‘রামগতি তোমায় ভালোবাসি’

"রামগতি তোমায় ভালোবাসি"

সুলতান মাহমুদ আরিফ :: ভালোবাসা আর ভালোলাগার প্রিয় জায়গা রামগতির ভালোবাসাময় প্রিয় আবাসভুমি ।শৈশব আর কৈশরের কত- শত স্মৃতি বিজড়িত প্রিয় লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতিতে। সবুজের অপরুপ সৌন্দর্যে ভরা রামগতির মেটো পথগুলো। হাজারো ছোট -খাটো পুকুর আর খাল -বিলের ছড়াছড়িতে অসাধারণ রোম্য পরিবেশে সৃজন রামগতি। রামগতির পথ-ঘাট আজও উঁকি দেয় হৃদয়ের ভালোবাসার জায়গাটিতে।

পাশে বয়ে যাওয়া মেঘনা নদীর ঢেউ খেলা ছন্দ। দক্ষিণা দিকের স্বচ্ছ বাতাস। পথ- ঘাটের নির্মল পরিবেশ।কৃষকের লাঙ্গল- জোয়াল নিয়ে ভাটিয়ালি গানের সুর ধরে কর্মস্থলে যাওয়া।পুকুর আর খাল -বিলে শাপলার ফুল ফোটার দৃশ্য। অবুজ শিশুর দিনব্যাপী পুকুরের পানিতে ছড়াছড়ি ।বড়দের মাছ ধরার দৃশ্য। কৃষাণি বউয়ের দিনব্যাপী ব্যস্ততা।শীতের দিনে রাস্তার কোন পাশে কিংবা বিলের ধারে খড় কুঁড়া সংগ্রহ করে আগুনে তাপদাহ করা।

মসজিদের মুয়াজ্জিনের ভোরের মিষ্টি সুরে আজানের মধ্য দিয়ে রাতের সমাপ্তি জানান দেওয়া।মক্তবে গিয়ে আরবী শিখার নিমিত্তে মনোযোগ দেওয়া। মক্তব থেকে ফিরে স্কুল কিংবা মাদ্রাসার পথ ধরে কাঁধে কিংবা কোমরজুড়ে বই নিয়ে মেটোপথ ধরে গমন করা। বিকাল লগ্নে আবার একসাথে বিদ্যাপিট থেকে ফিরে এসে কোন বালুকাময় মাঠ কিংবা কাঁদাযুক্ত মাঠে খেলায় মনোনিবেশ করা। সন্ধ্যায় আবার হাত – পা ধৌত করে মায়ের আদরীমাখা বকুনীতে আবার পড়তে বসা।

রামগতির দৃশ্যগুলো এবং ভালোলাগাময় স্মৃতিচারণ সত্যি ভুলনীয় নয়। আজো মনে পড়ে বার বার সেই দৃশ্যগুলোকে। ইশশ্ যদি আবার ফিরে আসতো কৈশোর দিনগুলো। ফিরে আসতো নবতরঙ্গময় দুষ্টামির স্বভাবগুলো। কতই না ভালো লাগতো।

কিন্তু বাস্তবতার কাছে হেরে যেতে হচ্ছে বার বার। সম্ভব হচ্ছে না ফিরে যেতে সেই শৈশবের আড্ডায়। স্বার্থের তাগিদে কর্মের অজুহাতে আজ সবাই সবার জায়গাতে ব্যস্তময় দিন অতিক্রম করছে।

বিশেষ করে আমাদের মাঝে যারা পড়া- লেখা কিংবা জীবিকার তাগিদে রামগতি ছেড়ে বাসস্থান করে নিয়েছে ইট- পাথরময় শহরাঞ্চল গুলোতে; তাদের হৃদয়ে বিরাজ করছে আহাকার আর নিভৃত ভালোবাসা রামগতির মাটি ও মানুষের প্রতি।

"রামগতি তোমায় ভালোবাসি"

এই ভালোবাসাকে একই সুত্রে রেখে একে- অপরের প্রতি স্নেহ, শ্রদ্ধা এবং বন্ধুত্ব কিংবা ভ্রাতৃত্ববোধের জায়গাটিকে ধরে রাখার জন্যই চেষ্টা করে যাচ্ছে রামগতির শ্রদ্ধাভাজন বিশেষ ব্যক্তিবর্গ দ্বারা পরিচালিত “রামগতি উপজেলা কল্যাণ সমিতি, ঢাকা”।তারই সুত্র ধরে ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ রোজ শুক্রবার রামগতির ভালোবাসাময় মানুষগুলো মিলিতে হচ্ছে- সিভিল এবিয়েশন স্কুল এন্ড কলেজ প্রাঙ্গনে ( জাহাঙ্গির গেইট, বিএএফ শাহিন কলেজের বিপরীতে)।

সারাদিনব্যপি আড্ডা আর নাচ-গান এবং খানা-পিনার মধ্য দিয়ে অসাধারণ একটা দিন কাটাবে ঢাকায় বসবাসরত রামগতির মানুষগুলো। অপরিচিত ব্যক্তিগুলো পরিচিত হবে। পরিচিত লোকগুলোর সাথে বন্ধন আরো দৃঢ় হবে।সকালে উপস্থাপন হবে রামগতির অতিত ইতিহাসের স্মৃতিচারণ । অভিজ্ঞজনেরা তাদের অভিজ্ঞতালব্ধ জ্ঞান বিচরণে করবেন নব তরুণদের মাঝে। সবার মাঝে থাকবে এক ঝিলিক উজ্জ্বল ধ্রুব হাসি, একসাথে আওয়াজ আসবে ‌”রামগতি তোমায় ভালোবাসি”।

লেখকঃ অনার্স ৩য় বর্ষ, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ, সরকারি তিতুমীর কলেজ, ঢাকা। 

 

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

কখন কেন কিভাবে গোসল করতে হয়

গোসলের ফরজ কাজ হলো তিনটি। এ তিনটি কাজ যথাযথভাবে পালন না করলে ...