১৯ লক্ষণে বুঝবেন আপনি প্রাপ্তবয়স্ক হয়েছেন

আপনি যদি সরকারের কাছ থেকে প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার সনদের জন্য অপেক্ষা করেন তাহলে দুঃখের সঙ্গে বলতে হবে যে তা আপনি মৃত্যুর আগেও পাবেন না।
কিন্তু হতাশ হবেন না।

প্রচুর উপায়ে আছে যেগুলোর মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন আপনি একজন সত্যকার ও প্রাণবন্ত প্রাপ্তবয়স্ক লোক হিসেবে তৎপর আছেন কিনা।
নিম্নবর্ণিত ১৯টি দক্ষতা সংশ্লিষ্ট লক্ষণ থেকেই বুঝবেন আপনি একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ হয়ে উঠেছেন। এই দক্ষতাগুলো অর্জন করতে পারলে আপনি নিঃসন্দেহে প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের সনদ পাওয়ারও যোগ্য।
১. আপনি ঠাণ্ডা মাথায় নিজের সম্পর্কে কোনো মন্তব্য, প্রতিক্রিয়া বা ফিডব্যাক হজম করতে পারেন। হোক তা বিদ্যালয় বা কর্মস্থলের পারফর্মেন্স সম্পর্কিত বা সামাজিক কোনো ইস্যুতে।
২. আত্মরক্ষামূলক হয়ে ওঠা ছাড়াই আপনি দ্রুততার সঙ্গে আন্তরিকভাবে ক্ষমা প্রার্থনা করতে পারেন।
৩. আপনি প্রজ্ঞার সঙ্গে আপনার সময়ের ব্যবস্থাপনা করেন।
৪. আপনি কাউকে কোনো বিষয়ে “না” বলার ক্ষেত্রে সম্মান প্রদর্শনপূর্বকই তা বলেন।
৫. আপনি অন্যদের প্রতি সহানুভূতিশীল। আপনি লোকের কথা মনোযোগ দিয়ে শোনেন এবং কোনো বিষয়কে অন্যদের দৃষ্টিকোণ থেকে দেখার সক্ষমতা অর্জনের চেষ্টা করেন।
৬. আপনি যে কোনো পরিবেশে বন্ধু তৈরি করতে পারেন। শুধু হাই স্কুলেই নয় এই দক্ষতাটি প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার পরও খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
৭. আপনি পূর্বপরিকল্পিতভাবে অর্থ খরচ করেন এবং বাজেট তৈরি করে চলেন। ভবিষ্যতের জন্য সঞ্চয় করেন।
৮. আপনি একা একা সময় ব্যয় করেন। প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ হিসেবে আপনাকে অন্তত পুরো একটি দিন একাকি পার করতে সক্ষম হতে হবে।
৯. আপনি আপনার বেতন নিয়ে দরকষাকষি করেন। গবেষণায় দেখা গেছে কর্মীদের প্রায় অর্ধেকই তাদেরকে প্রথম যে বেতন প্রস্তাব করা হয় তা মেনে নেন। কিন্তু প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ হিসেকে আপনাতে অবশ্যই নিজের প্রত্যাশিত বেতনের পরিমাণ উল্লেখ করতে হবে। এবং যতক্ষণ না পাচ্ছেন ততক্ষণ দরকষাকষি করতে হবে।
১০. আপনি প্রতিদিনের মৌলিক খাবারগুলো রান্না করতে পারেন। অন্তত পাঁচটি ডিশ রান্না করা শিখুন। একটি সবজি, একটি নাস্তা, একটি অতিথি ডিশ, একটি রাতের খাবার এবং একটি সাদামাট খাবার রান্না কার শিখুন।
১১. আপনি খুদে আলাপ জমাতে পারেন। কর্মক্ষেত্রে যোগাযোগ বাড়ানোর জন্য এর ভুমিকা ব্যাপক। সুতরাং সদালাপী হন।
