ব্রেকিং নিউজ

শিশুর শরীরে ‘আল্লাহ’ লেখা

শিশুর শরীরে 'আলৱাহ' লেখামো: ছাদেকুল ইসলাম, গাইবান্ধা প্রতিনিধি :: গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার ভরতখালি ইউনিয়নের সাকোয়া (রেলওয়ে কলোনী) গ্রামের সেহেজাদ নামের ৪ মাসের এক শিশুর শরীরের বিভিন্ন স্থানে অলৌকিকভাবে আল্লহ লেখা উঠার খবরে হাজারো উৎসুক মানুষের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

সেহেজাদ এর পিতার নাম ফরহাদ খন্দকার ও মাতা শেফা আক্তার। তার পিতা ট্রাক চালক। শিশুটি গত ৭ জুলাই জন্ম গ্রহণ করে। জন্মের তিন মাস পর থেকে এ যাবত ৫ বার তার শরীরে আল্লহ লেখা উঠেছে বলে তার পরিবার দাবি করেছে।

গত সোমবার ওই লেখা ভেসে উঠে বলে জানা যায়। সেহেজাদের নানা হুরমুজ আলীর বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া বলে জানা গেছে। শিশুটি তার নানার বাড়িতেই জন্মগ্রহণ করে।

সেহেজাদের পিতা ফরহাদ খন্দকার জানান, তার সন্তানের শরীরে গত কোরবানির ঈদের চাঁদ উঠার ২য় দিন থেকে এ পর্যন্ত কমপক্ষে ৫ বার আল্লহ ও ইয়া আলৱাহুমা লেখা ভেসে উঠেছে।

হঠাৎ মুছে যাবার কথাও তিনি স্বীকার করেন। তবে তার দাবি আল্লহ লেখা উঠার সময় শিশুটির শরীরে জ্বর উঠে অনেক কান্নাকাটি করে।

শিশুটির মা শেফা জানান, শিশুটি রাতে ঘুমের ঘোরে জিকির করে। কোন অচেনা মানুষের সামনে তার ন্তন থেকে দুধ পান করতে চায় না। নিরব স্থানে দুগ্ধ পান করে। শিশুটি নিজেই কাপড় দিয়ে তার মায়ের স্তন ঢেকে দেয়।

তিনি বলেন, ১ম বার কপালের ডান পাশে। ২য় বার বাম পাশে। ৩য় বার বাম পায়ের উরুতে। ৪র্থ বার মাথার পিছনের খোপায় ও ৫ম বার মাথার ডান পাশে আল্লহ লেখা উঠেছে।

তিনি বলেন, প্রথমে রক্তের মত হয়ে উঠে পরে মেহেদী কালার হয়ে মুছে যায়। লেখা উঠার সময় কান্নাকাটি করে, তখন কোন খাবার খায় না। তিনঘন্টা পর্যন্ত লেখা উঠতে সময় লাগে।

অন্য এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ওই লেখা তোলার চেষ্টা করেছিলাম তখন বিভিন্ন মাওলানা নিষেধ করেছে। সেহেজাদের মা শেফা আকতার বলেন, আল্লহর কাছে শুকরিয়া আদায় করছি। আমি খুব খুশি। আমার সন্তানের কারনে মানুষ যেন হেদায়েত হয়, এটাই কামনা করি।

এ ব্যাপারে স্থানীয় মাওলানাদের সাথে কথা বললে তারা জানান, কারো শরীরে আল্লহ লেখা উঠে আমরা তা শুনিনি। তবে শেষ জামানায় কি হচ্ছে বা হবে বলতে পারব না। তাকে দেখে অনেকেই জানান, জাফরান কালি দিয়ে লেখার মত আল্লহ লেখা।

তাদের ধারণা যুগে যুগে মানুষ ধর্ম নিয়ে কত কিছুই না করছে। সে রকম কিছু হতে পারে। শিশুর শরীরে আলৱাহ লেখা বিষয়টি নিয়ে চায়ের স্টল থেকে গ্রামে গঞ্জে নানান গুঞ্জন উঠেছে। এক কথায় টক অব দ্যা সাঘাটা।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ডে-কেয়ার আইন চূড়ান্ত পর্যায়ে: চুমকি

ডে-কেয়ার আইন চূড়ান্ত পর্যায়ে: চুমকি

স্টাফ রিপোর্টার :: মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি ...