বাংলাদেশে পুঁজিবাজারে অপ্রদর্শিত আয় বা কালো টাকা বিনিয়োগ করা হলে তাতে কোন প্রশ্ন করা হবে না এই ব্যাখ্যা দিয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের পক্ষ থেকে সোমবার একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

পুঁজিবাজারের বিপর্যস্ত অবস্থার প্রেক্ষাপটে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপের পর যেসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, সেই সহায়তা প্যাকেজের অংশ হিসেবে বিনা প্রশ্নে কালোটাকা বিনিয়োগের সুযোগের এই সিদ্ধান্ত এলো।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, পুঁজিবাজারে অপ্রদর্শিত আয় বা কালো টাকা বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সেই অর্থের উৎস নিয়ে কোনো প্রশ্ন করা হবে না।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান ডঃ নাসির উদ্দিন আহমেদ বলেছেন, পুঁজিবাজার নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সাথে সংশ্লিষ্টদের বৈঠকে যেসব সিদ্ধান্ত এসেছে, তার অংশ হিসেবে অপ্রদর্শিত আয় বিনিয়োগে কোনো প্রশ্ন না করার বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

২০০৯-১০ অর্থ বছরে অপ্রদর্শিত আয় পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের সুযোগ দেওয়া হয়েছিল।

শেয়ারবাজারে বিপর্যয়ের প্রেক্ষাপটে অপ্রদর্শিত আয় বিনিয়োগের দাবি করে আসছিলেন সাধারণ বিনিয়োগকারীরা।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. নাসির উদ্দিন আহমেদ বলছেন, আগে যখন অপ্রদর্শিত আয় বিনিয়োগের সুযোগ দেয়া হয়েছিল, তখন তাতে কিছু অস্পষ্টতা ছিল।

”এখন স্পষ্ট করা হল যে, ১০ শতাংশ কর দিয়ে অপ্রদর্শিত আয় বিনিয়োগ করলে সে ব্যাপারে কোন প্রশ্ন করা হবে না। এই সুযোগ কখনও বন্ধ করা হয়নি,” মন্তব্য করেছেন ডঃ নাসির উদ্দিন আহমেদ।

পুঁজিবাজারে বিপর্যস্ত অবস্থায় শেষ পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হস্তক্ষেপ করেছেন।

শেয়ার বাজারকে স্থিতিশীল করার লক্ষ্যে গত সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংশ্লিষ্টদের নিয়ে একটি জরুরি বৈঠক করেছেন।

সেই বৈঠকের আলোকে দু-একদিনের মধ্যে পুঁজিবাজারের জন্য সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা করা হতে পারে বলে বলা হচ্ছে।

অবশ্য প্রধানমন্ত্রীর সাথে বৈঠকের পর সিদ্ধান্তগুলো বাস্তবায়নের উপায় নিয়ে সংশ্লিষ্টরাও ইতোমধ্যে কয়েক দফা বৈঠক করেছেন।

এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য বিষয় হিসেবে অপ্রদর্শিত আয় বিনিয়োগের সুযোগের ব্যাপারে সোমবার ব্যাখ্যা তুলে ধরা হলো জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের পক্ষ

ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডট কম/ঢাকা

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here