সরকারী কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা করতে অনুমতির বিধান থাকা উচিৎ নয়-স্পিকার আব্দুল হামিদ

জাতীয় সংসদের স্পিকার আব্দুল হামিদ বলেছেন সরকারী কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা করতে গেলে সরকারের অনুমতির প্রয়োজন হবে কেন ? কেউ যদি দুর্নীতি করে দেশ লুটপাট করে খেয়ে ফেলে সে ক্ষেত্রে সরকার যদি মামলা করার অনুমতি না দেয় তবে তার শাস্তি হবে না, এটা উচিৎ নয়। এ ক্ষেত্রে দুর্নীতি দমন কমিশনকে দায়িত্ব পালনে পূর্ণ স্বাধীনতা দিতে হবে যেন কেউ দুর্নীতি করে শাস্তি এড়াতে না পারে। মামলা দায়েরের ক্ষেত্রে শুধুমাত্র রাষ্ট্রপতিকেই সাংবিধানিকভাবে সুরক্ষা দেয়া হয়েছে। আমাদের দূর্ভাগ্য, যে যত বেশী দুর্নীতিবাজ সে দুর্নীতির বিরুদ্ধে তত বেশী উচ্চ কণ্ঠ।

তিনি আজ শনিবার দুপুরে কিশোরগঞ্জ জজ কোর্ট প্রাঙ্গণে জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থার উদ্যোগে জন প্রতিনিধিদের নিয়ে আয়োজিত এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন।

তিনি আরো বলেন উচ্চ আদালতে একজন আইনজীবীকে ৫০ হাজার থেকে শুরু করে ৫ লাখ টাকার কমে ফি না দিয়ে নিয়োজিত করা যায় না। এটাও একটা দুর্নীতি। এর বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া দরকার। কারণ এতে করে সাধারণ মানুষ আইনের সহায়তা নিতে সক্ষম হয় না।

স্পিকার আব্দুল হামিদ বলেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে দায়েরককৃত অধিকাংশ মামলাই বানোয়াট। এ সব মামলা নিরীহ মানুষকে ঘায়েল করার জন্য দায়ের করা হয়ে থাকে। এ ক্ষেত্রে তদন্তকারী কর্মকর্তা, আইনজীবী ও বিচারক সবাইকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে।

কিশোরগঞ্জে জেলা ও দায়রা জজ আ. ম মোঃ সাঈদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে জেলা পরিষদের প্রশাসক জিল্লুর রহমান, জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের যুগ্ম সচিব আমীর হোসেন, জেলা প্রশাসক মোঃ সিদ্দিকুর রহমান পুলিশ সুপার মীর রেজাউল আলম বক্তব্য রাখেন। কর্মশালায় জেলার বিভিন্ন পৌরসভা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচিত জন প্রতিনিধিরা অংশগ্রহন করেন।

ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডট কম/রুমন চক্রবর্ত্তী/কিশোরগঞ্জ

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

প্রয়োজনে খালেদা ছাড়াই নির্বাচনে যাবে বিএনপি!

ষ্টাফ রিপোর্টার :: নির্বাচনে অংশ নেওয়া না নেওয়ার সিদ্ধান্তসহ দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি ...