রবি-সোম হরতাল!

ঢাকা : লতিফ সিদ্দিকীর সর্বোচ্চ শাস্তি এবং ইসলামের বিরুদ্ধে কটূক্তিকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তির আইন পাসের দাবিতে ফের আগামী রোববার ও সোমবার ৪৮ ঘণ্টার হরতাল আসছে। এই দাবিতে ইসলামী আন্দোলন ৫ ডিসেম্বরের মহাসমাবেশের ডাক দেয়। কিন্তু সমাবেশের অনুমতি না পাওয়ায় দলটি হরতাল ঘোষণা করবে বলে জানা গেছে।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ইসলামী আন্দোলনের এক কেন্দ্রীয় নেতা।

তবে হরতালের বিষয়টি নিশ্চিত না করলেও এমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন দলটির প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আহমদ আবদুল কাইয়ূম। তিনি বলেন, ‘হজ ও রাসূল (সা.) সম্পর্কে কটূক্তিকারী লতিফ সিদ্দিকীর সর্বোচ্চ শাস্তি এবং ইসলামের বিরুদ্ধে কটূক্তিকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তির আইন পাসের দাবিতে ৫ ডিসেম্বর মহাসমাবেশ ঘোষণা করা হয়। কিন্তু ঘোষিত মহাসমাবেশের অনুমতি নিয়ে গড়িমসির করছে সরকার। এর প্রতিবাদে আমাদের কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।’

আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১২টায় পুরানা পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কর্মসূচি ঘোষণা হবে বলে জানান তিনি। সংবাদ সম্মেলনে দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী ও মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ উপস্থিত থাকবেন।

ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান জানান, ‘শুক্রবার বাদ জুমা ঘোষিত মহাসমাবেশ সফলে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছিলাম। কিন্তু সরকার এ নিয়ে তালবাহানা করছে। এই ঈমানী সমাবেশে বাধা দেয়াটি সরকার পতনের আন্দোলনে রূপ নিতে পারে। মুরতাদ লতিফ সিদ্দিকী আমাদের প্রাণের স্পন্দন রাসূল (সা.) ও পবিত্র হজ নিয়ে কটূক্তি করে আমাদের হৃদয়ে প্রতিবাদের আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছে। তাকে শুধু গ্রেপ্তার করে ঈমানদার জনতার ঈমানী আগুন থামানো যাবে না। তাকে অবশ্যই সর্বোচ্চ শাস্তির মুখোমুখি করতে হবে। সংসদের আগামী অধিবেশনে আল্লাহ ও রাসূল (সা.) এর দুশমন নাস্তিক-মুরতাদদের শাস্তির আইন পাস করতে হবে।’

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বাংলাদেশের উন্নয়নে ভারতের সহযোগিতা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী

ষ্টাফ রিপোর্টার ::  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের উন্নয়নে ভারতের অব্যাহত সাহায্য এবং ...