সংকটের মুখে সুনামগঞ্জের কার্প মৎস্য হ্যাচারী

এম এ কাসেম, সুনমাগঞ্জ থেকে:

মৎস্য সম্পদ উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ১৯৯৫ সালে বিএনপি সরকারের আমলে এশিয়ান ব্যাংক ও ডেভলাপমেন্ট ব্যাংকের সহায়তায় ২৫ একর জায়গা নিয়ে ৬ কোটি টাকা ব্যয়ে শানি-গঞ্জ এলাকায় বাংলাদেশ সরকার দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার শানি-গঞ্জ বাজার এলাকায় কার্প হ্যাচারী কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হয়। ১৯৯৭ সালে এটির অফিসিয়াল কার্যক্রম পুরোদমে শুরু হয়। হ্যাচারীতে রয়েছে রেনু ও পোনা উৎপাদনের জন্য অভারহেড ট্যাংক, চারকুলার ট্যাংক, ছোট বড় ১৮টি পুকুর, অফিস ভবণসহ কর্মচারী ও কর্মকতার বাস ভবন।

এ হ্যাচারীতে ১৯ জন্য কর্মচারী -কর্মকর্তা থাকার কথা থাকলেও দায়িত্বে আছেন হ্যাচারী কর্মকর্তা শাহজাহান মোহাম্মদ আনিসুর রহমান, ফিসারম্যান কাম গর্ড সহ মাত্র ২ জন্য বাকী ১৭টি পদ দীর্ঘ দিন থেকে শূন্য রয়েছে।

জনবল সংকট ও পরিবহন অবকাটামোগত সমস্যার কারণে মৎস্য চাষীদের চাহিদা অনুযায়ী পোনা উৎপাদন করতে ব্যর্থ হচ্ছে এ প্রতিষ্টানটি।

তাছাড়া মৎস্য হ্যাচারীতে কোটি কোটি টাকার স’াপনা ও মূল্যবান যন্ত্রপাতি পাহারা দেয়ার কেউ নেই।  মৎস্য হ্যাচারী থেকে বৈদ্যুতিক ট্রার্নফরমার, মোটর, জেনারেটর,হ্যাচীং বোতল ও মূল্যবান যন্ত্রাংশ সহ লাখ লাখ টাকার মালামাল চুরির সম্ভবনা দেখা দিয়েছে। তাছাড়া মূল্যবান অনেক যন্ত্রপাতি মাটির সঙ্গে মিশে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এলাকাবাসী বলছেন, সরকার ইচ্ছে করলে মৎস্য হ্যাচারীকে জনবল সংকট ও পরিবহন অবকাঠামোগত সমস্যা দুর করে  মাছের রেনু ও পোনা উৎপাদনের পরিমান বৃদ্ধি করে এলাকার আর্থ সমাজিক উন্নয়নে বিরাট ভূমিকা রাখতে পারে।

হ্যাচারী কর্মকর্তা শাহজাহান আনিসুর রহমান এ প্রতিবেদক কে জানান, মৎস্য হ্যাচারীটি দীর্ঘকাল সংস্কার ও মেরামতের অভাবে জরাজীর্ণ ,ভঙ্গুর হওয়া ইত্যাদি কারণে কর্মকতা-কর্মচারীদের পক্ষে সার্বক্ষনিক ভাবে অবস’ান করা সম্ভব হয়না। সরকার জনবল সংকট ও পরিবহন অবকাঠামোগত সমস্যা দুর করলে প্রতিষ্টানটি লাভের মুখ দেখবে বলে তিনি মনে করেন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ভুতুড়ে বিদ্যুৎ বিল, ৪ এনার্জি বাল্বে ৮৩৬৫ টাকা

স্টাফ রিপোর্টার :: ভোলার লালমোহনে ১৮ ওয়াটের ৪টি বাল্বের এক মাসে বিল ...