লক্ষ্মীপুরে সাংবাদিকের উপর চেয়ারম্যান ও তার বাহিনীর হামলা

লক্ষ্মীপুরে সাংবাদিকের উপর চেয়ারম্যান ও তার বাহিনীর হামলাজহিরুল ইসলাম শিবলু, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি ::
লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও উত্তর জয়পুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম চৌধুরীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম ও দূর্নীতির সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিক রফিকুল ইসলামকে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে আহত করছে চেয়ারম্যান ও তার বাহিনীর সন্ত্রাসীরা।

গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার দুপুরে চেয়ারম্যানের নিজ বাড়িতে।

গুরুতর আহত সাংবাদিক স্থানীয় দৈনিক লক্ষ্মীপুর কণ্ঠ পত্রিকার সম্পাদক ও দৈনিক মানককন্ঠের লক্ষ্মীপুর জেলা সংবাদদাতা। এ ঘটনায় স্থানীয় সাংবাদিকদের মাঝে ক্ষোভ ও নিন্দার ঝড় উঠে।
আহত সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম ও স্থানীয়রা জানায়, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও উত্তর জয়পুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম চৌধুরী এবং তার ইউনিয়ন পরিষদের বিভিন্ন প্রকল্পের অনিয়ম ও দূর্নীতি নিয়ে স্থানীয় দৈনিক লক্ষ্মীপুর কন্ঠ ও জাতীয় পত্রিকায় একাধিক সংবাদ প্রকাশ করা হয়। এ ঘটনার জের ধরে শুক্রবার দুপুরে চেয়ারম্যান আবুল কাশেম চৌধুরী মোবাইল ফোনে তার বাড়িতে সাংবাদিক রফিককে ডেকে নয়।

এ সময় চেয়ারম্যান ও তার বাহিনীর সন্ত্রাসীরা সাংবাদিক রফিকুল ইসলামকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন স্থানীয়রা।

এ দিকে সম্প্রতি মুক্তিযোদ্ধা নুর মোহাম্মদকে একই কায়দায় তার ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে বেদম মারধর করে টয়লেটে আটকিয়ে রাখে আবুল কাশেম চৌধুরী। অভিযোগ রয়েছে, আবুল কাশেম চৌধুরী চেয়ারম্যান হওয়ার পর থেকে ক্ষমতার প্রভাব দেখিয়ে ইউনিয়নবাসীকে জিম্মি করে রেখেছে। চেয়ারম্যান আবুল কাশেম ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীর ভয়ে এলাকার নিরীহ লোকজন মুখ খুলছেনা।

সাংবাদিক রফিকুল ইসলামের উপর হামলার ঘটনায় জেলায় কর্মরত সংবাদকর্মীরা তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ জানিয়ে ঘটনার সাথে জড়িত চেয়ারম্যান ও তার বাহিনীর সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবী জানান। অন্যথায় কঠোর কর্মসুচি ঘোষনা করা হবে বলে হুশিয়ারী দেন সাংবাদিক নের্তৃবৃন্দ।

হামলার ঘটনায় সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও উত্তর জয়পুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম চৌধুরীর সাথে একাধিকবার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেনি।

এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার আ স ম মাহাতাব উদ্দিন জানান, অভিযোগ পেলে তদন্তপৃর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

নির্বাচন শতভাগ সুষ্ঠু হবে না

স্টাফ রিপোর্টার :: পৃথিবীর কোনো দেশেই শতভাগ সুষ্ঠু নির্বাচন হয় না। তাই ...