রোহিঙ্গাদের সহায়তার জন্য ওএফআইডি পুরস্কার পেল ব্র্যাক

রোহিঙ্গাদের সহায়তার জন্য ওএফআইডি পুরস্কার পেল ব্র্যাকBRAC wins OFID annual award for supporting Rohingyasস্টাফ রিপোর্টার :: মিয়ানমার থেকে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যূত রোহিঙ্গাদের সহায়তায় এগিয়ে আসার জন্য এ বছর ওপেক ফান্ড ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্টের (ওএফআইডি) অ্যানুয়াল অ্যাওয়ার্ড ফর ডেভেলপমেন্ট-২০১৮ পেয়েছে ব্র্যাক।

তেল রপ্তানিকারক দেশগুলোর জোট ওপেকের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সহায়তা প্রতিষ্ঠান ওএফআইডি ২০০৬ সাল থেকে এ পুরস্কার দিয়ে আসছে।

রোববার ব্র্যাকের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

পুরস্কার হিসেবে ওএফআইডি ব্র্যাককে ১ লাখ মার্কিন ডলার দিয়েছে। গত বৃহস্পতিবার (২১ জুন) অস্ট্রিয়ার ভিয়েনায় সংস্থাটির কর্মকর্তাদের কাছ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্রেস্টসহ এ স্বীকৃতি গ্রহণ করেন ব্র্যাকের ভাইস চেয়ারপারসন ড. আহমদ মোশতাক রাজা চৌধুরী।

গত বছর ২৫ আগস্টের পরে মিয়ানমার থেকে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যূত যে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, তাদের জন্য ব্র্যাক সবচেয়ে বড় বেসরকারি মানবিক সহায়তা কার্যক্রম পরিচালনা করছে। দুর্গতদের জরুরি মানবিক চাহিদা পূরণ, দক্ষতা ও সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং দীর্ঘমেয়াদী কল্যাণের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে ব্র্র্যাক।

এই মানবিক সহায়তা কার্যক্রমের শুরু থেকে এ পর্যন্ত ৬ লাখ ৬০ হাজার মানুষকে কোনো-না-কোনোভাবে জরুরি সহায়তা দিয়েছে ব্র্যাক। বাংলাদেশ সরকার, জাতিসংঘ এবং স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থার সঙ্গে সমন্বিতভাবে ব্র্যাক কমিউনিটিকেন্দ্রিক উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে।

পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে ওএফআইডির মহাপরিচালক সোলায়মান জে আল হারবিশ বলেন, এ বছর রোহিঙ্গা সঙ্কট মোকাবিলার দিকটি প্রাধান্য দিয়ে এবং বঞ্চনা ও অসমতা মোকাবিলায় জোরালো ভূমিকা রাখায় এ পুরস্কার প্রদান করা হয়। ব্র্যাক প্রান্তিক জনগোষ্ঠী হিসেবে রোহিঙ্গাদের সহায়তা, তাদের ইতিবাচক পরিবর্তনের মাধ্যমে জীবনযাত্রায় সহায়তা করায় এ স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

ব্র্যাকের ভাইস চেয়ারপারসন ড. আহমদ মোশতাক রাজা চৌধুরী বলেন, ওএফআইডির এই পুরস্কার গ্রহণ করে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। এই পুরস্কার আমাদের ভবিষ্যৎ কর্মকাণ্ড এগিয়ে নিতে গভীর উদ্দীপনা জোগাবে এবং আমাদের দায়বদ্ধতা বৃদ্ধি করবে। এই পুরস্কারের অর্থ রোহিঙ্গা নারী ও শিশুদের মানবিক সহায়তা প্রদানে ব্যয় করা হবে।

প্রসঙ্গত, এর আগে ২০১৫ সালে এই পুরস্কার পায় মিশরভিত্তিক চিলড্রেনস ক্যান্সার হসপিটাল এবং ২০১৩ সালে পান পাকিস্তানের মালালা ইউসুফজাই।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

অগ্রযাএা ব্লাড ব্যাংক

অগ্রযাত্রা ব্লাড ব্যাংকের থ্যালাসেমিয়া সচেতনতায় লিফলেট ও ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্পিং

জুনাইদ আল হাবিব :: ‘স্বেচ্ছায় করি রক্তদান, হাসবে রোগী বাঁচবে প্রাণ’ এই ...