১২. আপনি বুকে পাটা প্রদর্শন করেন। প্রাপ্তবয়স্কতা মানে হলো আপনি নিজের জন্য কোনো কিছু আপনাতেই ঘটার জন্য আর বসে থাকবেন না। তারচেয়ে বরং নিজেই সামনে এগিয়ে গিয়ে নিজের জন্য জায়গা তৈরি করে নিবেন।
১৩. আপনি সাহাজ্য প্রার্থনা করেন। অনেক হয়তো ভাবতে পারেন প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার পর স্বাধীনভাবে কাজ করাটাই উত্তম। তবে কর্মক্ষেত্রে সহায়তা চাওয়ার মধ্যে লজ্জার কিছুই নেই।
১৪. আপনি সময় মতো ঘুম থেকে জাগেন। বিদ্যালয়ে থাকার সময়ে একটু আধটু দেরি করে ঘুম থেকে ওঠায় তেমন কোনো সমস্যা হয় না। কিন্তু পেশাগত জীবনে প্রবেশ করার পর আর বিছানা ছেড়ে উঠতে দেরি করলে মেনে নেওয়া যায় না। আপনি যদি প্র্রতিদিন সময় মতো ঘুম থেকে উঠে সময় মতো কর্মস্থলের উদ্দেশে ঘর ছাড়তে পারেন তাহলে বুঝা যাবে আপনি সত্যিই প্রাপ্ত বয়স্ক হয়েছেন।
১৫. আপনি সম্ভাব্য প্রেম রোমান্সের ক্ষেত্রে সামনে এগিয়ে যেতে ভয় পান না। একজন আকর্ষণীয় অপরিচিত মানুষের সঙ্গে কথা বলার জন্য এগিয়ে যাওয়াটা যে কোনো স্বাভাবিক মানুষের জন্যই একটু আতঙ্কজনক বটে। কিন্তু সত্যিকার প্রাপ্তবয়স্ক মানুষরা ওই ভয় কাটিয়ে অপরিচিতজনের সঙ্গে সহজেই কথা বলতে পারেন।
১৬. আপনি নিজেকে সহজেই উপস্থাপন করতে পারেন। বাজার অর্থনীতির দুনিয়ায় নিজেকে বিক্রি করতে পারাটা গুরুত্বপূর্ণ দক্ষতা। সংক্ষিপ্ত এবং পরিষ্কারভাবে নিজের ধারণাগুলো হাজির করার সক্ষমতা আপনার দক্ষতাগুলোর তালিকায় শীর্ষে থাকা উচিত। এখনকার এই কোলাহোলপূর্ণ সময়ে লোকে আপনার কথা শোনার জন্য ৩০ সেকেন্ডের বেশি সময় পান না। সুতরাং মাত্র ৩০ সেকেন্ডেই নিজেকে উপস্থাপনের দক্ষতা অর্জন করুন।
১৭. আপনি বাগে আনতে বা সামলাতে পারেন। আদেশ অনুসরণ করা কর্মজীবনের সবেচেয়ে সহজ দিক। কিন্তু কর্মজীবনে প্রবেশ করার পর আপনি বুঝবেন বসকেও আপনার মানিয়ে চলতে হবে।
আপনি যদি আপনার বসেদের প্রিয় হতে চান তাহলে বুঝতে চেষ্টা করুন কীসে তাদেরকে তাদের বসের প্রিয় করে তুলবে। এরপর তাদেরকে তাদের সেই লক্ষ অর্জনে সহায়তা করুন।
১৮. আপনি স্পষ্ট করে লিখতে পারেন। বন্ধুর কাছে ইমেইল করাই হোক বা বসের কাছে প্রতিবেদন পেশ করাই হোক নিজের ধারণাগুলো স্পষ্টভাবে লিখে প্রকাশ করতে হবে। এজন্য শুধু গ্রামার জানলেই চলবেনা বরং সুসংগঠিত এবং সম্ভাব্য সবচেয়ে কার্যকর উপায়ে চিন্তার প্রকাশ ঘটাতে জানতে হবে।
১৯. আপনি আত্ম-সমবেদনার চর্চা করেন। নিজের ব্যর্থতাগুলো নিয়ে নিজেকে তিরস্কার করলে আপনার কোনো লাভ হবে না। সুতরাং নিজেদের প্রতি সহানুভূতিশীল হতে শিখুন। কোনো ভুল করলেই যে আপনি ধ্বংস হয়ে গেছেন এমনটা ভাববেন না।
সূত্র: বিজনেস ইনসাইডার

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

তলপেটের মেদ ঝরাবেন কীভাবে

ওপরের পেটের মেদ কমে গেলেও তলপেটের মেদ কমতে চায় না অনেকের। আর ...