শরীয়তপুরে কবিরাজের মৃত্যু রহস্যময়

মৃত্যু রহস্যময় খোরশেদ আলম বাবুল, শরীয়তপুর প্রতিনিধি :: শরীয়তপুর সদর উপজেলার দক্ষিণ মাহমুদপুর গ্রামের কবিরাজি চিকিৎসক সেকেন্দার সরদারের (৬০) মৃত্যু নিয়ে এলাকায় রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যার সময় পাশ্ববর্তী মাদারীপুর সদর থানার চর গোবিন্দপুর এলাকায় তার মৃত্যু হয়। পরিবারের সদস্যরা ধারণা করছেন তাকে পরিকল্পিতভাবে সেকেন্দার সরদারকে হত্যা করা হয়েছে।

পরিবার ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, কবিরাজী চিকিৎসার সুবাধে বিভিন্ন ধরনের লোকজন সেকেন্দার সাদারের বাড়িতে আসা যাওয়া করতেন। বুধবার বিকেলে দুইজন অপরিচত মটরসাইকেল আরোহী বাড়িতে এসে কবিরাজ সেকেন্দার সরদারকে  মোটরসাইকেলে করে নিয়ে যায়।

পরে সন্ধ্যার সময় পরিবারের কাছে খবর আসে পাশ্ববর্তী মাদারীপুর সদর থানার চর গোবিন্দপুর এলাকায় বর্জাঘাতে সেকেন্দার সরদার মারা গেছে। পরিবারের সদস্যরা গিয়ে দেখতে পায় সেখানে একটি মাদ্রাসার সামনে খাটের উপর সেকেন্দার সরদারের মরদেহ পড়ে রয়েছে। তার মুখে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

খবর পেয়ে মাদারীপুর সদর থানার পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন।

সেকেন্দর সরদারের পুত্রবধু লাকি আক্তার বলেন, বিকেলে দুইজন অপরিচত লোক মটরসাইকেলে এসে আমার শ্বশুড়কে নিয়ে যায়। পরে খবর পাই আমার শ্বশুড় বর্জাঘাতে মারা গেছে। কিন্তু তার শরীরে বর্জাঘাতের কোন আলামত পাওয়া যায়নি।

সেকেন্দর সরদারের বড় ভাই আব্দুল মতলেব সরদার বলেন, সন্ধ্যার সময় খবর পেয়ে আমরা পাশ্ববর্তী চরগোবিন্দপুর ফরজী বাড়ি মাদ্রাসার সামনে একটি খাটের উপর আমার ভাইর মরদেহ পড়ে রয়েছে। স্থানীয় জানিয়েছেন, সেকেন্দার সরদার ঝড়ের সময় রাস্তার উপর মৃত অবস্থায় পড়েছিল। তাকে উদ্ধার করে মাদ্রাসার সামনে খাটের উপর রেখে দেয়।

সেকেন্দর সরদারের ছোট ভাই এডভোকেট মোহাম্মদ সেলিম আজাদ বলেন, মাদারীপুর থানার পুলিশ এসে ময়নাতদন্তের জন্য আমার ভাইয়ে মরদেহ নিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

মনোনয়নপত্র বেচে ১৩ কোটি টাকার বেশি আয় আওয়ামী লীগের

স্টাফ রিপোর্টার :: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য দলীয় ৪ হাজার ৩৬৭টি ...