আ হ ম ফয়সল, ঢাকা

১০ ডিসেম্বর বিশ্ব মানবাধিকার দিবসে সকল নাগরিকের অপরিহার্য সেবাসমূহ, যেমন- স্বাস’্যসেবা, শিক্ষা, খাদ্য-নিরাপত্তা ও অবকাঠামোগত সুবিধাগুলো নিশ্চিত করার দায়িত্ব সরকারকেই নিতে হবে বলে দাবী করেছেন বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ। এ দিন জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সুপ্র ও ঢাকা ক্যাম্পেইন গ্রুপ আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচী চলাকালে বক্তারা উক্ত দাবী তুলে ধরেন।
মানববন্ধনের বক্তারা আরো বলেন, বর্তমান বৈশ্বিক পরিসি’তিতে, ধনীদেশগুলোসহ সারা পৃথিবীর সাধারণ নাগরিকদের পক্ষ থেকে দাবী উঠেছে অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে তাদের অংশগ্রহণ ও ন্যায্য হিস্যা পাওয়ার যে অধিকার তা ফিরিয়ে দেয়ার। এমন এক সময়ে যখন রাষ্ট্রের ক্ষমতাধারীরা নাগরিকের মানবাধিকার লংঘন করছে, অর্থনৈতিক ক্ষমতাবানদের লোভের শিকার হচ্ছে দরিদ্র, সরকারী সহায়তা-নির্ভর ও পেনসনভোগী মানুষ। ধনকুবেরদের ‘বেইল আউট’ করা হচ্ছে, অথচ তার ব্যয়বহন করতে হচ্ছে সেসব মানুষদের।

বক্তারা বলেন, সুস’ জলবায়ু  ও পরিবেশে বেচে থাকার অধিকার মানবাধিকারের অংশ; তাই কার্বন বানিজ্য নয় চাই কার্বন নিঃসরণ কমানো। তেমনি মানবাধিকারের মধ্যে পড়ে সবার সমান সুযোগ পাওয়া ও সমৃদ্ধ জীবনযাপন করতে পারা, আর সেটা সম্ভব কেবল যদি সরকার সব নাগরিকের জন্য অপরিহার্য সেবা নিশ্চিত করে। আর সেটা বাস-বায়ন করার জন্য কর্পোরেট কর ও ধনীদের কর বাড়াতে হবে আর দরিদ্রদের করভার লাঘব করতে হবে। বিশেষ করে, নারীদের জন্য সমান সুযোগ তৈরী ও তাদের অবদমন থেকে মুক্ত করতে হবে। তারা আরো বলেন যে জলবায়ু ক্ষতিপূরণ প্রাপ্তি ক্ষতিগ্রস- মানুষদের অধিকার এবং জলবায়ু তহবিল থেকে বিশ্বব্যাংককে দূরে রাখতে হবে।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সুপ্র’র পরিচালক উমা চৌধুরী, উপ-পরিচালক আবু আলা মাহমুদুল হাসান, অর্নব চেয়ারম্যান মোঃ আহসান জাকির, ডেভেলপমেন্ট একসন সেন্টার নির্বাহী পরিচালক মোঃ আব্দুল গাফ্‌ফার ও স্বপ্ন ফাউন্ডেশন উপ-পরিচালক মাহমুদুল হক।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here