সুবিধাবঞ্চিতদের নিয়ে হেল্প এন্ড কেয়ারের পহেলা বৈশাখ উদযাপন

সুবিধাবঞ্চিতদের নিয়ে হেল্প এন্ড কেয়ারের প্রহেলা বৈশাখ উদযাপনএম শরীফ আহমেদ, ভোলা থেকেঃ জাতিসত্তার সুন্দরতম আনন্দ প্রকাশের সেই দিন এলো বাঙালির জীবনে।আজ প্রহেলা বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ।বাংলা ভাষীর জীবনে এলো এক অমলিন আনন্দের দিন।সবচেয়ে বৃহত্তম অসাম্প্রদায়িক ও সর্বজনীন উৎসবও। আজ সর্বস্তরের মানুষ হৃদয়ের টানে, বাঙালিয়ানার টানে মিলিত হবে এ উৎসবে।

উৎসবে শামিল হয়ে বাঙালি তার আপন ঐতিহ্য, সাংস্কৃতিক নিজস্বতা ও গৌরবময় জাতিসত্তার পরিচয়ে আলোকিত হয়।পহেলা বৈশাখে তাই বাঙালি আনন্দ-উৎসবের মধ্য দিয়ে আবার জেগে ওঠে, এক সুরে গেয়ে ওঠে বাঙলির জয়গান।

পহেলা বৈশাখে সকাল নানা বয়সের মানুষ উৎসবের আলোয় রঙিন হয়ে উঠে। পোশাক-পরিচ্ছদ, খানাপিনা,গান বাদ্যসহ সব কিছুতে থাকে বাঙালিয়ানার প্রাধান্য। দিনভর ঘোরাঘুরি, আড্ডা, আমন্ত্রণ ও তুমুল উচ্ছ্বাসে মেতে উঠে জাতি। নারীরা লাল-সাদা শাড়ি, ছেলেদের পরনে রংবেরঙের পাঞ্জাবি, মাথায় গামছা,ফতুয়াসহ বৈশাখের সাজসজ্জা। মা-বাবার সঙ্গে বেরিয়ে শিশু-কিশোরের দল।চলছে নানা সাংস্কৃতিক উৎসব। মানুষ দল বেঁধে তাতে অংশ নেয়।

কিন্তু এসব আনন্দ, উৎসাহ, উদ্দীপনা ছেড়ে সুবিধাবঞ্চিতদের নিয়ে পহেলা বৈশাখ উদযাপন করলো হেল্প এন্ড কেয়ার তরুণ তরুণীরা।উদযাপনের আয়োজন করেছে ভোলার প্রথম সারির সেচ্ছাসেবী সংগঠন হেল্প এন্ড কেয়ার।ভোলার শহরের বাংলা স্কুল মাঠে (১৪এপ্রিল) শনিবার অনুষ্ঠিত হয় এই অনুষ্ঠান।ঘন্টাব্যাপি এই অনুষ্ঠান সকাল ৯টায় শুরু হয়ে বেলা ১২টায়পর্যন্ত চলে।

অনুষ্ঠান স্থানটি বাঙালী ঐত্যিহের আমেজ সাজানো হয়েছে এবং অসহায়,সুবিধাবঞ্চিত, পথশিশু ও বুদ্ধিপ্রতিবন্ধীদেরকে হরেক রকমের ভর্তা দিয়ে পান্তা খাওয়ানো হয়।শিশুদেরকে আনন্দ দিতে তাদের সাথে সেলফি তোলে তরুণ-তরুণীরা।এসময় সবাইকে নানা বাঙালী ঐতিহ্যবাহী খাবার উপহার দেওয়া হয়।সুবিধা বঞ্চিত শিশুরা এই আয়োজনে অনেক মজা করে এবং দিনটি তাদের জীবনে স্মরণীয় হয়ে থাকবে বলে জানায়।

এ অনুষ্ঠানে হেল্প এন্ড কেয়ারের সদস্যরা শিশুদের সঙ্গে বেশ কিছু আনন্দঘন মুহুর্ত কাটান এবং শিশুদেরকে বিভিন্ন সচেতন মূলক বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানে হেল্প এন্ড কেয়ারের প্রতিষ্ঠাতা রাকিব উদ্দিন (অমি) বলেন,এসব কর্মকাণ্ডের পাশাপাশি আমরা নানা ধরনের সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের জন্য বিভিন্ন সামাজিক কাজ যেমন, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, স্যানিটেশন, পরিবেশ, সাংস্কৃতিক উন্নয়ন এবং বিনোদন সুবিধা নিয়ে কাজ করি।তিনি আরও বলেন,আমরা বিশ্বাস করি, সমাজের সব শিশুদের তাদের শৈশবে সব ধরনের অনুষ্ঠান উপভোগ করার অধিকার রয়েছে।

হেল্প এন্ড কেয়ারের সভাপতি আকলিমা (টুকু) বলেন,এইসব সুবিধা বঞ্চিত শিশুরা তাদের বাল্যজীবনে তেমন কোনো সুযোগ-সুবিধা পায়নি।তাদের জীবনে কিছু সুখের মুহূর্ত ফিরিয়ে দিতে আমাদের হেল্প এন্ড কেয়ারের এই উদ্যোগ।এর মাধ্যমে সুবিধা বঞ্চিত এবং সুবিধা প্রাপ্ত শিশুদের মধ্যে একটি সেতুবন্ধ তৈরি করে দিয়ে তাদের মধ্যকার দূরত্ব দূর করতে হেল্প এন্ড কেয়ার একটি প্লাটফর্ম তৈরি করতে চায় এবং এমন কর্মকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত হয়ে সমাজ উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে চায়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, হেল্প এন্ড কেয়ারের  সাধারণ সম্পাদক সিয়াম আহমেদ, প্রচার ও আইটি ইমতিয়াজ, এম শরীফ আহমেদ, মোঃ তুনির, মুনিয়া ইসলাম, চাঁদনী, মোঃ রাফসান, মোঃ রাকিব, মোঃ ইমন, রাজিব, মোঃশাকিব, সামাদ, শুভ, শামিম, ওয়াহিদ ইমন প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

অগ্রযাএা ব্লাড ব্যাংক

অগ্রযাত্রা ব্লাড ব্যাংকের থ্যালাসেমিয়া সচেতনতায় লিফলেট ও ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্পিং

জুনাইদ আল হাবিব :: ‘স্বেচ্ছায় করি রক্তদান, হাসবে রোগী বাঁচবে প্রাণ’ এই ...