রংপুরে ছাত্রদল ও ছাত্রলীগের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া সংঘষ: আহত ৬ গ্রেফতার ১

জহুরুল ইসলাম জহির, রংপুর

রংপুর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদল ও ছাত্রলীগের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষে পুলিশের দুই উপ পরিদর্শক সহ কমপক্ষে ৬ জন আহত হয়েছে। পুলিশ এ সময় ছাত্রদলের এক কর্মীকে গ্রেফতার করেছে। ক্যাম্পাসে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরিসি’তি নিয়ন্ত্রনে রাখতে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তপক্ষ জানিয়েছেন।
পুলিশ ও বিশ্ববিদ্যালয় সুত্রে জানা যায়, সোমবার বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার লালমনিরহাট সফর  উপলক্ষে ছাত্রদল বিশ্ববিদ্যালয় শাখা প্রধান ফটকের সামনে পথসভার প্রস’তি নেয়। এরই প্রতিবাদে ছাত্রলীগ ক্যাম্পাসে প্রতিবাদ মিছিল বের করে এবং পথসভা প্রস’তিতে বাধা দেয়। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর মোরশেদুল ইসলাম ঘটনাস’লে উপসি’ত হয়ে উত্তেজনাকর পরিসি’তি শান- করে। এদিকে, প্রক্টর কর্তৃক ছাত্রলীগের কাজে বাঁধা দেওয়ার প্রতিবাদে ক্লাশ বর্জন কর্মসূচি ঘোষনা করে।
এরই অংশ হিসেবে মঙ্গলবার সকাল থেকে ছাত্রলীগ কর্মীরা ক্লাশ থেকে সাধারন ছাত্রছাত্রীদের বের করে দেয়। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের খেলার মাঠে থাকা গণিত বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্র সিদ্দিক কে একা পেয়ে বেধরক মারপিট করে ছাত্রলীগের কর্মীরা। এ খবর দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে ছাত্রদলের কর্মীরা ক্যাম্পাসে ছুটে আসে এবং উভয় পক্ষ মুখোমুখি অবস’ান নেয়। ক্যাম্পাসে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরে ছাত্রদল সংগঠিত হয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশের চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের বাঁধা দেয়। এসময় ছাত্রলীগেরও ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল চলছিল। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ছাত্রদল কর্মিরা পুলিশ ও ছাত্রলীগের উপর ইট পাটকেল নিক্ষেপ করলে সেখানে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এরপর বেলা ১১টা থেকে ছাত্রদল ও ছাত্রলীগের কর্মীদের মাঝে বিচ্ছিন্নভাবে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয় এবং ব্যপক সংঘর্ষ বাধে। এসময় সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রনে আনতে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অবসি’ত পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ পরিদর্শক(এস আই) হারুন, ওয়াহেদ সহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়। পুলিশ এসময় সংঘর্ষে জড়িত থাকার অভিযোগে ছাত্রদল কর্মী বাংলা ৩য় বর্ষের ছাত্র তাজিবুল কে গ্রেফতার করে।
আহত ছাত্রদল কর্মী সিদ্দিক জানায়,বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র লীগের শিশির, রুবেল ও রনির নেতৃত্বে  তার উপর হামলা করা হয়। এতে সে গুরুতর আহত হয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। অপরদিকে সংঘর্ষের ঘটনার পর পুলিশ বিশ্ববিদ্যালয়ের আশপাশের বেসরকারি সৈকত ছাত্রাবাস, বেলী ম্যানশন, মাহাবুব ছাত্রাবাস, রইচ জোবেদা ছাত্রবাসে তল্লাশী চালায়। তবে কাউকে পুলিশ গ্রেফতার করেনি।
বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সংঘর্ষের ঘটনায় ছাত্রদল ও ছাত্রলীগ পরস্পরকে দায়ি করেছে। বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র দলের নেতা হযরত বেলালের অভিযোগ, বিনা উস্কানিতে ছাত্রলীগ তাদের সংগঠনের নেতার উপর হামলা করেছে। এই হামলার প্রতিবাদে কর্মসূচি দিতে তারা সন্ধ্যায় আলোচনায় বসবেন বলে জানান। অন্যদিকে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র লীগের শিশির এই ঘটনার জন্য ছাত্রদলকে দায়ি করে বলেন, আগের দিন ছাত্রদল তাদের শানি-পূর্ন মিছিলে বিনা কারণে ধাওয়া করে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. আব্দুল জলিল মিয়া জানান, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের মধ্যে সোমবারের ঘটনার জের ধরে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। তবে পরিসি’তি বর্তমানে শান- রয়েছে।
কোতয়ালী থানার ওসি আলতাফ হোসেন ইউনাইটেড নিউজ কে জানান, রংপুর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদল ও ছাত্রলীগের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় উপ পুলিশ পরিদর্শক(এসআই) হারুন ও ওয়াহেদ সহ কমপক্ষে ৬ জন আহত এবং এসময় ছাত্রদলের তাজিবুল নামের এক কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বর্তমানে ক্যাম্পাসের পরিসি’তি নিয়ন্ত্রনে রয়েছে এবং সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

মনোনয়নপত্র বেচে ১৩ কোটি টাকার বেশি আয় আওয়ামী লীগের

স্টাফ রিপোর্টার :: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য দলীয় ৪ হাজার ৩৬৭টি ...