সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দুইজনের বাড়ি লক্ষ্মীপুরে

সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দুইজনের বাড়ি লক্ষ্মীপুরেজহিরুল ইসলাম শিবলু, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি :: সৌদি আরবের জেদ্দা শহরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৭ বাংলাদেশি মধ্যে দুইজনের বাড়ি লক্ষ্মীপুরে। তারা সম্পর্কে মামা ভাগ্নে। নিহতরা হচ্ছেন, লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার চর লরেঞ্চ ইউনিয়নের মৃত বদর আলমের ছেলে আরিফ হোসেন ও একই ইউনিয়নের হারুনুর রশিদের ছেলে রুবেল হোসেন।

সৌদি আরবের স্থানীয় সময় বুধবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে জেদ্দা শহরের নিকটবর্তী কিং আব্দুল আজিজ সড়কের সামারি কোর্ট ও রেড সি মলের মধ্যবর্তী এলাকায় মাইক্রোবাস উল্টে ৭ জন নিহত এবং ১১জন আহত হয়।

বৃহস্পতিবার রাতে নিহত আরিফের মামা মো. আনোয়ার হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, বুধবারের দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই আরিফ নিহত হওয়ার খবর পান। এ সময় গুরুতর আহত রুবেল বেচে আছেন শুনেন তিনি। বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় বেলা ৩টার দিকে সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত রুবেল কিং ফাহাদ হাসপাতালে চিকিৎধীন অবস্থায় মারা যান। নিহত আরিফের বাংলাদেশে স্ত্রীসহ ২ সন্তান রয়েছে।

নিহতের স্বজনরা জানায়, গত দেড় বছর আগে আরিফ সৌদি আরবে যান। এর কয়েক মাস পর তার ভাগ্নে রুবেলকে প্রবাসী ভগ্নিপতি হারুন নিয়ে যান সেখানে। এর পর মামা আরিফ ও তার ভাগ্নে রুবেল সৌদি আরবের আল হোলাইফা শহরে একই স্থানে থেকে চাকরি করতেন। তাদের সঙ্গে রুবেলের পিতা হারুনসহ তিন জন একই বাসায় থাকতেন। মামা আরিফ হোসেন ও তার ভাগ্নে সৌদি আরবের আল হোলাইফা শহর থেকে কাজে যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলে মামা আরিফসহ বাংলাদেশি ৬ জন নিহত হয়। এর পর বৃহস্পতিবার মারা যায় রুবেল। দুর্ঘটনার খবর জানার পর থেকেই নিহতদের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। এদিকে নিহতদের মরদেহ দ্রুত দেশে ফিরে পেতে প্রধানমন্ত্রীসহ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ চেয়েছেন নিহতের স্বজনরা।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

সড়ক দুর্ঘটনা

সড়ক দুর্ঘটনায় মাদ্রাসার অধ্যক্ষ নিহত

মুজাহিদুল ইসলাম সোহেল, নোয়াখালী প্রতিনিধি :: নোয়াখালীর বিছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় যাত্রীবাহী ...