ব্রেকিং নিউজ

স্মারক নোট ও মুদ্রা অবমুক্ত

বাংলাদেশের বিজয়ের ৪০ বছর পূর্তি উপলক্ষে স্মারক নোট ও মুদ্রা এবং জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম রচিত বিদ্রোহী কবিতার ৯০ বৎসর পূর্তি উপলক্ষে মুদ্রিত স্মারক মুদ্রা অবমুক্ত করা করেছে ।

সোমবার বিকেলে গভর্নর ড. আতিউর রহমান বাংলাদেশ ব্যাংক এর প্রধান ভবনের কনফারেন্স হলে আনুষ্ঠানিকভাবে স্মারক নোট ও মুদ্রা অবমুক্ত  করেন।

আতিউর রহমান বলেন, বিজয়ের ৪০ বছর পূর্তি বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক হিসেবে বাঙালি জাতির এ পরম আরাধ্য ‘বিজয়ের ৪০ বছরকে চির স্বরণীয় করে রাখার জন্য এই স্মারক মুদ্রা ও নোট । একই সঙ্গে আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের অমর সৃষ্টি বিদ্রোহী কবিতার ৯০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আরেকটি স্মারক রৌপ্য মুদ্রা অবমুক্ত করেছি।

বিজয়ের ৪০ বছর পূর্তিতে স্মারক নোটের গভর্নর ড. আতিউর রহমান স্বাক্ষরিত এ নোটের এক পিঠে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি এবং প্রতিকৃতির উপরে ‘‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম” এবং নীচের দিকে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’  বাংলায় ‘বাংলাদেশ ব্যাংক’ ইংরেজিতে ‘বাংলাদেশ ব্যাংক’ এবং প্রতিকৃতির বামে ‘১০’ ও ‘দশ টাকা’ লেখা রয়েছে মুদ্রিত আছে। মুদ্রার অপর পিঠে ছয়জন বীর মুক্তিযোদ্ধার প্রতিকৃতি এবং প্রতিকৃতির উপরে ‘বাংলাদেশের ৪০তম বিজয় বার্ষিকী’ ও নীচে ইংরেজীতে ‘বাংলাদেশের বিজয়ের ৪০তম বার্ষিকী’ ও ‘২০১১’ লেখা রয়েছে।

বিদ্রোহী কবিতার ৯০ বছর পূর্তিতে অবমুক্ত করা মুদ্রার এক পিঠে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের প্রতিকৃতি এবং প্রতিকৃতির উপরে ‘‘ ‘বিদ্রোহী’ কবিতার ৯০ বছর’’ এবং নীচের দিকে নীচের দিকে ‘কবি কাজী নজরুল ইসলাম’ ও ৯০তম বৎসর ১৯২১-২০১১’ এবং প্রতিকৃতির বামে ইংরেজিতে ‘১০’ ও ‘দশ টাকা’ মুদ্রিত আছে। মুদ্রার অপর পিঠে ’’বল বীর – বল উন্নত মম শির! শির নেহারী’ আমারি, নতশির ওই শিখর হিমাদ্রির!’’ বিদ্রোহী কবিতার এ পংক্তিগুলো ও কাজী নজরুল ইসলামের স্বাক্ষর এবং উপরে বাংলায় ‘বাংলাদেশ ব্যাংক’ ও নীচে ইংরেজি বড় অক্ষরে ‘বাংলাদেশ ব্যাংক’ এবং ‘২০১১’ লেখা আছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক, মতিঝিল অফিস হতে সুদৃশ্য বাক্সসহ রৌপ্য নির্মিত একপিস স্মারক মুদ্রা নগদ $৩,৫০০ (টাকা তিন হাজার পাঁচশত) মাত্র, ফোল্ডার ও খামসহ একটি স্মারক নোট $২০০.০০ (টাকা দুইশত) মাত্র এবং শুধুমাত্র নোট $৪০.০০ (টাকা চল্লিশ) মাত্র নগদ মূল্যে পাওয়া যাবে। পরবর্তীতে বাংলাদেশ ব্যাংকের সকল শাখা অফিস এবং বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংকের শাখা হতে নগদ মূল্যে এ স্মারক মুদ্রা এবং স্মারক নোট পাওয়া যাবে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- ডেপুটি গভর্নর জিয়াউল হাসান সিদ্দিকী,  ডিজাইন অ্যাডভাইজিং কমিটির সদস্য কেজি মোস্তফা, চিত্রশিল্পী  মোস্তফা মনোয়ার, কাইয়ুম চৌধুরী, মতলব চৌধুরীসহ বাণিজ্যিক ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীরা।

ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডট কম/স্টাফ রিপোর্টার

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

মানুষের গড় আয়ু বেশি

ভারত, পাকিস্তানের চেয়ে বাংলাদেশের মানুষের গড় আয়ু বেশি

স্টাফ রিপোর্টার :: স্বাস্থ্যসেবার মান উন্নয়ন ও চিকিৎসার নানামুখী অগ্রগতির প্রভাবে দেশে ...