি ‘ডলার’ ব্যবহার করে বুস্টিং করেন যাতে পোস্টগুলো অধিক লোকের কাছে পৌঁছায়। সেসব পোস্ট দেখে হৃদয়বান মানুষ তার দেওয়া বিকাশ নম্বরে টাকা পাঠান।

বিকাশে পাওয়া টাকা দিয়ে তিনি ক্রিপটোকারেন্সি এক্সচেঞ্জ ওয়েবসাইট binance.com—এর মাধ্যমে বিভিন্ন ব্যক্তির কাছ থেকে ডলার কেনেন। পরে এসব ডলার বিক্রি করে বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে তার বিকাশ নম্বরে অর্থ নিয়ে নেয়। এভাবে গত দুই মাসে প্রতারণার মাধ্যমে তিনি প্রায় ১২ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন। গ্রেপ্তারের সময় আকাশের কাছ থেকে শতাধিক হ্যাক করা ফেসবুক আইডি পাওয়া গেছে।

তিনি আরও বলেন, আকাশ অনেক দিন আগে থেকেই এসব সাইবার অপরাধে জড়িত। এ ধরনের অপরাধের জন্য ইতোপূর্বে তিনি গ্রেপ্তারও হয়েছিলেন। গত মে মাসে জেল থেকে ছাড়া পেয়ে পুনরায় একই অপরাধে জড়ান।

আকাশের বিরুদ্ধে রমনা মডেল থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ছাড়া   যশোরের কোতোয়ালি থানায় তার বিরুদ্ধে আরও দুটি মামলা রয়েছে বলেও জানান সিটি-সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন ডিভিশনের ই-ফ্রড টিমের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) সুরঞ্জনা সাহা।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here