সমঝোতা হলে কেউ কারাগারে থাকবেন না

ঢাকা: যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, রাজনৈতিক সমঝোতা যখন হবে তখন আর কেউ কারাগারে থাকবেন না।

শনিবার সচিবালয়ে ব্রিফিংকালে রাজনৈতিক সমঝোতার আলোচনা কি কারাগারে হবে- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, পর্দার অন্তরালে কথা হচ্ছে বিরোধী দলের সঙ্গে। এরপরই সমঝোতার বিষয়টি আসবে। আর সমঝোতা হলেই কেউ কারাগারে থাকবেন না।

তিনি বলেন, বর্তমান বাংলাদেশের পরিস্থিতিতে বিদেশিদের তৎপরতা এবং ডোনারদের উদ্বেগ রয়েছে। কয়েকদিনের মধ্যে জাতিসংঘ প্রতিনিধি আসবেন। তারা তাদের কথা বলবেন। কিন্তু আমাদের সমস্যা আমরা সমাধান না করলে সমাধান হবে না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বর্তমান যুগে লেভেল প্লে‌ইং ফিল্ড সৃষ্টি করার সুযোগ নেই। সবাই আচরণবিধি মেনে চললে লেভেল প্লেইং ফিল্ড তৈরি সম্ভব।

নির্বাচন কমিশনের বেঁধে দেয়া ৪৮ ঘণ্টা সময়সীমা পার  হওয়ার পরও প্রধানমন্ত্রীর ছবিসহ দলীয় নেতাকর্মীদের ভোট চেয়ে লাগানো পোস্টার এখনো রয়েছে। তাহলে কি করে লেভেল প্লেইং ফিল্ড তৈরি সম্ভব- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘ব্যক্তিগতভাবে আমার কোনো পোস্টার নেই। কয়েকদিনে মধ্যে আওয়ামী লীগের সব পোস্টার তুলে নেয়া হবে।

ডাক ও তারমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন ইতিপূর্বে বলেছিলেন, পার্লামেন্ট বহাল রেখে লেভেল প্লেইং ফিল্ড সৃষ্টি সম্ভব নয়। তাহলে কী করে লেভেল প্লেইং ফিল্ড হবে- এ প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, ‘এটা মেনন সাহেব বলতে পারবেন।

তিনি বলেন, আন্দোলনের নামে তাণ্ডবলীলা চলছে। মানুষের জীবনের চেয়ে তাৎক্ষণিক রাজনৈতিক স্বার্থ বেশি বড় হয়ে দেখা দিয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, আন্দোলনে বেসরকারি গাড়ির বেশি ক্ষতি হয়েছে। প্রায় ৫ হাজার গাড়ি ভাঙচুর ও ১ হাজার গাড়ি পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে।

ওবায়দুল কদের বলেন, আমাদের পরিবহন সেক্টর প্রধান টার্গেটে পরিণত হয়েছে। বিশেষ করে সড়ক ও রেলপথ বড় টার্গেট।

মন্ত্রী বর্তমান আন্দোলনের সঙ্গে থাইল্যান্ডের আন্দোলনের তুলনা করে বলেন, সেখানকার প্রেসিডেন্ট মার্তেকাস মাত্র ২৫০ জন তরুণের জঙ্গি মিছিলে পদত্যাগে বাধ্য হয়েছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, চলন্ত ট্রেনে জীবন্ত মানুষ পুড়িয়ে মারার ঘটনা বিরল। শাহবাগের ঘটনা মধ্যযুগীয় বর্বরতাকেও হার মানায়।

বিরোধী দলের হরতাল অবরোধ ও বিভিন্ন প্রকার বিশৃঙ্খলার কর্মকাণ্ডে গত কয়েক মাসে সরকারি সম্পত্তি ও রাজস্ব ক্ষতির বিবরণ তুলে ধরেন।

বিবরণে বলা হয়, বিআরটিসির গাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে ১৫৩টি, পোড়ানো হেয়েছে ৩২টি। সর্বমোট ক্ষতি ৪১ কোটি ৬৮ লাখ ২০ হাজার ৭৬৪ টাকা। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বেশকিছু বেইলি সেতু, রাস্তা কাটা হয়েছে ও বিপুল সংখ্যক গাছ কেটে ফেলা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শিবগঞ্জের জঙ্গি আস্তানা

শিবগঞ্জের জঙ্গি আস্তানা থেকে চারজনের মরদেহ উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার :: চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবপুর উপজেলার শিবনগর গ্রামে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে একটি ...