“সেক্স দিবস” চালুর দাবি করলেন তসলিমা

toslimaভারতে বসবাসরত বাংলাদেশের বিতর্কিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন বিভিন্ন দিবস নিয়ে মন্তব্য করে  আলোচিত সমালেচিত। এবার নিসঙ্গ জীবনে তসলিমা শুক্রবার তার ফেসবুকে সেক্স দিবস চালুর প্রস্তাব করে স্ট্যাটাস দিয়েছেন।  তসিলমা তার স্ট্যাটাসে “সেক্স দিবসে”র প্রয়োজনীয়তা অনুভব করে নানা যুক্তি তুলে ধরে রসালো মন্তব্য করেছেন।

ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডট কম-এর পাঠকদের জন্য তসলিমার ফেসবকু স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে দেয়া হল।

‘ঘুম থেকে উঠেই শুনলাম আজ চুমু দিবস. তো কাকে চুমু খাব আজ? চুমু খাওয়ার আমার আছে এক বেড়াল. বেড়ালের মেজাজ মর্জি ভালো থাকলে তার ঠোঁটে আজ চুমু খাওয়া যেতে পারে বৈকি. আজকাল সবকিছু নিয়ে দিবস টিবস হচ্ছে. মা বাপ নিয়ে হয়ে গেছে, ভাই বোন কাকা মামা ফুপি খালা নিয়ে হয়েছে কিনা এখনো জানি না. কী নিয়ে দিবস হয়নি তা-ই হয়ত একদিন গবেষণার বিষয় হবে. ভালবাসা দিবস হলো, চুমু দিবস হলো, এর পরের দিবসটা নির্ঘাত সেক্স দিবস!

সেক্স দিবসটা খুব জরুরি. কত মানুষ জীবনের পুরোটা বা বেশির ভাগ সময় সেক্স বিহীন কাটিয়ে দেয়. সমাজের চোখ রাঙানো অমান্য করে, যাকে পছন্দ তার সঙ্গে, সে যদি রাজি থাকে, সেক্স কর. বনোবো হয়ে যাও সবাই . বনোবোরা প্রচন্ড সেক্স ভালবাসে. মানুষ তো সারাক্ষণ সেক্স নিয়ে ভাবে. বনোবোরা ভাবাভাবিতে নেই, তারা করে দেখিয়ে দেয়. এই সেক্স জিনিসটা বনোবোদের ট্যাবু নয়, মানুষই সেক্সকে ট্যাবু বানিয়েছে. পোড়া কপাল আর কাকে বলে!

বনোবোরা সেক্স করেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লড়াই বন্ধ করে. মানুষের সঙ্গে বনোবোর ডি এন এ র সবচেয়ে বেশি মিল, ৯৮.৪%. অথচ বনোবোরা মানুষের মত মোটেও বর্বর নয়, যুদ্ধবাজ নয়, রীতিমত শান্তিপ্রিয় জাত. মানুষ যে কবে বনোবোর কাছ থেকে আচার আচরণ শিখবে!’

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ইনজেকশন দেয়া গরু চিনবেন যেভাবে

ষ্টাফ রিপোর্টার ::ঈদুল আজহার আর মাত্র ক’দিন বাকি। ঈদুল আজহা মূলত মহান ...