লোকমান হত্যাকাণ্ডে সরকারের হাত রয়েছে: ফখরুল

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেছেন, নরসিংদীতে লোকমান হত্যাকাণ্ডের আট দিন পার হওয়ার পরো এখনও কেউ গ্রেপ্তার না হওয়ায় প্রমাণ হয়েছে এর পেছনে সরকারের হাত রয়েছে।

বুধবার বিকেলে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এই কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, এটা স্পষ্ট যে, লোকমান হত্যায় সরকারের প্রভাবশালী মহলের হাত রয়েছে। আর এ কারণেই এই হত্যাকাণ্ডকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতেই বিএনপি নেতা খায়রুল কবীর খোকনকে গ্রেপ্তার করেছে।

তিনি বলে, সরকারের একমাত্র কাজই হচ্ছে বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে পুরে ভয় দেখানো। খোকনকে গ্রেপ্তার করে সরকার প্রমাণ করল, তারা প্রতিহিংসার রাজনীতি করছে।

সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল বলেন, ট্রেন পোড়ানো ও সার্কিট হাউস ভাঙচুরের মামলায় খোকনকে জড়ানো হাস্যকর। সার্কিট হাউস ভাঙচুরের সময়ে খোকন ছিলেন ঢাকায়। পরদিন যখন ট্রেন পোড়ানো চলছিলো তখন তাকে বসিয়ে রাখা হয়েছিলো নরসিংদীর এসপি কার্যালয়ে।

বিএনপির কেন্দ্রীয় শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ও নরসিংদী জেলা বিএনপি সভাপতি খায়রুল কবীর খোকনের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রতিবাদ ও তার মুক্তির দাবিতে আগামী শনিবার সকাল সাড়ে দশটায় নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করার ঘোষণা দেন মির্জা ফখরুল। এর আগের দিন শুক্রবার বিকেলে বিক্ষোভ সমাবেশ করবে স্বেচ্ছাসেবক দল।

উল্লেখ্য, নরসিংদীর পৌর মেয়র ও শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লোকমানকে গত ১ নভেম্বর রাতে মুখোশধারী সন্ত্রাসীরা হত্যা করে।

এর পরপরই ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় জেলা বিএনপির সভাপতি খোকনকে। ৫৪ ধারায় আটক দেখিয়ে তাকে রিমান্ডে চেয়ে পরদিন আদালতে আবেদন করে পুলিশ।

লোকমানকে হত্যার পরপরই বিক্ষুব্ধ জনতা নরসিংদীতে ডাক বাংলো ভাংচুর করে। পরদিন একটি ট্রেনে আগুন দেওয়া হয়।

এদিকে, বুধবার খোকনকে নরসিংদীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নিতাই চন্দ্র সাহার কোর্টে হাজির করার পর দীর্ঘ ১ ঘণ্টা শুনানি চলে। শুনানির পর ৫৪ ধারার মামলায় তাকে জামিন দেওয়া হয়।

কিন্তু এ পর্যায়ে গত ৩ নভেম্বর দায়ের করা অপর ২টি মামলায় (রেলস্টেশন ভাংচুর ও সার্কিট হাউজ ভাংচুর) পুলিশ তাকে শ্যোন অ্যারেস্ট করার আবেদন জানায়।

আদালত ওই দুই মামলায় শ্যোন অ্যারেস্ট মঞ্জুর করে খোকনকে জেলা হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেয়।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আমান উল্লাহ আমান, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নাজিম উদ্দিন আলম, গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সাউল্লাহ মিয়া, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাসুদ আহমেদ তালুকদার, কেন্দ্রীয় নেতা হাবিবুর রহমান হাবিব, আবদুল লতিফ জনি, আসাদুল করীম শাহিন, খোরশেদ মিয়া, যুবদল সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, স্বেচছাসেবক দলের সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেল, মহিলা সাংসদ শাম্মী আখতার, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল বারী বাবু প্রমুখ।

ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডট কম/ঢাকা

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

লক্ষ্মীপুরে বিএনপি নেতা এ্যানীর বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর

বিএনপি নেতা এ্যানীর বাড়িতে হামলা: ভাঙচুর

জহিরুল ইসলাম শিবলু, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : : কেন্দ্রীয় বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ ...