ব্রেকিং নিউজ
Home / টপ নিউজ / ২১ মিনিট নিরবতা পালনের ব্যতিক্রমী কর্মসূচী পালন

২১ মিনিট নিরবতা পালনের ব্যতিক্রমী কর্মসূচী পালন

২১ মিনিট নিরবতা পালনের ব্যতিক্রমী কর্মসূচী পালনকলিট তালুকদার, পাবনা প্রতিনিধি:: একুশ মানে মাথা নত না করা, একুশ মানে সহমর্মিতা। তাই একুশের চেতনায় ভাষাহীন বাক প্রতিবন্ধীদের প্রতি সহমর্মিতা জানিয়ে ২১ মিনিট নিরবতা পালনের ব্যতিক্রমী কর্মসূচী পালন করা হয়েছে পাবনার চাটমোহরে। এতে ২১ জন কথা বলতে পারা (সবাক) মানুষ, ২১ জন ভাষাহীন বাক প্রতিবন্ধী (নির্বাক) মানুষের মুখোমুখি বসে ২১ মিনিট প্রতিকি মৌনতা পালন করেন। তাদের পেছনে ছিল ২১ ফুট দৈর্ঘ্যরে কালো পতাকা। শহরের বাইরে প্রত্যন্ত গ্রামে এমন এক ব্যতিক্রমী আয়োজন নজর কাড়ে সবার।

দুই লাইনের চেয়ারে মুখোমুখি বসে ২১ জন করে ৪২ জন মানুষ। এদের মধ্যে একটি লাইনে বসে ২১ জন বাক প্রতিবন্ধী, আর তাদের সামনে ২১ জন কথা বলতে পারা মানুষ। কিন্তু কারো মুখে কোনো কথা নেই। তাদের পেছনে ছিল ২১ ফুট দৈর্ঘ্যরে কালো পতাকা। এভাবেই ২১ মিনিটের প্রতিকী মৌনতা পালন শেষ হয়।

একুশ উদযাপনে বুধবার এমনই এক ব্যতিক্রমী অনুষ্ঠানের আয়োজন ছিল পাবনার চাটমোহর উপজেলার হান্ডিয়াল বাজারের আরএন প্লাজার নিচে। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে সারাবিশ্বের সকল ভাষাহীন মানুষের প্রতি সহমর্মিতা জানাতে এই আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে নিজের ভাষায় জাতীয় সংগীত পরিবেশন করেন বুদ্ধি প্রতিবন্ধী শিশু লাবনী আক্তার। ইশারায় নিজের ভাষা প্রকাশ করেন বাক প্রতিবন্ধী গোবিন্দ সরকার। এছাড়া আয়োজনের মধ্যে আরও ছিল কবিতা পাঠ ও বই উৎসব।

এর আগে সংক্ষিপ্ত আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন, মুক্তিযোদ্ধা কাজী আবদুল খালেক, মুক্তিযোদ্ধা গোলজার হোসেন, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম, তাড়াশ উপজেলার নওগাঁ গ্রামের বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক খায়রুজ্জামান মুন্নু, চাটমোহর উপজেলা ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি কেএম বেলাল হোসেন স্বপন, সাংবাদিক হেলালুর রহমান জুয়েল প্রমুখ।

শহর থেকে প্রায় ৫০ কিলোমিটার দুরে প্রত্যন্ত একটি গ্রামে এমন ব্যতিক্রমী আয়োজন দৃষ্টি কাড়ে সবার। ২১ জন বাক প্রতিবন্ধী ও ২১ জন কথা বলতে পারা মানুষ ২১ মিনিট নিরবতা পালন করে একে অপরের প্রতি সহমর্মিতা জানান। কথা বলতে পারা মানুষ উপলদ্ধি করেন কথা বলতে না পারা মানুষদের আবেগ আর হাহাকার। অনেকে হয়ে পড়েন আবেগ আপ্লুত।

নিরবতা পালন কর্মসূচীতে অংশ নেয়া চাটমোহর উপজেলা ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি বেলাল হোসেন স্বপন বলেন, বাক প্রতিবন্ধীদের সামনে ২১ মিনিট কথা না বলে থেকে বুঝতে পারলাম তাদের কথা বলার আকুতি কতটা। তাড়াশের নওগাঁয় অবস্থিত বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্কুলের প্রধান শিক্ষক খায়রুজ্জামান মুন্নু বলেন, এই ২১ মিনিটে আমি পরিপূর্নভাবে উপলদ্ধি করতে পারলাম কথা না বলে থাকা সত্যি একটি দু:সহ ব্যাপার।

ব্যতিক্রমী এই অনুষ্ঠানের আয়োজক প্রগতিশীল সাংস্কৃতিক কর্মী ও তরুণ উদ্যোক্তা হুমায়ুন কবির জানান, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে সারাবিশ্বের সকল ভাষাহীন মানুষের প্রতি সহমর্মিতা জ্ঞাপনে এই আয়োজন। সরকার ইশারা ভাষার বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত নেবে বলেও মনে করেন তিনি। হুমায়ুন কবির আরো বলেন, আমাদের এই ২১ মিনিট প্রতিকী মৌনতা পালনের অনুষ্ঠান বিশ্বের সকল ভাষাহীনদের প্রতি উৎসর্গ করা হলো।

উল্লেখ্য, হুমায়ুন কবির এর আগে একই স্থানে গত বছরের ডিসেম্বর মাসে মহান বিজয় দিবসে ৭১ ফুট দৈর্ঘ্যরে জাতীয় পতাকা প্রদর্শনী করে আলোচিত হন।

About ahm foysal

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আনিসুল ইসলাম মাহমুদ

মানুষকে মারার রাজনীতি করতে চাই না: পরিবেশ ও বন মন্ত্রী

মোহাম্মদ মাসুদ, সরাইল প্রতিনিধি :: পরিবেশ ও বনমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেছেন, রাজনৈতিক ...