ব্রেকিং নিউজ

অবরোধ প্রত্যাহারে খালেদা জিয়াকে আল্টিমেটাম

অবরোধ প্রত্যাহারে খালেদা জিয়াকে আল্টিমেটামষ্টাফ রিপোর্টার :: ২৪ জানুয়ারির মধ্যে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের অবরোধ কর্মসূচি প্রত্যাহার করা না হলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনশন কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ পরিবহন শ্রমিক লীগ।
বৃহস্পতিবার সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক ইনসুর আলী এই ঘোষণা দেন। ইনসুর আলী বলেছেন, আগামী ২৪ জানুয়ারির মধ্যে অবরোধ কর্মসূচি প্রত্যাহার না করলে ২৫ জানুয়ারি থেকে প্রেসক্লাবের সামনে অনশন কর্মসূচি পালন করা হবে।
বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টার পর থেকে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগ, মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগ, ঢাকা জেলা ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন, ঢাকা হিউম্যান হলার সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন, গাড়ি চালক সমাজ মিছিল নিয়ে খালেদা জিয়ার গুলশানের কার্যালয় ঘেরাও করতে গুলশান অভিমুখে রওনা দেয়।
তারা মিছিল নিয়ে গুলশান-২ গোল চত্বরে আসলে পুলিশ বাধা দেয়। এসময় শ্রমিক সংগঠনের নেতা কর্মীরা পুলিশ প্রহরায় সেখানে অবস্থান নিয়ে মিছিল ও সমাবেশ করে।   এসব সংগঠনের প্রায় দেড় সহস্রাধিক শ্রমিক বিএনপি নেত্রীর কার্যালয় ঘেরা করতে সমবেত হয়।
গুলশান-২ গোল চত্বরে অবস্থান নিয়ে তারা সমাবেশ করে। এদিকে সম্মিলিত গাড়ি চালক সমাজ ও মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগ প্রেস ক্লাব থেকে একটি র‌্যালি নিয়ে গুলশান কার্যালয় অভিমুখে রওনা দেয়। মালিবাগে আসলে পুলিশের বাধায় সেখানে তারা অবস্থান নিয়ে সমাবেশ করে।
প্রজন্মলীগের সভাপতি ফাতেমা জামান সাথী জানান, অবরোধ ও হরতাল বন্ধের দাবিতে তারা এ কর্মসূচি পালন করছেন। সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগের সভাপতি ওয়াহেদুজ্জামান জানান, অবরোধ প্রত্যাহার না হলে বিএনপি নেত্রী ও তার দলের নেতাদের বাসভবন অবরোধ করা হবে।
এদিকে আওয়ামী লীগের সহযোগী শ্রমিক সংগঠনের কর্মসূচিকে ঘিরে খালেদা জিয়ার কার্যালয়ের আশে পাশে  অতিরিক্ত পুলিশ অবস্থান নেয়।এদিকে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের অবরোধে ক্ষতিগ্রস্ত রাজধানীর কাঁচাবাজারের সবজি ও ক্ষুদে ব্যবসায়ী এবং শ্রমিকরা বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করেছেন।
বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে কয়েক শ সবজি বিক্রেতা ও ক্ষুদে ব্যবসায়ীরা বস্তাভর্তি ও হাতে সবজি ও কাঁচামাল নিয়ে বিক্ষোভ করেন। এ সময় তারা বিভিন্ন ধরনের স্লোগান দেন। তারা অবরোধ তুলে নেওয়ার জন্য খালেদা জিয়ার প্রতি দাবি জানান। নইলে ক্ষতিপূরণ দাবি করেন তারা।
এ বিষয়ে ভাটারা কাঁচাবাজারের শ্রমিক সর্দার মিলন বলেন, আমরা ২০০ শ্রমিক, সবজি বিক্রেতা ও ক্ষুদে ব্যবসায়ীরা সবজি ও কাঁচামাল নিয়ে খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে এসেছি। আমাদের সবজি নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। আমরা এই সবজি খালেদা জিয়াকে দিতে চাই। তা না হলে অবরোধ তুলে নিক অথবা আমাদের ক্ষতিপূরণ দিক।
এ ভাবে চলতে পারে না। আমরা মারা যাচ্ছি, আমাদের কোনো কাজ নেই। তিনি বলেন, বিক্ষোভ করার উদ্দেশ্য হচ্ছে, কাঁচাবাজারের সবজি নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। শ্রমিকরা কাজ পাচ্ছেন না। তাই, তাদের নষ্ট হয়ে যাওয়া সবজি খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে দিতে এসেছেন।
Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ভারতে বাস খাদে পড়ে নিহত ৩২ আহত ৩৫

নিউজ ডেস্ক :: ভারতের হিমাচল প্রদেশের কুল্লু জেলায় একটি প্রাইভেট বাস ২০০ ...