Home / Featured / সম্প্রচার শুরু ‘বাংলা টিভি’র

সম্প্রচার শুরু ‘বাংলা টিভি’র

সম্প্রচার শুরু ‘বাংলা টিভি’র

বাংলা টিভি’র আনুষ্ঠানিক সম্প্রচার উদ্বোধন করা হচ্ছে

স্টাফ রিপোর্টার :: যুক্তরাজ্যের লন্ডনের পর এবার বাংলাদেশে সম্প্রচার শুরু হয়েছে বেসরকারি চ্যানেল ‘বাংলা টিভি’র।

শুক্রবার (১৯ মে) রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমীন চৌধুরী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে চ্যানেলটি আনুষ্ঠানিক সম্প্রচারের উদ্বোধন করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছেন শিরীন শারমিন চৌধুরী

প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছেন শিরীন শারমিন চৌধুরী

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, গণতন্ত্র ও গণমাধ্যমের মধ্যে রয়েছে নিবিড় সম্পর্ক। সংবাদপত্র, ইলেকট্রনিক মিডিয়া ও অনলাইন মিডিয়াগুলো আজ উপভোগ করছে মত প্রকাশের স্বাধীনতা। এ কারণে বর্তমানে বেসরকারি মিডিয়া ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে। অবাধ তথ্য প্রবাহের সূবর্ণ সুযোগের মধ্য দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণমাধ্যমের প্রসার ও বিকাশে আন্তরিকতার সাথে কাজ করে যাচ্ছেন। বর্তমান সরকার গণমাধ্যম বান্ধব সরকার।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন তথ্য মন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এবং প্রখ্যাত সাংবাদিক, কলামিস্ট ও লেখক আব্দুল গাফফার চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে দেওয়া বক্তব্যে হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘বাংলাদেশে সংবাদপত্র, টেলিভিশন চ্যানেল ও এফএম রেডিও দিন দিন বেড়ে চলেছে। আমরা প্রত্যেকটা চ্যানেলের লাইসেন্স দিচ্ছি। আমরা গণতন্ত্রে বিশ্বাসী। আমরা গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করি।’

অনুষ্ঠানে নাচ পরিবেশন করে সাদিয়া ইসলাম মৌ ও তাঁর দল

অনুষ্ঠানে নাচ পরিবেশন করে সাদিয়া ইসলাম মৌ ও তাঁর দল

আবদুল গাফফার চৌধুরী বলেন, ‘১৯৯৮ সালে লন্ডনে বাংলা টিভির সম্প্রচার শুরু হয়। প্রবাসী বাঙালিরা ঘরে বসে বাংলা চ্যানেল দেখতে পেয়েছে। এখন বাংলাদেশে চ্যানেলটি চালু হলো। বাংলা টিভির পথচলা শুভ হোক।

আব্দুল গাফফার চৌধুরী আরো বলেন, ‘নদীর পানি নিয়ে অনেক যুদ্ধ হয়েছে। পানি নিয়েই কারবালার যুদ্ধ হয়েছে। পানি ইস্যুতে মধ্যপ্রাচ্যে এখনও যুদ্ধ হচ্ছে। তিস্তার পানি সংকট নিরসনে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। শেখ হাসিনার সরকার ভারসাম্য নীতি অবলম্বন করে চলছে। এটি একটি সফল কূটনৈতিক অর্জন। কিন্তু দেশের শীর্ষ একটি দৈনিক ‘তিস্তা একটি নদীর নাম’ শিরোনামে যে সংবাদ প্রকাশ করেছে গতকাল (বৃহস্পতিবার), তা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। পত্রিকাটি বলছে, তিস্তার এপারে (বাংলাদেশ) কোনো পানি নেই। সব পানি ওপারে (ভারত) সরিয়ে নেয়া হচ্ছে। এমন সংবাদ উত্তেজনা ছড়ায়। সংবাদের উদ্দেশ্য যুদ্ধ পরিস্থিতি সৃষ্টি করা নয়।’

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন বাংলা টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ সামেদুল হক, বাংলা টিভির চেয়ারম্যান কে এম আক্তারুজ্জামান, ভাইস চেয়ারম্যন সৈয়দ গোলাম দস্তগীর (নিশাদ)।

নওশীন ও হিল্লোলের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে নাচ পরিবেশন করে সাদিয়া ইসলাম মৌ ও তাঁর দল। গান গেয়েছেন কণ্ঠশিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ, কনা ও ইমরান। কৌতুক পরিবেশ করেন মীরাক্কেল খ্যাত সজল ও শাওন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

"বাংলালিংক নেক্সট টিউবার"-এর গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠিত

“বাংলালিংক নেক্সট টিউবার”-এর গ্র্যান্ড ফিনাল অনুষ্ঠিত

ঢাকা :: বাংলাদেশের অন্যতম ডিজিটাল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বাংলালিংক আয়োজিত দেশের প্রথম ডিজিটাল ...